Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

প্রেমিকাকে ফিরে পেতে বাঁশের মধ্যে টাকা লুকোতেন যুবক ! তিন বছর পর বেরোল গুপ্তধন

।। প্রথম কলকাতা ।।

ভালোভাবে জীবন যাপনের জন্য প্রয়োজন টাকা। টাকা ছাড়া এই দুনিয়ায় অনেক কিছুর মূল্য নেই। এমনকি কখনো টাকার কাছে হার মেনে যায় ভালোবাসা। আবার অনেকে নিজের ভালোবাসাকে ফিরে পেতে হয়ে যান কোটিপতি। আজকের এই প্রতিবেদনে এমন একটি তথ্য জানিবেন, যা শুনে সত্যি হয়রান হয়ে যাবেন। বাঁশের ফাঁপা অংশের মধ্যে এক যুবক দিনের পর দিন জমিয়ে রাখলেন টাকা। কখনো ১০০ তো কখনো ২০০ টাকার নোট গুঁজে রাখতেন। তারপর ৩ বছর পর সেই ভাণ্ডার ভেঙে এত পরিমাণে টাকা বেরিয়ে আসে , যার অঙ্ক সেই যুবক কল্পনাও করতে পারেননি। যদিও এই ভাবে দীর্ঘ ৩ বছর টাকা জমানোর পিছনে তার উদ্দেশ্য ছিল।

আসলে তিনি তার প্রেমিকাকে ফিরে পেতে বা বিয়ে করতে এই টাকা জমাচ্ছিলেন। মালয়েশিয়ার এক ব্যক্তি তার প্রেমিকাকে বিয়ে করার জন্য তিন বছর অপেক্ষা করেছিলেন। ওই ব্যক্তির নাম ফারহান স্যাম। আসলে নিয়ম অনুযায়ী বিয়ে করতে হলে আগে টাকা জমা দিতে হয়। এ জন্য তিনি বাঁশের নলের ভিতর প্রতিদিন টাকার নোট রাখতেন, কখনো ১০০ আবার কখনো বা ২০০। এভাবে প্রায় ৩ বছর ধরে তিনি টাকা রাখেন। অবশেষে, ৩ বছর পরে তার সঞ্চিত অর্থ গুনে দেখেন, সেই পরিমাণ টাকা বিয়ে করার জন্য যথেষ্ট ছিল।

যদিও টাকা জমানোর পর তা বহু বছর হয়ে গেলে, ঠিক কত পরিমাণে জমা হয়েছে তা দেখার উৎসাহ বহু মানুষের থাকে। তাই ওই যুবক প্রথমে বন্ধুদের ডেকে রীতিমতো ভিডিও করে তার সঞ্চিত থলি গুনতে শুরু করেছিলেন। তিনি ইচ্ছা করলেই কোন ব্যাংকে গিয়ে টাকা জমা রাখতে পারতেন কিন্তু আসলে সে ক্ষেত্রে খরচ হয়ে যাওয়ার ভয় ছিল, তাই তিনি এমন জায়গায় টাকা সঞ্চয় করতে চাইছিলেন যেখান থেকে সহজে তোলা যাবে না।

গত ১১ বছর ধরে একটি মেয়ের সঙ্গে ডেটিং করছিলেন ফারহান। যাকে বিয়ে করতে ৩ বছরে তিনি প্রচুর অর্থ জমা করেছিলেন। সেই টাকা দিয়ে ওই যুবক রীতিমতো ধুমধাম করে তার প্রেমিকার সঙ্গে বিয়ে করেছেন। টাকা জমানোর ব্যাপারটি ঘুনাক্ষরেও টের পেতে দেননি নিজের প্রেমিকাকে। যদিও পরবর্তীকালে এই খবরে এককথায় হতবাক হয়ে গিয়েছেন যুবকের প্রেমিকা। সেই ভিডিওটি তিনি আবার শেয়ার করেছেন টিকটকে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories