Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দিনেদুপুরে দুঃসাহসিক ডাকাতি, দুষ্কৃতীদের হানা হাওড়ায়

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

দিনের আলোয় প্রকাশ্যে লুঠ চলছে শহরতলীতে। দুষ্কৃতীদের দৌরাত্ম্য ক্রমেই বাড়ছে। ফের এক দুঃসাহসিক ডাকাতির ঘটনা ঘটলো হাওড়ায় বেলিলিয়াস রোড শিল্পাঞ্চলে। মঙ্গলবার একটি লোহার সামগ্রীর দোকানে ঢুকে প্রায় কোটি টাকা লুঠ করার অভিযোগ উঠল। সশস্ত্র দুষ্কৃতীরা এসে হানা দেয় দোকানে। তারপর আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে কাবু করে দোকানের মালিককে। মালিকের সামনে থেকেই দোকানের মধ্যে রাখা টাকা-পয়সার সব নিয়ে চম্পট দেয় দুষ্কৃতীরা। এই ঘটনায় তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার প্রায় বারোটা নাগাদ এই সশস্ত্র দুস্কৃতির একটি দল হানা দেয় তাদের দোকানে। তিনজন ছিল বলে জানা যায়। এমনকি তাঁরা ক্যাব ভাড়া করে আগ্নেয়াস্ত্র এবং বোমা নিয়ে এসেছিল বলেও খবর। তারপর বন্দুক দেখিয়ে দোকানের মালিককে বেঁধে রাখে অভিযুক্তরা। কারখানার ভিতরে ক্যাশ বাক্সে রাখা সব টাকা হাতিয়ে নেয় তাঁরা। আনুমানিক দোকানে দিন প্রায় ১ কোটি টাকার কাছাকাছি রাখা ছিল। তারপর তাদের কাজ মিটিয়ে সেখান থেকে উধাও হয়ে যায়। যদিও সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজে ধরা পরেছে দুষ্কৃতীরা।

জানাজানি হতেই ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ায় এলাকায়। সেখানে এসে উপস্থিত হন ব্যাটার থানার পুলিশ সহ হাওড়া সিটি পুলিশের গোয়েন্দা। ওই সিসিটিভি ফুটেজ এবং মালিকের দেওয়া তথ্যের উপর ভিত্তি করে তদন্ত নেমেছেন তাঁরা। দোকানের মালিক দিলীপ বর্মা জানান, এদিন দোকানে তাঁর কোন কর্মচারী ছিল না। তিনি একাই ছিলেন। সেই সময় এই দুষ্কৃতীর দল এসে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে তাকে বেঁধে রাখে এবং লুটপাট চালায়। দোকানে ওই টাকা রাখা ছিল একজনকে পেমেন্ট করার জন্য। যদিও দুষ্কৃতীদের মধ্যে কাউকেই তিনি চিনতে পারেননি বলে জানিয়েছেন।

এই ঘটনার সঙ্গে দোকানে কোনো কর্মচারী বা ওই দোকানের মালিকের কোনো পরিচিত ব্যক্তির যোগ রয়েছে কিনা সে বিষয়ে খতিয়ে দেখছে পুলিশ। কারণ পেমেন্ট এর টাকা দোকানে রাখা আছে এ-বিষয়ে কী ভাবে খবর পেল দুষ্কৃতী দল তা নিয়ে সন্দেহ জেগেছে পুলিশ এবং গোয়েন্দাদের মনে। ওই ফুটেজের সাহায্য নিয়ে দুষ্কৃতীদের শনাক্ত করার কাজ চলছে বলে জানা গিয়েছে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories