Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মমতার ইউপি সফরের মধ্যেই বিজেপির ইস্তেহার প্রকাশ: ঘরে ঘরে চাকরি সহ নানা প্রতিশ্রুতি

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

এই মুহূর্তে উত্তরপ্রদেশে অখিলেশ যাদবের সঙ্গে সমাজবাদী পার্টির সমর্থনে নির্বাচনী প্রচার সারছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিজেপিকে বিদ্ধ করে সেখানে তিনি তীব্র আক্রমণ শানাচ্ছেন। আর এর মধ্যেই অমিত শাহ ও যোগী আদিত্যনাথের হাত ধরে প্রকাশ পেল উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের জন্য বিজেপির ইস্তেহার। যেখানে রয়েছে একগুচ্ছ প্রতিশ্রুতি। নির্বাচনী সভা থেকে বাংলার মুখ্যমন্ত্রী আজ যোগী আদিত্যনাথকে একের পর এক তীব্র বাক্যবাণে বিদ্ধ করেছেন। গঙ্গায় কোভিডে মৃতদের দেহ ভাসানো থেকে শুরু করে উন্নাও গণধর্ষণ, সমস্ত বিষয় উল্লেখ করে আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

মমতা বলেছেন, আগে যোগীজি উত্তরপ্রদেশের মানুষের কাছে ক্ষমা চান, তারপর ভোট চাইবেন। বাংলার মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে অবশ্য খুব একটা ভাবতে রাজি নয় উত্তরপ্রদেশের গেরুয়া শিবির। মমতার সফরের মধ্যেই বিজেপি আজ উত্তরপ্রদেশ বিধানসভা নির্বাচনের জন্য তার ইস্তেহার প্রকাশ করেছে। ইস্তেহারে ভোটারদের জন্য ‘ফ্রিবি’র একটি দীর্ঘ তালিকা রয়েছে। এই তালিকায় রয়েছে, কৃষকদের জন্য বিনামূল্যে বিদ্যুৎ (সেচের জন্য), প্রতিটি পরিবারে অন্তত একজনের কর্মসংস্থান, বিনামূল্যে এলপিজি সিলিন্ডার সহ আরও অনেক কিছু। ইস্তেহারে বলা হয়েছে, উজ্জ্বলা যোজনার আওতায় বিনামূল্যের দু’টি এলপিজি সিলিন্ডার হোলি এবং দীপাবলির সময় প্রতিটি পরিবারকে দেওয়া হবে।

সেই সঙ্গে ইস্তেহারে উল্লেখ রয়েছে, ৬০ বছরের বেশি বয়সি মহিলাদের জন্য বিনামূল্যে গণপরিবহণ এবং কলেজের ছাত্রীদের জন্য বিনামূল্যে দুই চাকার গাড়ির প্রতিশ্রুতি। অমিত শাহ এদিন ইস্তেহার প্রকাশ করতে গিয়ে বলেছেন, ‘লাভ জিহাদ’-এর জন্য দোষী সাব্যস্ত হলে ১০ বছরের জেল এবং ১ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হবে। উত্তরপ্রদেশ সরকার গত বছরের নভেম্বরে একটি ‘অ্যান্টি-লাভ জিহাদ’ অর্ডিন্যান্স পাস করেছিল। উত্তরপ্রদেশের শাসক দলের অন্যান্য প্রতিশ্রুতির মধ্যে রয়েছে, রাজ্যের মাথাপিছু আয় দ্বিগুণ করা ও ১০ লক্ষ কোটি টাকা পর্যন্ত বিনিয়োগ আনা। পাশাপাশি বিধবাদের পেনশন বৃদ্ধি করে প্রতি মাসে ১৫০০ টাকা করার প্রতিশ্রুতিও দেওয়া হয়েছে।

কেন্দ্রের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহ বলেন, ‘কয়েকদিন আগে অখিলেশ যাদব আমাদের ২০১৭ সালের বিধানসভা ভোটের নির্বাচনী ইশতেহার দেখিয়ে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, আমরা কী কী করেছি? আমি গর্বের সঙ্গে আজ বলতে পারি যে, আমরা আমাদের ২১২টি প্রতিশ্রুতির ৯২ শতাংশ পূরণ করেছি।’ ইস্তেহার প্রকাশের সময় সপা সুপ্রিমো অখিলেশ যাদব এবং তাঁর দলকে আক্রমন করে অমিত শাহ বলেন, ‘ইউপিকে পাঁচ বছর আগেও একটি দাঙ্গা-প্রবণ রাজ্য হিসাবে বিবেচনা করা হত। মা-বোনদের নিরাপত্তা ছিল না। বিশেষ করে পশ্চিম উত্তর প্রদেশে এবং আওধ অঞ্চলের মহিলারা খুব অসহায় ছিলেন। কিন্তু আজ উত্তরপ্রদেশে শান্তি বিরাজ করছে।’

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories