Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী চান না দরিদ্রদের কেউ সাহায্য করুক’: মোদীকে তীব্র আক্রমণ প্রিয়াঙ্কার

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

গতকাল সংসদে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী তীব্র ভাষায় আক্রমণ করেছিলেন ‘গ্র্যান্ড ওল্ড পার্টি’-কে। তিনি বলেছিলেন কংগ্রেস হল, ‘টুকড়ে টুকড়ে গ্যাংয়ের নেতা’। এই দলটি ক্ষমতায় থাকার সময় দেশের জন্য কিছুই করেনি। ১৯৭১ সালে ‘গরিবি হঠাও’ স্লোগান দিয়ে ক্ষণতায় এলেও, তাদের আমলে দেশের দারিদ্র বৃদ্ধি পেয়েছে। এখানেই না থেমে প্রধানমন্ত্রী বলেন, করোনার সময়ও কংগ্রেস মানুষের পাশে থাকেনি। পরিযায়ীদের দুরাবস্থার ক্ষেত্রেও দায়ী কংগ্রেস ও আম আদমী পার্টি। গতকাল প্রায় দেড় ঘণ্টার ভাষণে টি-২০ মেজাজেই যেন ইনিংস খেলেছেন প্রধানমন্ত্রী। সংসদে বিরোধী দল বিশেষত কংগ্রেসকে লক্ষ্য করে একের পর এক তির ছুঁড়েছেন মোদী।

প্রসঙ্গত করোনার প্রথম ঢেউয়ের সময় মুম্বইয়ে অবস্থানরত পরিযায়ী শ্রমিকদের বিনামূল্যে টিকিট ধরিয়ে নিজ নিজ বাড়ি ফিরে যেতে বলেছিল কংগ্রেস। দিল্লিতে আপও একই ধরণের পদক্ষেপ নিয়েছিল। প্রধানমন্ত্রী এ প্রসেঙ্গ বলেন, শুধু টিকিট আর এক গ্লাস দুধ ধরিয়েই এই দুই দল মনে করেছিল, অনেক কাজ করে ফেলেছি। কিন্তু এর ফলে চরম সংকটে পড়তে হয় পরিযায়ী শ্রমিকদের। মোদী বলেন, ‘এই দুই দলের এরকম মারাত্মক সিদ্ধান্ত পাঞ্জাব, উত্তরপ্রদেশ এবং উত্তরাখণ্ডে কোভিডের দ্রুত বিস্তারে সহায়তা করেছে।’ মোদীর এই ভাষণ নিয়ে কংগ্রেস নেত্রী প্রিয়াঙ্কা গান্ধী (এল) উল্টে প্রশ্ন করেন, ‘প্রধানমন্ত্রী কি গরিবদের অসহায় অবস্থায় রেখে যেতে চান?’

সেই সঙ্গে কংগ্রেসের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াঙ্কা গান্ধী কোভিডের দ্বিতীয় তরঙ্গের সময় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর নির্বাচনী সমাবেশ নিয়েও কটাক্ষ করেছেন। রাজনৈতিক মহল মনে করছে, প্রিয়াঙ্কার মন্তব্যগুলি প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগের প্রতিক্রিয়া হিসাবে এসেছে। পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে মোদীর ভাষণের পর প্রতিক্রিয়া জানাতে গিয়ে প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বলেন, ‘পরিযায়ী শ্রমিকদের তিনি (মোদী) ত্যাগ করেছিলেন। তাঁদের বাড়ি ফেরার উপায় ছিল না। তাঁরা পায়ে হেঁটে ফিরছিলেন। কাউকে সাহায্য না করা হোক, এটাই কি তিনি চেয়েছিলেন?’ প্রিয়াঙ্কা গান্ধী মোদীর উদ্দেশ্যে প্রশ্ন তোলেন, ‘ভোটের আগে আপনি যে বড় সমাবেশগুলি পরিচালনা করেছিলেন, তার সম্পর্কে কিছু বলুন।’

প্রসঙ্গত, ২০২১ সালের এপ্রিলে, পশ্চিমবঙ্গের আসানসোলে বিধানসভা নির্বাচনের সমাবেশে প্রধানমন্ত্রী বলেছিলেন, ‘আমি একটি বিশাল জনসমাগম দেখে উচ্ছ্বসিত। আমি যতদূর দেখছি, শুধু লোক আর লোক।’ মোদীর এই নির্বাচনী প্রচারের সময় দেশে প্রতিদিন ২ লক্ষেরও বেশি মানুষ কোভিড সংক্রমিত হচ্ছিলেন। দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালও তাঁর সরকার সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রীর অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। সোমবার সংসদে প্রধানমন্ত্রীর ভাষণের একটি ক্লিপ শেয়ার করে কেজরিওয়াল বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর এই বক্তব্য সম্পূর্ণ মিথ্যা। দেশ আশা করে, করোনার সময় যাঁরা যন্ত্রণা ভোগ করেছেন, তাঁদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী সংবেদনশীল হবেন। অনেকেই প্রিয়জনকে হারিয়েছেন। জনগণের কষ্ট নিয়ে রাজনীতি করা প্রধানমন্ত্রীর শোভা পায় না।’

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়া

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories