Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নিভবে না ‘অমর জওয়ান জ্যোতি’-র আগুন, ওয়ার মেমোরিয়ালের সঙ্গে মিশবে অগ্নিশিখা

1 min read

।প্রথম ভারত।।

কেন্দ্র ৫০ বছর ধরে জ্বলা অমর জওয়ান জ্যোতি নিভিয়ে তা জাতীয় যুদ্ধ স্মৃতিসৌধে শিখার সাথে একীভূত করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। আজ বিকেল সাড়ে তিনটে নাগাদ সার্ভিসিং চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফের অনুপস্থিতিতে চিফ অফ ইন্টিগ্রেটেড ডিফেন্স স্টাফ এয়ার মার্শাল বালাবদ্র রাধা কৃষ্ণ জাতীয় ওয়ার মেমোরিয়ালে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করবেন। তবে কেন্দ্রের দীর্ঘ ৫০ বছর পর দিল্লির অমর জওয়ান জ্যোতি নিভিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়ে সরব হয়েছে কংগ্রেস। দিল্লির ইন্ডিয়া গেটে চিরন্তন শিখা, যা অমর জওয়ান জ্যোতি নামে পরিচিত তা নিভিয়ে দেওয়া হচ্ছে।

উল্লেখ্য, তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী ১৯৭২ সালের ২৬ জানুয়ারি অমর জওয়ান জ্যোতির উদ্বোধন করেছিলেন। এই অমর জওয়ান জ্যোতি এবার প্রজাতন্ত্র দিবসের আগে দিল্লির ইন্ডিয়া গেটে সংলগ্ন জাতীয় যুদ্ধ স্মৃতিসৌধে শিখার সাথে মিলিত হবে। প্রজাতন্ত্র দিবসের কয়েকদিন আগে আজ শুক্রবার একটি কর্মসূচিতে এই শিখাটি জাতীয় ওয়ার মেমোরিয়ালের শিখার সঙ্গে সাথে একীভূত করা হবে। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে দু’টি অগ্নিশিখা রক্ষণাবেক্ষণ ক্রমশ কঠিন হয়ে পড়ছে বলে এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। সেনা সূত্র জানিয়েছে যে, জাতীয় যুদ্ধ স্মৃতিসৌধে ইন্ডিয়া গেটে খোদাই করা শহীদদের নামও রয়েছে।

উল্লেখ্য, ন্যাশনাল ওয়ার মেমোরিয়ালে সেই সমস্ত ভারতীয় প্রতিরক্ষা কর্মীদের নামও রয়েছে যাঁরা বিভিন্ন অপারেশনে প্রাণ হারিয়েছেন। পাকিস্তানের সঙ্গে ১৯৪৭-৪৮ সালের যুদ্ধ থেকে শুরু করে গালওয়ান উপত্যকায় চিনা সৈন্যদের সঙ্গে সংঘর্ষ পর্যন্ত সকল শহিদ জওয়ানদের নাম রয়েছে এখানে। সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানে প্রাণ হারানো সেনাদের নামও স্মৃতিসৌধের গায়ে লেখা আছে। ২০১৯ সালে ফেব্রুয়ারিতে এই জাতীয় ওয়ার মেমোরিয়ালের উদ্বোধন করেছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। নতুন স্মৃতিসৌধটি ইন্ডিয়া গেট কমপ্লেক্সে ৪০ একর জুড়ে বিস্তৃত রয়েছে। সমস্ত নির্ধারিত দিনে শহিদ জওয়ানদের শ্রদ্ধা জানতে পুষ্পস্তবক অর্পণের অনুষ্ঠান এখানে করা হয়।

ব্রিটিশ শাসনকালে অল ইন্ডিয়া ওয়ার মেমোরিয়াল আর্চ হিসাবে ৪২ মিটার উঁচু ইন্ডিয়া গেট তৈরি করা হয়েছিল। ১৯১৪ থেকে ১৯২১ সালের মধ্যে প্রথম বিশ্বযুদ্ধে শহিদ ব্রিটিশ ভারতীয় সেনাবাহিনীর সৈন্যদের স্মরণে ব্রিটিশ সরকার দ্বারা ইন্ডিয়া গেট তৈরি করা হয়েছিল। যেখানে প্রায় ২৬ হাজার ভারতীয় শহিদ জওয়ানের নাম খোদাই করা আছে। এই সব সৈন্যরা ফ্রান্স, ফ্ল্যান্ডার্স, মেসোপটেমিয়া, পারস্য, পূর্ব আফ্রিকা, গ্যালিপোলি এবং তৃতীয় আফগান যুদ্ধে অংশ নিয়ে শহিদ হয়েছিলেন।

পাশাপাশি ২০১৯ সালের ২৫ ফেব্রুয়ারি উন্মোচিত হয় জাতীয় যুদ্ধ স্মারক। ভারতীয় সামরিক বাহিনীর সৈন্যদের সম্মান ও প্রতিনিধিত্ব করে যাঁরা স্বাধীন ভারতের জন্য সংঘাতে লড়াই করেছিলেন তাঁদের উদ্দেশে নিবেদিত হয় এই জাতীয় যুদ্ধ স্মারক। পাকিস্তান ও চীনের সঙ্গে সশস্ত্র সংঘর্ষের পাশাপাশি গোয়ায় ১৯৬১ সালের যুদ্ধ, শ্রীলঙ্কায় অপারেশন পবন এবং কেন্দ্র শাসিত অঞ্চল জম্মু ও কাশ্মীরে ‍‘রক্ষক’ সহ অন্যান্য অপারেশনের সময় নিহত সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যদের নাম স্বর্ণাক্ষরে এখানে খোদাই করা আছে। প্রিয়জনদের পাশাপাশি জনসাধারণ এখানে এসে শহিদ যোদ্ধাকে শ্রদ্ধা জানিয়ে যান।

পাকিস্তানের সঙ্গে ১৯৭১ সালের যুদ্ধে শহিদ ভারতীয় জওয়ানদের স্মরণে অমর জওয়ান জ্যোতি জ্বালানো হয়েছিল ১৯৭২ সালে। তবে এবার থেকে ন্যাশানাল ওয়ার মেমোরিয়ালে জ্বলবে অমর জওয়ান জ্যোতির শিখা। সাউথ ব্লকের আধিকারিকদের মতে, ইন্ডিয়া গেটে চিফ অফ ইন্টিগ্রেটেড ডিফেন্স স্টাফ এয়ার মার্শাল বালাবদ্র রাধা কৃষ্ণর উপস্থিতিতে একটি অনুষ্ঠানে অমর জওয়ান জ্যোতি শিখাটি একটি মশালে গার্ড কন্টিনজেন্টের সঙ্গে জাতীয় যুদ্ধ স্মৃতিসৌধে নিয়ে যাওয়া হবে এবং দু’টি শিখা একত্রিত হবে। সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, দু’টি শিখাকে একত্রিত করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে কারণ একে অপরের কাছাকাছি দু’টি যুদ্ধ স্মারক থাকতে পারে না।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories