Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ওমিক্রন সাইক্লোনের মত, বাড়াচ্ছে অ্যান্টিবডি ! বুস্টার ডোজ নিয়ে কী বললেন ড. কুনাল সরকার ?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

করোনায় মানুষ যতটা সংক্রমিত হচ্ছেন , তার থেকে বেশি আতঙ্কিত হয়ে পড়ছেন। রোগের থেকে আতঙ্ক ঝড়ের গতিতে মানুষের মধ্যে পৌঁছে যাচ্ছে। অনেকেই দ্বিধাগ্রস্ত হয়ে পড়ছেন, ওমিক্রন থেকে বাঁচতে ঠিক কী করবেন এই ভেবে। জীবিকার তাগিদে প্রত্যেককেই বাইরে কাজে যেতে হয় । প্রত্যেক মুহূর্তে ফেস করতে হয় পাবলিক যানবাহন এবং ভিড় জায়গা। তবে এই ওমিক্রন নিয়ে কোন আতঙ্কের কারণে নেই, তা লাইভে এসে সরাসরি জানালেন ডক্টর কুনাল সরকার। তিনি ওমিক্রনকে তুলনা করেছেন অনেকটা সাইক্লোনের মত। ঝড় যেমন দ্রুত আসে এবং দ্রুত চলে যায় , যেখানে কোন ছাতাও কাজ করে না ঠিক তেমনটাই ওমিক্রন। আর এই ওমিক্রন নাকি মানুষের মধ্যে বাড়িয়ে দিচ্ছে এক্সট্রা ইমিউনিটি পাওয়ার।

•ওমিক্রন কাবু করবে ডেল্টাকে

ডাক্তারের মতে, সর্বপ্রথম ওমিক্রন রূপটা ধরা পড়েছিল সাউথ আফ্রিকার একটি প্রাইভেট ল্যাব থেকে। যেমন সর্বপ্রথম করোনা উহান ল্যাব থেকে চলে আসে এবং সাধারণ মানুষ এই ল্যাবের নাম শুনলেই রীতিমতো কটু কথা বলেন। কিন্তু বিশেষজ্ঞের মতে যদি সত্যিই ওমিক্রন সাউথ আফ্রিকার এই প্রাইভেট ল্যাব থেকে প্রথম বার হয় , তাহলে এই ল্যাবটিকে সাধুবাদ জানাতেই হয়। কারণ ওমিক্রন হওয়ার পর মানুষের শরীরে যে অ্যান্টিবডি তৈরি হচ্ছে তা ডেল্টাকে কাবু করতে পারবে।

ওমিক্রন হলো একটি পঞ্চমতম করোনা ভাইরাস , যা ইতিমধ্যেই হিউম্যান ইকোসিস্টেমের মধ্যে চলে এসেছে। স্বাভাবিকভাবে এটি কখনোই সম্পূর্ণভাবে ভ্যানিশ হয়ে যাবে না। মাঝেমধ্যেই সর্দি-কাশির মতো সমস্যা নিয়ে একটু জ্বালাতন করবে মাত্র। তবে সেক্ষেত্রে প্রত্যেক মানুষকে থাকতে হবে অত্যন্ত সতর্ক এবং সাবধান।

ওমিক্রনের ভ্যাকসিন !

এছাড়া তিনি আরো জানান, ওমিক্রনের জন্য কোন ভ্যাকসিনের প্রয়োজন নেই । তবে কিছু মানুষ নিজেদের সুযোগ-সুবিধার জন্য বাণিজ্যিকভাবে চাঞ্চল্য ছড়াচ্ছেন। তারা বারবার জানাচ্ছেন ওমিক্রনের ভ্যাকসিন আসছে। স্বাভাবিকভাবেই প্রচুর মানুষকে ইতিমধ্যে করোনার প্রচুর ঝড় ঝাপটায় প্রায় দু’বছর ধরে ভুগছেন। ডক্টর কুনাল সরকারের মতে , আর নয় এবার থামা দরকার । আসলে ওমিক্রনের জন্য কোন ভ্যাকসিনের প্রয়োজন নেই। তাঁর মতে আসলে মানুষ পলিটিকাল হিস্ট্রি মনে রাখলেও পাবলিক হেলথ হিস্ট্রি মনে রাখেন না। আসলে প্রত্যেক ক্ষেত্রেই নেওয়া উচিত কিছু এফেক্টিভ স্টেপস। সেই স্টেপ গুলি নেওয়া উচিত ছিল পার্ক স্টিট, ৩১ শে ডিসেম্বর কিংবা যে কোন বড় জমায়েতের ক্ষেত্রে।

করোনা : ছদ্মবেশী

তাঁর মতে আর মাত্র দু সপ্তাহ মাথা গুঁজে পড়ে থাকলে ঠিক ওমিক্রন কোন দিকে এগোচ্ছে তা স্পষ্ট হবে। আসলে করোনা ভাইরাস অনেকটা ছদ্মবেশীর মত। চোর যেমন ছদ্মবেশ ধরে পুলিশকে ধোঁকা দেয়, তেমনি করোনা ভাইরাস বারংবার নতুন রূপ বদলে ভ্যাকসিনকে ধোঁকা দিচ্ছে। তবে বুস্টার ডোজ নিয়ে ঠিক কতটা লাভ হবে তার অঙ্কের হিসাব আপাতত নেই। তবে এতে হাই ইউনিটি পাওয়ার চলে আসবে, সেক্ষেত্রে লাভ কতটা বলা যাচ্ছে না তবে ক্ষতি নেই। অথচ বুস্টার ডোজ ছাড়া এই মুহুর্তে হাতে কোন অপশন নেই।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories