Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘খুব শীঘ্রই কল্যাণকে হয়তো দল থেকে বের করে দেবে!’ বোমা ফাটালেন অর্জুন সিং

1 min read

|| প্রথম কলকাতা ||

পুরনিগমের নির্বাচনে প্রার্থীর হয়ে প্রচারে বেরিয়েছেন বিজেপি নেতা অর্জুন সিং। তার মাঝেই তৃণমূলের ঘরের ভেতরের ঝামেলা থেকে করোনা কালের ভোট সব নিয়েই মন্তব্য করেছেন। সামনের ২২ তারিখে রাজ্যের চার পুরনিগমের নির্বাচন। বিরোধী দলগুলি বারবার এই করোনা কালে ভোট পিছিয়ে দেওয়ার কথা বলেছে। আদালতে জনস্বার্থে মামলা দায়ের হয়েছে দিন কয়েক আগেই। আজকের শুনানিতে আদালতের তরফে কড়া বার্তা দেওয়া হয়েছে কমিশনকে।

আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে রাজ্য নির্বাচন কমিশন, ভেবে দেখতে বলা হয়েছে এই পরিস্থিতিতে ৪-৬ সপ্তাহ ভোট পিছিয়ে দেওয়া যায় কিনা। এই ঘটনার প্রেক্ষিতে অর্জুন সিং বলেছেন, “নির্বাচন কমিশনের অধিকার আছে এই নির্বাচন পিছিয়ে দেওয়ার। কিন্তু এখানের নির্বাচন কমিশন তো পুতুল, নবান্ন থেকে নির্দেশ না এলে হবে না কিছুই। এখানে মানুষকে প্রচার করতে দেবে না, হাঁটতে দেবে না। এই গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা আগে কখনো দেখিনি, আগামী দিনেও দেখবো না।”

তবে নির্বাচন সামনে রেখে একে একে ইশতেহার প্রকাশ করছে তৃণমূল কংগ্রেস। সেখানে বলা হয়েছে জলের ব্যবস্থা করা হবে, নিকাশি ব্যবস্থা করা হবে। এই প্রসঙ্গে তৃণমূল ঘুরে বিজেপিতে আসা অর্জুন সিং এর বক্তব্য, “এই জলের ৯০ শতাংশ টাকা কেন্দ্র দেয়, বাংলা এতো টাকা খরচ হয়না, দেওয়া দূরে থাক এরা খরচ করতে পারেনা। ২০১২ সালে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিধানসভায় দাঁড়িয়ে বলেছিলেন নাইন্টি পার্সেন্ট কাজ করে দিয়েছি, এই নাইন্টি পার্সেন্ট কতদিন রাখবে? “সঙ্গেই বলেন, এসব ইশতেহার আইওয়াস, ঈদের ভেতরে টাকা খাওয়া আছে, লুঠ আছে, মানুষ না বুঝলে কী করা যাবে।”

ভোট, কমিশন এসবের পাশাপাশি তিনি কথা বলেছেন শাসক দলের ডায়মন্ড ক্ল্যাশ নিয়েও। এই মুহূর্তে বাংলার রাজনীতিতে সবথেকে বড় চর্চার বিষয় অভিষেকের ডায়মন্ড হারবার মডেল, এবং তাঁর ব্যক্তিগত মত। দলের ভেতরেই এই নিয়ে জোর চর্চা চলছে। একদিকে কল্যাণ ব্যানার্জি মুখ খুলেছেন অভিষেকের বিরুদ্ধে, অন্যদিকে একে একে কুণাল থেকে অপরূপা পোদ্দার অভিষেক বন্দোপাধ্যায় এর হয়ে কটাক্ষ করেছেন কল্যাণকে।

তবে দলের ভবিষ্যত নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য করেছেন অর্জুন সিং, বিজেপি নেতার মত, “কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায় অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ওদের পার্সোনাল ব্যাপার আছে।কিন্তু আমি যতটুকু জানি আমিতো তৃনমূল কংগ্রেস একটা সময় করেছি।
কল্যাণ বন্দ্যোপাধ্যায়রা সিনিয়ার লিডার। এখন তারা গুরুত্ব পাচ্ছে না। এখন যারা তরুন তুর্কি হয়েছে কয়লা গরু পাচার এসব নিয়ে থাকে, তাই তাঁদের কেউ গুরুত্ব দিচ্ছে না। এই কারণে হতাশায় উনি আছেন। খুব শীঘ্রই হয়ত তাকে বের করে দেবে দল থেকে।” অপরূপা পোদ্দার কে নিয়ে যদিও মন্তব্য করতে নারাজ বিজেপি নেতার, তাঁর মতে যে অন ক্যামেরায় মাত্র ২ লাখ টাকা নেয় তাঁর সম্পর্কে কথা বলতে চাইনা।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories