Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

এবার বাঘের পায়ের ছাপ পাথরপ্রতিমায়, ফের গৃহবন্দী স্থানীয়রা

।। প্রথম কলকাতা ।।

সুন্দরবনের বিভিন্ন এলাকায় বাঘের পায়ের ছাপ দেখতে পাওয়ায় নতুনত্ব খুঁজে পাচ্ছেন না এলাকাবাসীরা। এ যেন রোজ দিনকার নিয়ম হয়ে গিয়েছে। সকালে উঠেই কোথাও না কোথাও দেখা মিলছে দক্ষিণরায়ের পায়ের ছাপ। একটি করে বাঘ বন্দি করা হচ্ছে। কিছুদিনের স্বস্তির নিঃশ্বাস! ফের সেই একই গল্প। আবারও বাঘের পায়ের ছাপের দেখা মিলল দক্ষিণ ২৪ পরগনার পাথরপ্রতিমা ব্লকের। তাই বাধ্য হয়েই বাঘের আতঙ্কে মকর সংক্রান্তিতেও ঘরবন্ধি স্থানীয়রা।

জানা যায়, এখানে এদিন নদীর চড়ে প্রথম বাঘের পায়ের ছাপ দেখতে পান সকালে মৎস্যজীবীরাই। তাজা পায়ের ছাপের খবর ছড়িয়ে যায় এলাকায়। আর তারপরই পায়ের ছাপ দেখতে ফের ভিড় জমান স্থানীয়রা। মনে করা হচ্ছে বাঘটি আশেপাশে কোথাও গিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে। এখন করনীয় কী? আবার বাঘ বন্দী খেলা শুরু করবে বনদপ্তর কর্মীরা। প্রসঙ্গত, কুলতলি, গোসাবা সুধন্যখালি, হলদিবাড়ি এবার পাথরপ্রতিমা। বাদ যাচ্ছেনা সুন্দরবনের কোনো ব্লকই। দক্ষিণরায়ের দর্শন পাচ্ছেন সুন্দরবনের সব এলাকাবাসীরই।

একটি পূর্ণবয়স্ক বাঘকে কিছুদিন আগেই ছেড়ে দিয়ে আসা হয়েছিল জঙ্গলে। তারপর আবার গ্রামবাসীর পোষ্য মেরে বনদপ্তর কর্মীদের হাতে পড়লো আরও এক বাঘ। এছাড়াও কখনও কোনো বাঘিনী বিশ্রামরত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছে গ্রামে, আবার বাঘের থাবায় প্রাণ গিয়েছে মৎস্যজীবীর। এরপর আবার বাঘের পায়ের তাজা ছাপ দেখে যথেষ্ট আতঙ্কে গ্রামবাসীরা। দক্ষিণরায়ের পরবর্তী পদক্ষেপ এবার কী হবে? রাতের দিকে কী সে লোকালয় হানা দেবে? তাহলে কি গৃহবন্দি’ থেকেও শেষে বাঘের হাতেই প্রাণ দিতে হবে? এমন বহু প্রশ্নে আপাতত জর্জরিত পাথরপ্রতিমা বাসিন্দারা। যদিও ইতিমধ্যে বনদপ্তর কর্মীদের খবর দেওয়া হয়েছে। তাঁরা ফের বাঘ ধরার প্রস্তুতি নিতে শুরু করেছেন বলে জানা যায়।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories