Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

IND vs SA: ইতিহাস গড়া হল না, কেপটাউনে স্বপ্নভঙ্গ বিরাট বাহিনীর

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ভারত: ২২৩ ও ১৯৮
দক্ষিণ আফ্রিকা: ২১০ ও ২১২/৩

৭ উইকেটে জয়ী দক্ষিণ আফ্রিকা

সিরিজ জয়ের জন্যে চাই ১১২ রান, হাতে রয়েছে ৮ উইকেট। কেপটাউনে চতুর্থ দিনে কিগার পিটারসেনদের সামনে সমীকরণ খুব একটা কঠিন ছিল না। একটা ম্যাজিক স্পেলেই হয়তো ছবিটা বদলে যেতে পারত। সেই আশা পূরণ হয়নি। উলটে অর্ধশতরান করে ফেলা পিটারসেনের সহজ ক্যাচ ফেলে কাটা ঘায়ে নুনের ছিটে দিলেন পূজারা। এরপর যা হওয়ার তাই হয়েছে, ফেভারিট হিসাবে দক্ষিণ আফ্রিকার মাটিতে পা রেখেও টেস্ট সিরিজ জিততে পারল না বিরাট বাহিনী। নিজের প্রথম বিদেশ অ্যাসাইনমেন্টেই ১-২ সিরিজ হারের মুখ দেখলেন কোচ দ্রাবিড়।

নর্খিয়াবিহীন দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ জয়ের লক্ষ্য নিয়েই জো’বার্গের বিমানে উঠেছিলেন বিরাটরা। যাবতীয় বিতর্ক পিছনে ফেলে প্রথম এশীয় দেশ হিসাবে সেঞ্চুরিয়ন টেস্ট জয় পায় ভারত। ০-১ পিছিয়ে পড়া এলগারদের প্রত্যাবর্তনের সম্ভাবনা নিয়ে কেউই খুব বেশি আলোচনা করেননি। বরং, অষ্ট্রেলিয়া, ইংল্যান্ডের পর আরও একটি ঐতিহাসিক টেস্ট সিরিজ জয়ের স্বপ্নেই বুঁদ হয়ে গিয়েছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট পন্ডিত থেকে অনুরাগীরা। আর এই সময়টাতে দাঁতে দাঁত চেপে অনভিজ্ঞ দল নিয়েই বিশ্বের অন্যতম শ্রেষ্ঠ সফরকারী দলের বিরুদ্ধে প্রত্যাবর্তনের ঘুঁটি সাজিয়েছেন এলগাররা।

প্রথম টেস্ট জিতে এগিয়ে যাওয়ার পর কিভাবে ছন্দ হারাল ভারত? বুমরাহ’র নেতৃত্বাধীন পেস আক্রমণ নিজেদের কাজ করলেও ব্যাটিং ব্যর্থতাই কাল হয়েছে ভারতের। ধারাবাহিকভাবে ব্যর্থ হয়েছে রাহানে, পূজারাদের মিডল অর্ডার। লড়াকু ইনিংস খেললেও বিরাট কোহলি’র কাছ থেকে আরও বড় রানের প্রত্যাশা রেখেছিলেন ভারতীয় ক্রিকেট প্রেমীরা। শেষ দুই টেস্টে রান পাননি ওপেনাররাও। তারপর রাহানে, পূজারাদের অফ ফর্ম। টসে জেতার সুযোগই নিতে পারেনি ভারত।

কেপটাউন টেস্টের কথাই ধরুন, সিরিজের ভাগ্য নির্ধারক টেস্টের দুই ইনিংসেই ব্যর্থ রাহানে। দ্বিতীয় ইনিংসে পন্থ একা কুম্ভ হয়ে না লড়লে এই টেস্ট তৃতীয় দিনেই শেষ হয়ে যাওয়ার কথা। ভারতের বিশ্বত্রাস ব্যাটিং লাইন আপের বিরুদ্ধে নজর কাড়লেন মার্কো জানসেন। নিজের উচ্চতাকে কাজে লাগিয়ে পিচ থেকে সাহায্য আদায় করে নিতে ভালোই জানেন ২১ বছর বয়সী পেসার। তিন টেস্টে কুড়িটি উইকেট ঝুলিতে পুরেছেন কাগিসো রাবাডাও। বুমরাহ, শামিদের আগুনে বোলিং আক্রমণের সামনে নিজেকে প্রমাণ করলেন কিগান পিটারসেন। প্রথম টেস্টের পর আন্তর্জাতিক টেস্ট ক্রিকেট থেকে অবসর নেওয়া কুইন্টন ডি ককের অভাব অনুভব করতে দেননি এই ডানহাতি ব্যাটার। বিশ্বমানের পেস বোলিংয়ের সামনে পরিণত ব্যাটিং কাকে বলে হাতে কলমে দেখিয়েছেন পিটারসেন।

আজ, টেস্টের চতুর্থ দিনে মাত্র ১১২ রানের পুঁজি নিয়ে লড়াই করতে নেমেছিলেন বুমরাহরা। রাসি ভ্যান ডার দুসেন, কিগান পিটারসেনরা শুরুতে অস্বস্তিতে পড়লেও ধীরে ধীরে মানিয়ে নেন। অর্ধশতরানে পৌঁছানোর পর একটি সুযোগ দিয়েছিলেন পিটারসেন। বুমরাহ’র বল প্রোটীয় ব্যাটারের ব্যাট ছুঁয়ে স্লিপ কর্ডনের দিকে গেলেও সহজ ক্যাচ ফেলেছেন পূজারা। ওই সময় উইকেট পেলে হয়তো একটা চাপ তৈরি করতে পারতেন বুমরাহরা। পূজারার কাছ থেকে জীবনদান পেয়ে ৮২ রানের দুরন্ত ইনিংস খেলে গিয়েছেন পিটারসেন। চলতি সিরিজে দূরন্ত ফর্মে থাকা প্রোটীয় ব্যাটারকে সাজঘরের রাস্তা দেখান শার্দূল। ততোক্ষণে জয়ের কাছে পৌঁছে গিয়েছেন স্বাগতিকরা।

Categories