Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বারাসাতে অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে ছাই তৃণমূল কার্যালয়, কীভাবে লাগলো আগুন?

। । প্রথম কলকাতা । ।

এক ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে একটি তৃনমূল কার্যালয় পুড়ে ছাই হয়ে গেল। ঘটনাটি ঘটে বৃহস্পতিবার ভোররাতে। উত্তর ২৪ পরগনা জেলার বারাসাত ব্যারাকপুর রোডে বারাসাত পৌরসভার ৪ নম্বর ওয়ার্ডের তৃণমূলের কার্যালয়ে হঠাৎ করেই আগুন ধরে। এই আগুনে কার্যালয়টি তো পুড়ে যায় তাঁর সাথে কার্যালয়ের পাশে থাকা দোকানগুলোতেও আগুন লাগে। স্থানীয় বাসিন্দাদের তৎপরতায় খবর দেওয়া হয় দমকলে। দমকল বাহিনীকে বারবার ফোন করার পরেও তাঁরা তেমন কিছু দ্রুততা দেখাননি বলেই জানান স্থানীয়রা। তবে যতক্ষণে আগুন নেভানো সম্ভব হয় ততক্ষনে কার্যালয়সহ দোকান ঘর গুলি পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

স্থানীয় সূত্রে খবর, স্থানীয় এক ব্যক্তি হঠাৎ করেই আওয়াজ শুনে বাইরে এসে দেখেন আগুন জ্বলছে তৃণমূল কার্যালয়টিতে। তখন ঐ ব্যক্তি দমকল বাহিনীকে ফোন করেন। কিন্তু সেই সময় দমকল বাহিনী কোনো রকম জবাব দেয়নি। স্থানীয়রা সেইসময় থানায় খবর দেন। তাঁরা ক্ষোভ উগরে দেন ,যে সময় দমকল বাহিনী এসে পৌঁছানো উচিত ছিল , তাঁরা তার অনেকক্ষণ পরে এসে পৌঁছেছেন। ততক্ষনে বিধ্বংসী আগুন কার্যালয়সহ সংলগ্ন দোকানগুলিকেও পুড়িয়ে দিয়েছে। ওই কার্যালয়টির পাশে একটি সাইকেলের গ্যারেজ, কনফেকশনারী দোকান, একটি জেনারেটরের দোকান, একটি ইলেকট্রনিক জিনিসের দোকান এবং তারপরে একটি চায়ের দোকান ছিল। দমকল বাহিনী এসে পৌঁছতে দেরি করার পর পর সবকটি দোকানে আগুন ধরে যায় বলে জানান স্থানীয়রা।

ঘটনাটি বৃহস্পতিবার ভোর ৪.৪০ নাগাদ ঘটে বলে জানা যায়। এক কিলোমিটার দূরত্বের মধ্যে থাকা সত্ত্বেও বারাসাত ফায়ার ব্রিগেডের তৎপরতা না থাকায় এই বড় দুর্ঘটনাটি ঘটেছে বলে দাবি করেন স্থানীয়রা। তাঁরা বলেন দমকল যদি সঠিক সময় মত এখানে এসে পৌঁছত তাহলে আগুন কিছুতেই এতদূর ছড়াতে পারত না। কীভাবে আগুন লাগলো সেই প্রশ্নে তাঁরা বলেন, আসলে কীভাবে অগ্নিসংযোগ হয়েছে তা এখনো পর্যন্ত স্পষ্ট নয়। কেউ ইচ্ছে করে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে কিনা কার্যালয়ে সে প্রশ্নও তাঁরা বলেন এমন সম্ভাবনাও কিছু ছিল না। কোনো একটি কারণে কার্যালয়ের ভেতর থেকেই অগ্নিসংযোগ হয়েছে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories