Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

উধাও করোনাবিধির ! জমায়েত করে হৈ-হুল্লোড়ে চলছে টুসু পরব

1 min read

।। প্রথম কলকাতা।।

রাজ্যব্যাপী করোনার সংক্রমণ দৈনিক বাড়ছে। বাড়ছে আক্রান্ত, বাড়ছে বিতর্ক। কখনও করোনা বিধি লঙ্ঘন করে প্রশ্নের মুখে রাজনৈতিক দল আবার কখনও করোনা বিধিকে তোয়াক্কা না করে দিন যাপনের সাধারণ মানুষ। আর তাতে ক্ষতি ছাড়া লাভ তেমন কিছু হচ্ছে না। কারন মানুষ জমায়েত করছে মানেই সেখানে সংক্রমণ ছড়াবে। আর এই ভাবেই জমায়েত করে মহা হৈ-হুল্লোড়ে চলছে লালমাটির জেলা বাঁকুড়ার ঐতিহ্যবাহী টুসু পরব। একমাস ব্যাপী এই টুসু পুজোর পর শেষে ভেলা ভাসানোর এক ভয়ঙ্কর চিত্র উঠে আসলো সাংবাদিকদের ক্যামেরায়। রীতিমতো সাধারণ জনগণের ভিড় জমেছে সেখানে। শুধু ভিড় নয়, এমন একটি মুখ চোখে পড়ল না যেখানে মাস্ক রয়েছে।

এই ঘটনাটি বিষ্ণুপুর পৌরসভার ১২ নম্বর ওয়ার্ডের। বিষ্ণুপুরের বাউরি সমাজের প্রচলিত একটি পরব হলো টুসু ভেলা বিসর্জন। এক মাস ধরে তাঁরা টুসু পুজো করেন। তারপর টুসু ভেলা বিসর্জনের আগে মকর ঘরে আগুন দিয়ে আনন্দ-ফুর্তিতে মেতে ওঠেন তাঁরা। তেমনি ১২ নম্বর ওয়ার্ডের সকল মানুষ মেতে উঠেছেন টুসু বিসর্জনে। হৈ- হুল্লোর করে নাচাগানার মধ্যে দিয়ে চলছে টুসু বিসর্জন পর্ব। উৎসব উদযাপনের সমস্যা কিছু নেই। কিন্তু পরিস্থিতির নিরিখে এ যেন এক ভয়ঙ্কর চিত্র।

বিসর্জনের জন্য এলাকায় যে জনসমাগম হয়েছে তাতে মুষ্টিমেয় দু একজনের মুখে মাস্ক। তাদের মধ্যেও আবার অধিকাংশের মাস্ক ঝুলছে থুতনির নিচে। বাকিদের মুখে মাস্ক এর কোনো চিহ্নই নেই। আর সামাজিক দূরত্ব! এ বিষয়টি নিয়ে তাঁরা বিশেষ মাথা ঘামাচ্ছেন না। কার্যত সামাজিক দূরত্ব বৃদ্ধি এবং করোনার নিষেধাজ্ঞাকে শিকেয় তুলে দিয়ে উদ্যম নৃত্যে মেতেছেন এলাকাবাসীরা। এমন সংকটজনক পরিস্থিতিতে এলাকাবাসীদের এমন অসচেতনতা ভয়ংকর পরিণতি আনতে পারে বলে অনুমান করা যায়। কোভিদডবিধি লঙ্ঘনে যেখানে গ্রেপ্তারের মত শাস্তিও হচ্ছে, সেখানে সাধারন মানুষের সচেতনতা না ফিরলে কোনোভাবেই এই অতিমারি কাটিয়ে ওঠা সম্ভব নয়।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories