Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

BREAKING : পুরভোট মাস খানেক পিছনো যাবে কি? সিদ্ধান্ত জানাতে কমিশনকে ডেডলাইন কোর্টের

1 min read

|| প্রথম কলকাতা ||

রাজ্যে করোনা পরিস্থিতি ভয়াবহ হচ্ছে দিনে দিনে। একগুচ্ছ নিয়ম কানুন চালু হওয়ার পরেও সংক্রমণ বাড়ছে প্রতি একদিনে, পাল্লা দিয়ে বাড়ছে মৃত্যু হার। এই পরিস্থিতিতে রাজ্যের চার পুরনিগমের ভোট পিছিয়ে দেওয়া নিয়ে মামলা হয়েছে হাইকোর্টে।

আগামী ২২ শে জানুয়ারি বাংলার চার পুরনিগমের নির্বাচন। গত কয়েকদিন ধরেই এই একই মুদ্দায় মামলা চলছে হাইকোর্টে। একে অপরের দিকে চূড়ান্ত সিদ্ধান্তের বল ঠেলে দিয়েছে রাজ্য সরকার এবং কমিশন। গতকাল এই মামলার শুনানি শেষে রায় দান স্থগিত ছিল। তবে এবার সিদ্ধান্ত জানানোর জন্য কমিশনের কাছে ৪৮ ঘণ্টার সময়সীমা বেঁধে দিয়েছে উচ্চ আদালত।

করোনা পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে পুরনিগমের ভোট ৪-৬ সপ্তাহ পিছিয়ে দেওয়া যাবে কিনা এই বিষয়ে কমিশনকে ভাবনা চিন্তা করতে বলেছে কলকাতা হাইকোর্ট। মামলাকারীকে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রাজ্যের করোনা পরিস্থিতির সমস্ত তথ্য কমিশনের হাতে তুলে দিতে, যাতে তাদের সিদ্ধান্ত নিতে সুবিধা হয়ে থাকে। এবং সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য কমিশনকে দু দিনের সময়সীমা দিয়েছে উচ্চ আদালত।

হাইকোর্টের তরফে জানানো হয়েছে, ‘৪৮ ঘণ্টার মধ্যে সিদ্ধান্ত ঘোষণা করতে হবে কমিশনকে। লাফিয়ে বাড়ছে সংক্রমণ, সিদ্ধান্ত নেওয়ার আগে মাথায় রাখতে হবে।মানুষের স্বার্থে অবাধ-সুষ্ঠু ভোটের লক্ষ্যে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা।” উল্লেখ্য রাজ্যের বিরোধী দলগুলি প্রথম থেকেই চেয়ে এসেছে নির্বাচন বন্ধ করতে।

তার মধ্যেই গতকালের শুনানিতে ভোট নিয়ে সিদ্ধান্ত কে নেবে সেই প্রসঙ্গে একে অপরের কোর্টে বল ঠেলছে রাজ্য এবং কমিশন। গোটা ঘটনায় রীতিমত বিরক্তি প্রকাশ করেছিলেন বিচারপতি। প্রশ্ন করেছিলেন এতো বছরেও কেনো স্পষ্ট নয়, চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার কার? তবে আজ আদালত জানিয়ে দিয়েছে শেষ সিদ্ধান্ত নেবে কমিশন। এবং রাজ্যের পরিস্থিতি বিচার করে আদালতের তরফে কমিশনের সামনে প্রশ্ন রাখা হয়েছে, আগামী ৪-৬ সপ্তাহ নির্বাচন স্থগিত রাখা যায় কিনা? শুনানি শেষে মামলাকারীর আইনজীবী জানিয়েছেন, “আদালত এদিন জানিয়ে দিয়েছে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে কমিশন একটা সিদ্ধান্ত নেবে পরিস্থিতির কথা মাথায় রেখে। আমাদেরকেও বলা হয়েছে, আমাদের কাছে যা নথি আছে, তা কমিশনকে জমা দিতে। আমরাও আবেদন জানাব। যাতে নির্বাচন পিছনো যায়। ”

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories