Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ফ্রি ফায়ার গেমের প্রতি বিচ্ছিরি আসক্তি ! গলায় ফাঁস লাগিয়ে প্রাণ দিল ছোট্ট শিশু

।। প্রথম কলকাতা ।।

ফ্রি ফায়ার গেমের জেরে প্রাণ গেল ছোট্ট শিশুর। ক্লাস ফাইভে পড়া বালকের গেমের প্রতি পাগল করা আসক্তি ছিল। সর্বক্ষণ ফ্রি ফায়ার গেমে মগ্ন থাকতো। এমনকি গেমের প্রতি এতটাই নেশাগ্রস্ত হয়ে পড়েছিল, অনলাইনে গেমের আদলেই পুলিশের পোশাক অর্ডার করেছিল। ঘটনাটি ভোপালের,গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করেছে পঞ্চম শ্রেণির এক ছাত্র। ছেলের মৃত্যুতে পরিবারে শোকের ছায়া।

অভিভাবকরা জানান, শিশুটির মোবাইলে ফ্রি ফায়ার গেম খেলার শখ ছিল। মোবাইল ছাড়াও সে টিভিতেও গেম খেলত। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে কোনো সুইসাইড নোট পায়নি। ছেলেটির বাবা শঙ্করাচার্য নগর বাজারিয়ায় বসবাসকারী যোগেশ ওঝা, তিনি একটি অপটিক্যালের দোকান চালান।

সূর্যাংশ ছিল তাদের ১১ বছরের একমাত্র ছেলে। অবধপুরীর সেন্ট জেভিয়ার্স স্কুলে পঞ্চম শ্রেণিতে পড়ত সূর্যাংশ । বুধবার বিকেলে তিনি তার ভাই আয়ুষের সঙ্গে দ্বিতীয় তলার রুমে বসে টিভিতে সিনেমা দেখছিলেন। আয়ুষ কোন একটি কাজের জন্য নিচে নেমে আসে । কিছুক্ষণ পর মামার ছেলেমেয়েরা খেলতে খেলতে তৃতীয় তলার বারান্দায় পৌঁছলে দেখতে পায় সূর্যাংশ বক্সিং রিংয়ে দড়িতে ঝুলছে।

হাসপাতালে যাওয়ার আগেই মৃত্যু

শিশুরা সূর্যাংশকে ঝুলতে দেখে সঙ্গে সঙ্গে পরিবারের সদস্যদের জানায়। পরিবারের সদস্যরা সূর্যাংশকে তড়িঘড়ি একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে গেলেও হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই তার মৃত্যু হয়। চিকিৎসক পরীক্ষা করে জানান শিশুটি মৃত।

মোবাইল চেক

সূর্যাংশের বাবা যোগেশ পুলিশকে জানিয়েছেন, শিশুটি মোবাইলে ফ্রি ফায়ার গেম খেলত। এছাড়াও সে যখনই টিভি দেখত, শুধু গেমসহ সিরিয়াল দেখত। খেলার মধ্যেই বেশির ভাগ সময় কাটাত। সবাই তাকে খেলা খেলতে নিষেধ করতেন। কিন্তু সে কারোর কথায় কান দিত না। সূর্যাংশের মোবাইলও খতিয়ে দেখবে পুলিশ। যাতে জানা যায় খেলায় তাকে টার্গেট দেওয়া হয়েছে কি না।

তিন মাস আগেও আত্মহত্যার চেষ্টা

পুলিশ জানিয়েছে, প্রায় ৩ মাস আগেও আত্মহত্যার চেষ্টা করেছিল সূর্য। ফাঁসির প্রস্তুতি নিচ্ছিল, তার আগেই মা পৌঁছে তাকে বাঁচান। এ নিয়ে মা তাকে তিরস্কারও করেন। বেশিরভাগ সময়ই সূর্যাংশ নাকি তার দাদার মোবাইল নিয়ে গেম খেলত।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories