Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নিরামিষ খাবার বদলে দিল এই সাংবাদিকের যৌন জীবন, আপনিও জানুন কীভাবে ?

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

আমিষ বাদ দিয়ে নিরামিষ খাবারকে অনেকেই জীবনের অঙ্গ করে নিয়েছেন। নিরামিষভোজীরা বারবারই দাবি জানিয়ে আসছেন, এতে নাকি শরীর অনেকটাই ভাল-সুস্থ-সতেজ থাকে। এবার জানা গেল ভেজিটেরিয়ান আহার যৌন জীবনকেও প্রভাবিত করে। এই প্রসঙ্গে সম্প্রতি নিজের অভিজ্ঞতা শেয়ার করেছেন একজন ব্রিটিশ সাংবাদিক। জর্জেট কালি নামক এই মহিলা সাংবাদিক বলেছেন, নিরামিষ ডায়েট শুরু করার পর থেকেই আরও উত্তেজক হয়ে উঠেছে তাঁর যৌন জীবন।

কালি বলেছেন, ‍‘আমি একদিন মাংস খেয়ে প্রেমিকের সঙ্গে বিছানায় গিয়েছিলাম। কিন্তু তারপরই কোনও যৌন সংসর্গে লিপ্ত হওয়ার আগে আমি ঘুমিয়ে পড়ি। আমার সঙ্গে এর আগেও বহুবার এমনটা হয়েছে।’ সেই সঙ্গে তিনি বলেন, ‍‘এরপর আমি আমিষ ত্যাগ করে নিরামিষাশী হয়ে উঠি এবং তারপর থেকেই সব কিছু স্বাভাবিক হয়ে ওঠে। যৌনতা এখন আমার কাছে খুব তৃপ্তিদায়ক।’

কালির সঙ্গীও এখন নিরামিষাশী


ব্রিটিশ সাংবাদিক বলেন, ‘আমি গত ছয় মাস ধরে নিরামিষভোজী। নিরামিষ খাওয়ার কারণে আমার কোমরের মেদও কমে গিয়েছে। আমার এনার্জি লেভেলের সঙ্গে সঙ্গে আমার যৌনতার ইচ্ছাও বেড়ে গিয়েছে। এখন আমরা দীর্ঘ সময়ের জন্য বিছানায় একে অপরের সঙ্গে যৌন ক্রিয়াকলাপ করতে সক্ষম। আমার প্রেমিকও এখন ভেগান (নিরামিষ) ডায়েট গ্রহণ করেছে। আমি দেখেছি সে এখন আমাকে আগের থেকে অনেক বেশি ভালোবাসতে শুরু করেছে।’

সেই সঙ্গে কালি বলেছেন, এটি তাঁর ধারণা নয়, এর পিছনে একটি বিজ্ঞান রয়েছে। বেশির ভাগ নিরামিষ খাবার খেলে রক্ত সঞ্চালন বাড়ে, যার ফলে যৌনতার ইচ্ছাও বেড়ে যায়। শাক, ডুমুর, কুমড়োর বীজ, গোলমরিচ, ডার্ক চকলেট এবং বাদাম সবই ভিটামিন বি এবং জিঙ্ক সমৃদ্ধ। এগুলো যৌন ইচ্ছার পাশাপাশি টেস্টোস্টেরনের (সেক্স হরমোন) মাত্রা বাড়ায়। এগুলো সেবন করলে যৌন জীবন ভালো থাকে।

দ্রুত ফলাফলের জন্য এটি করুন


কিছু বিশেষজ্ঞ বিশ্বাস করেন যে মাংস, ডিম এবং দুগ্ধজাত খাবারে উচ্চ কোলেস্টেরল এবং স্যাচুরেটেড প্রাণীর চর্বি থাকে, যা আমাদের ধমনীতে রক্ত সঞ্চালনে বিঘ্ন ঘটায়। এর ফলে আমাদের শরীরের নিচের অংশে রক্তের প্রবাহ ধীর হয়ে ওঠে। এর ফলে পুরুষত্বহীনতার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ প্রসঙ্গে জর্জেট কালি বলেন, ‍‘‍আপনি যদি দ্রুত ফলাফল পেতে চান, তাহলে ব্যায়ামের পাশাপাশি ফ্ল্যাভোনয়েড সমৃদ্ধ খাবার খান। এর জন্য স্ট্রবেরি, ব্লুবেরি এবং আপেলের মতো ফলকে আপনার ডায়েটের অংশ করুন।’

ইরেক্টাইল ডিসফাংশনের ঝুঁকি ২০ শতাংশ কমে যায়


একই সময়ে, আমেরিকান জার্নাল অফ ক্লিনিক্যাল নিউট্রিশন-এ প্রকাশিত একটি সমীক্ষা অনুসারে, ফ্ল্যাভোনয়েড সমৃদ্ধ খাবার পুরুষদের ইরেক্টাইল ডিসফাংশনের ঝুঁকি ২০ শতাংশেরও বেশি কমাতে পারে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে যে, মাংস এবং দুগ্ধজাত খাবারের পরিবর্তে নিরামিষ খাবার আমাদের শরীরে সেরোটোনিন হরমোনের মাত্রা বাড়িয়ে দিতে পারে। এই হরমোন আমাদের সুখী রাখতেও সাহায্য করে। আরেকটি গবেষণায় এটাও উঠে এসেছে যে, যাঁরা নিরামিষ খাবার খান, তাঁদের শরীরের গন্ধ আমিষভোজীদের থেকে ভাল।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories