Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

স্কুলের বইয়ের বিজ্ঞাপনে স্লিভলেস ব্লাউজে শিক্ষিকা ! তুমুল রোস্ট নেটিজেনদের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ধরুন আপনি কোন প্রিয় সিরিয়াল দেখছেন বা সিনেমা দেখছেন, তার মাঝখানে হঠাৎ করে বিজ্ঞাপন দেখালে একটু বিরক্ত হন আবার কখনো বা এমন কিছু বিজ্ঞাপন থাকে যা বেশ তারিয়ে তারিয়ে উপভোগ করেন। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এমনই এক বিজ্ঞাপন উঠে এসেছে। ইউটিউব একটি চ্যানেল রয়েছে রায় অ্যান্ড মার্টিন অনলাইন ক্লাস বলে। সেখানেই পোস্ট করা হয়েছে একেবারে তথাকথিত বিজ্ঞাপনের থেকে একটু অন্যরকম। দর্শককে বেশি করে টানতে বিজ্ঞাপনে যেন বেশি করে একটু মশলা ঢালা হয়েছে।

• ১০০ টাকা পড়ে গেল

স্বাভাবিকভাবেই অনেকেই অনেক নেটিজেনরাই বেশ কয়েকবার ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে বিজ্ঞাপনটিকে দেখেছেন। রায় অ্যান্ড মার্টিনের প্রত্যেকটি সহায়িকা বইয়ের দাম গড়ে ১০০ টাকা করে হয়ে গেছে । আর খবরকেই প্রেজেন্ট করার জন্য তিনটি ছোট ছোট ক্লিপের ভিডিও একটি বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে দেখানো হয়। সেই বিজ্ঞাপনের ভিডিও অনেকের কাছে দারুণ মজাদার লেগেছে, আবার অনেকের কাছে মনে হয়েছে শিক্ষা ব্যবস্থার ক্ষেত্রে বা শিক্ষা ক্ষেত্রে এমন ধরনের বিজ্ঞাপন একেবারেই প্রযোজ্য ছিল না।

• হিরোইনের মত এন্ট্রি শিক্ষিকার

ভিডিওতে প্রেজেন্ট করা হয়েছে এমন শিক্ষিকাকে যার সাথে তথাকথিত প্রচলিত শিক্ষিকাদের যেন খাপ খায় না ,এমনটি মনে করছেন অনেক নেটিজেনরাই। যদিও শিক্ষিকা বা শিক্ষকের পোশাকে নয়, তাদের শিক্ষাদানের মানদণ্ডটাই আসল। সেই শিক্ষিকা জিন্স টপ পরলেন নাকি শাড়ী পরলেন তাতে কিছু যায় আসে না । তিনি শিক্ষাদান কতটা করতে পারলেন সেটাই আসল। তবে বিজ্ঞাপনের ভিডিওটিকে নিয়ে অনেক নেটিজেন সমালোচনা করছেন । কারণ এই বিজ্ঞাপনে থাকা শিক্ষার্থী হলুদ শিফন শাড়ি স্লিভলেস ব্ল্যাক জামা , জুতো এবং তার সাথে এমনভাবে এন্ট্রি নেন, মনে হবে কোন ফিল্মের হিরোইন মুচকি হেসে এগিয়ে আসছেন। চক নিয়ে ব্ল্যাকবোর্ডে লিখতেই চক ভেঙে মাটিতে পড়তেই , বলা হয় ‘পড়ে গেল’ অর্থাৎ রায় অ্যান্ড মার্টিনের সমস্ত সহায়িকা বইয়ের দাম পড়ে গিয়ে ১০০ টাকায় নেমে এলো।

• ভেঙে পড়লো দাঁত

যদিও পাশাপাশি আরও দুটি মজাদার বিজ্ঞাপন রয়েছে। শীতের কুয়াশা ভোরে কলকাতার রাস্তায় পেপার বিক্রেতা সাইকেল থেকে পড়তেই তার দাঁত ভেঙে পড়তেই সেই একই জিনিস, রায় অ্যান্ড মার্টিনের দাম পড়ল অর্থাৎ সমস্ত সহায়িকা ১০০ টাকা হলো। দ্বিতীয় যে বিজ্ঞাপনটা ছিল সেখানে দেখানো হয়, এক ভদ্রলোক চায়ের দোকানে নিজের পছন্দমত বিস্কুট চায়ে ডোবাতেই অর্ধেক পড়ে গেল গরম চায়ের কাপে।

এমনি থেকেই এই সংস্থা অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি সংস্থা এবং স্কুল পাঠ্যবইয়ের জন্য বহু মানুষ এই প্রকাশনীকে বেছে নেন। কিন্তু এই হিরোইনের মত এন্ট্রি নেওয়া শিক্ষিকার ভিডিও ক্লিপের বিজ্ঞাপন দেখে অনেকেই হাসছেন আবার অনেকেই ভাবছেন শিক্ষা ব্যবস্থায় এ ধরনের বিজ্ঞাপনের আদৌ কি প্রয়োজন ছিল ? আবার অনেকে প্রশংসাও করছেন।

(যদিও এই ভিডিওর সত্যতা যাচাই করেনি ‘প্রথম কলকাতা’, এই ভিডিও নিয়ে আপত্তি নেটিজেনদের ব্যক্তিগত, এর দায় নেয় না কর্তৃপক্ষ )

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories