Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

হাইব্রিড গাড়ি বলতে আপনি কী বোঝেন? আসুন তাহলে জেনে নেওয়া যাক

1 min read

ll প্রথম কলকাতা ll

বর্তমান জেনারেশনের মানুষ অনেক বেশি জিনিস পরখ করে কিনতে চায়। সেটা বাড়ি হোক বা গাড়ি। তাই গাড়ি কিনতে গেলেই মাথায় আসে সবথেকে ভালো ব্র্যান্ড কোনটা। হাইব্রিড গাড়ি নাকি নন হাইব্রিড। আজকে আমরা আলোচনা করব হাইব্রিড গাড়ি বলতে আমরা ঠিক কোন গাড়িগুলিকে বুঝিয়ে থাকে। সাধারণত হাইব্রিড গাড়ি বলতে বিদ্যুৎ এবং জ্বালানি তেলের সমন্বয় চালিত যানবাহনগুলোকে বলা হয়। এই গাড়িগুলির প্রাথমিক শক্তি ব্যাটারি থাকলেও দ্বিতীয় শক্তি জ্বালানি তেল। দুই শক্তির দ্বারা গাড়ির প্রয়োজন অনুসারে স্বয়ংক্রিয়ভাবে পরিবর্তিত হয়।

এই গাড়ি গুলির মধ্যে পাওয়ার কন্ট্রোল ইউনিট নামে অত্যাধুনিক যন্ত্র থাকে, যা গোটা কাজটি করে থাকে। তাই এক্ষেত্রে চালককে আলাদা কোনও সুইচ ব্যবহার করতে হয় না। এছাড়াও জ্বালানি তেলের যে অপচয় অন্যান্য গাড়ির ক্ষেত্রে হয়, হাইব্রিড গাড়ি ক্ষেত্রে অপচয় জ্বালানি তেল বৈদ্যুতিক শক্তিতে রূপান্তরিত হয়। অর্থাৎ দু’ধরনের প্রযুক্তিকে যখন একটি গাড়িতে ব্যবহার করা হয়, তখন তাকে হাইব্রিড গাড়ি বলা হয়। যেমন ইঞ্জিনের শক্তিতে গাড়ি চলে সেইসঙ্গে ব্যাটারিও চার্জ হয় এই গাড়িগুলোতে।

নন হাইব্রিড গাড়ির জ্বালানির খরচ বাঁচাতে সিএনজি বা এলপিজিতে রুপান্তর করা হয়ে থাকে। হাইব্রিড গাড়িতে বিকল্প শক্তি হিসেবে ব্যবহৃত ব্যাটারিকে রূপান্তরের ঝামেলা থেকে মুক্ত করে। হাইব্রিড গাড়ি যখন ব্যাটারিতে চলে, তখন ইঞ্জিন বন্ধ থাকার কারণে ইঞ্জিন, অয়েল ফিল্টার এবং এয়ার ফিল্টার ব্যবহৃত হয় না। এতে এই যন্ত্রাংশগুলোর অনেকটা আয়ু বেড়ে যায়। পাশাপাশি নন হাইব্রিড গাড়িগুলি যন্ত্রাংশ ৩ হাজার কিলোমিটার চলার পর বদলাতে হলেও, হাইব্রিড গাড়িতে ৫ থেকে ৬ হাজার কিলোমিটার পর্যন্ত অনায়াসে ব্যবহার করা যায় বলে জানা গিয়েছে।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories