Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ভ্যাকসিনকে হারালো ওমিক্রন , প্রোটিন না খেলেই মহাবিপদ ! কী বলছেন চিকিৎসকরা ?

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

করোনার দাপটে ভ্যাকসিনের দুটো ডোজ নিয়েও প্রচুর মানুষ সংক্রমিত হচ্ছেন। এক্ষেত্রে একমাত্র ভরসা করতে হচ্ছে শরীরের রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতার উপর। যে ব্যক্তির ইমিউনিটি পাওয়ার কম তিনি সহজেই করোনার দাপটে কাবু হয়ে পড়ছেন। আর যাদের ইমিউনিটি পাওয়ার একটু বেশি, তারা কয়েকদিন ওষুধ এবং পুষ্টিকর খাবার খেয়ে দিব্যি চাঙ্গা হয়ে উঠছেন। শরীরের ইমিউনিটি পাওয়ার কিংবা অ্যান্টিবডি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। পর্যাপ্ত প্রোটিন ছাড়া আপনার শরীর পর্যাপ্ত অ্যান্টিবডি তৈরি করতে পারে না।

•করোনা কালে কেন গুরুত্ব দেবেন প্রোটিনকে ?

প্রোটিন হল সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পুষ্টি উপাদানগুলির মধ্যে একটি । যা পেশী তৈরি করার সময় কোষের ক্ষতি মেরামত করতে সাহায্য করে, যা আপনার অনাক্রম্যতাকে আরও বাড়িয়ে তোলে। তাই প্রোটিন গ্রহণ বিশেষ করে মহামারীতে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ প্রোটিনগুলি অ্যামিনো অ্যাসিড দিয়ে তৈরি এবং এগুলি অ্যান্টিবডি তৈরির জন্য প্রয়োজনীয়। এছাড়াও যে কোনও সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে।

কোনো খাদ্যে পর্যাপ্ত প্রোটিন না থাকলে, শরীরে পর্যাপ্ত অ্যান্টিবডি তৈরি হবে না, যা রোগের বিরুদ্ধে লড়াই করার ক্ষমতাকে ব্যাপকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত করবে। কারণ মানব শরীর আক্রমণকারীদের সাথে লড়াই করার জন্য একেবারেই তখন প্রস্তুত থাকবে না।

•কতটা প্রোটিন যুক্ত খাবার খাবেন ?

একজন ব্যক্তির প্রতিদিন প্রতি কেজি শরীরের ওজনে কমপক্ষে ১ গ্রাম প্রোটিন পাওয়ার দিকে মনোনিবেশ করা উচিত। সুতরাং আপনার যদি ৬০ কেজি ওজন হয়, তাহলে প্রোটিন সমৃদ্ধ খাবারের মাধ্যমে প্রায় ৬০ গ্রাম প্রোটিন খাওয়ার চেষ্টা করুন। কোভিড-১৯ কে রুখতে নানান বীজ , বাদাম, মসুর ডাল, দুগ্ধজাত পণ্য, মুরগির মাংস, ডিম এবং মাছের মতো খাবার খাওয়া উচিত যা প্রোটিন সমৃদ্ধ।

•প্রোটিনের বিকল্প হিসেবে কাকে বাছবেন ?

প্রোটিন ছাড়াও ভিটামিন সি, ডি, এ, ই এবং কিছু খনিজ যেমন জিঙ্ক, কপার ,ম্যাগনেসিয়াম এবং অবশ্যই ওমেগা ৩ এই ভাইরাস সংক্রমণের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য গুরুত্বপূর্ণ।

খাদ্যতালিকায় কুমড়োর বীজ, কাজু, ছোলা এবং মাছের মতো খাবার অন্তর্ভুক্ত করতে হবে। এগুলি অপরিহার্য মাইক্রোনিউট্রিয়েন্ট যার অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। শুধু তাই নয়, জিঙ্কের অ্যান্টিভাইরাল বৈশিষ্ট্যও রয়েছে বলে বলা হয়, যা ভাইরাসের সংখ্যাবৃদ্ধি বা গুরুতর সংক্রমণের ক্ষমতা কমাতে পারে।

•ভিটামিন সি আর ডি-কে রাখুন প্রথম সারিতে !

যদি আপনি একটি শক্তিশালী ইমিউন সিস্টেমের জন্য দায়ী বিভিন্ন ভিটামিন এবং খনিজগুলির দিকে তাকান, তাহলে ভাল অনাক্রম্যতার জন্য ভিটামিন সি – কে প্রথম সারিতে রাখুন।

২০২১ সালের মে মাসে তেলেঙ্গানার নিজামস ইনস্টিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্সেস (এনআইএমএস) এবং গান্ধী হাসপাতালের ডাক্তারদের দ্বারা স্থানীয় কোভিড পজিটিভ রোগীদের উপর ‘নেচার’ জার্নালে প্রকাশিত গবেষণাটি ইঙ্গিত দেয়, কোভিড পজেটিভ চিকিৎসার নানান প্রোটোকলগুলিতে ভিটামিন ডি যুক্ত করা রয়েছে। তাই ওমিক্রনের লহর থেকে বাঁচতে এই ভিটামিন কিংবা প্রোটিনযুক্ত খাবার খাদ্য তালিকায় না রাখলে আপনি মহা বিপদে পরবেন।

Categories