Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দীর্ঘদিন বাংলাদেশে জেলবন্দি, অবশেষে বাড়ি ফিরল মা ও মেয়ে

।। প্রথম কলকাতা।।

বিনা অনুমতিতে দেশের সীমান্ত পেরোনোর শাস্তির মুখে পড়েছেন অনেকেই। তবে এবার ধরা পড়ল অন্য চিত্র। এরাও বিনা অনুমতিতেই সীমান্ত পেরিয়ে ছিলেন কিন্তু উদ্দেশ্য ছিল সৎ। মেয়েকে সুস্থ করার তাগিদে পায়ে হেঁটে পাড়ি দিয়েছিলেন সীমান্তের ওপার। আর তাতেই বিপত্তি। ঘটনাটি ঘটে আজ থেকে ১৭ মাস আগে। নদীয়ার কৃষ্ণগঞ্জ এর সীমান্ত লাগোয়া গ্রাম বানপুর কুলোপাড়া। সেখানকার বাসিন্দা মনসুর মন্ডল এবং তার স্ত্রী গলে বিবি। তাদের মেয়ে সুভা খাতুন কোনো এক শারীরিক সমস্যার মধ্যে পড়ে। স্থানীয়রা মেয়েকে ভূতে ধরেছে বলে জানায় গলে বিবিকে।

তাহলে এবার করণীয় কী? যেতে হবে সীমান্তের ওপার ওঝা বাড়িতে। মেয়েকে সুস্থ করার তাগিদে অবশেষে সেই পথেই পাড়ি দেয় মেয়ে ও মা। জানা যায় গলে বিবি তাঁর মেয়েকে নিয়ে সন্ধ্যের দিকে রওনা দেয় বাংলাদেশের গয়েশপুর গ্রামে। এই গ্রামটিও একদম বাংলাদেশের সীমান্ত লাগোয়া। কিন্তু বিনা কারণে প্রবেশ করার অপরাধে গ্রেফতার করা হয় তাদের। জেলবন্দি থাকতে হয় মা এবং মেয়েকে। অন্যদিকে মনসুর মন্ডল তাঁর স্ত্রী এবং মেয়েকে ফিরিয়ে আনার জন্য বহু চেষ্টা করতে থাকেন। দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন সরকারি অফিসের দ্বারস্থ হন তিনি।

কিন্তু কোনোভাবেই কাজ হয়না। অবশেষে দীর্ঘ ১৭ মাস পর বাংলাদেশ এবং ভারতের যৌথ আলোচনার সিদ্ধান্ত হিসেবে ফিরিয়ে দেওয়া হল মেয়ে এবং মা কে। এই মিটিংয়ে উপস্থিত ছিলেন কৃষ্ণনগর থানার আইসি বাবিন মুখার্জি এবং কাস্টম অফিসাররা। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিএসএফের আধিকারিকরা। অবশেষে বিভিন্ন সরকারি নথিপত্রের সই করার পর তাঁরা বাড়ি ফিরতে পারলেন। স্ত্রী এবং মেয়েকে দীর্ঘ ১৭ মাস পর ফিরে পেয়ে মনসুর মন্ডল অসংখ্য ধন্যবাদ জানান ভারত সরকারকে। ফের নিজের দেশে ফিরতে পেরে খুবই আনন্দিত গলে বিবি এবং তার মেয়ে সুভা খাতুন।

খবরে থাকুন, ফলো করুন আমাদের সোশ্যাল মিডিয়ায়

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories