Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মমতা নির্লজ্জের মতো মুসলিম তোষণ করেন’, ‘প্রথম কলকাতা’ এক্সক্লুসিভে বিস্ফোরক তথাগত

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ত্রিপুরা পুরভোটে সাফল্য না পেলেও ফের একবার পড়শি রাজ্য ত্রিপুরায় পাড়ি দিয়েছেন তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। লক্ষ্য সংগঠনের মজবুতিকরণ। সেখানে বিজেপির হাতে আক্রান্ত তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীদের সঙ্গে মধ্যাহ্নভোজ ও স্থানীয় নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি। এদিন ‘প্রথম কলকাতা’-র প্রতিনিধি রোজিনা রহমান কথা বলে নিলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথা বিজেপি নেতা তথাগত রায়।

অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের ত্রিপুরা সফর প্রসঙ্গে তথাগত রায় (Tathagata Roy) বলেন, “রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়ের মতো এতবড়ো নেতাকে পাঠিয়েও কুলোচ্ছে না! এখন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে পাঠানো হল। ত্রিপুরায় পুরনির্বাচনে হেরে গিয়েছে তৃণমূল, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানেন যে উনি হেরে যাবেন, পাত্তা পাবেন না তাও অভিষেককে পাঠিয়ে কিছু একটা করার চেষ্টা করছে। একটা নতুন রাজ্যে একটা আঞ্চলিক দলকে প্রতিষ্ঠা পেতেও সময় লাগে। তাতেও সাফল্য আসে না। তাছাড়া কোনো আঞ্চলিক রাজনৈতিক দলই তাঁদের বাইরে গিয়ে সাফল্য পায় না। পশ্চিমবঙ্গ আর ত্রিপুরার মধ্যে বহু প্রভেদ রয়েছে।“

তিনি আরও সংযোজন করেন, “ত্রিপুরায় ৩৫ শতাংশ উপজাতি রয়েছে। বাকী ৬৫ শতাংশ বাংলাদেশে মুসলিমদের দ্বারা অত্যাচারিত হয়ে ত্রিপুরায় আসা বাঙালী। তাঁরা ক্রমাগত খবর পান বাংলাদেশে কী ঘটছে। এই বছর দুর্গাপুজোয় মণ্ডপে কোরান রাখা নিয়ে যে কাণ্ডটা হল! সেখানে মমতার মুসলিম যে ভোট ব্যাঙ্ক রয়েছে তাঁরা ত্রিপুরায় ৬ শতাংশ। ওখানে বিজেপির আগেও সিপিএম বহুদিন রাজত্ব করেছে। উদ্বাস্তুদের মধ্যে সিপিএমের একটা জোর ছিলই। এরপর নৃপেন চক্রবর্তী ওখানে গিয়ে কাজ করেছেন। আজ সেখানে তৃণমূল উড়ে এসে জুড়ে বসবে আর রাজ্য জয় করে বসবে, এরকম কোনো সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না।“

তৃণমূলের তরফে অভিযোগ করা হয়, ধর্মীয় মেরুকরণের রাজনীতি করে বিজেপি। এ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একাধিকবার আক্রমণ করেছেন গেরুয়া শিবিরকে। তথাগত রায়ের মতে, “যারা ধর্মীয় মেরুকরণ করে, তাঁরাই চিৎকার করে বলে অন্যরা ধর্মীয় মেরুকরণ করে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় (Mamata Banerjee) নিজে ধর্মীয় মেরুকরণ করে বিজেপি ওপর দোষ চাপাচ্ছেন। এবার নির্বাচনের আগে তো বটেই তাছাড়া বেশ কয়েক বছর ধরে মমতা নির্লজ্জভাবে পশ্চিমবঙ্গে মুসলিম তোষণ করেছেন। একেবারে চোখে চামড়াহীন। কোনো রকম লজ্জা, ঘৃণা কিচ্ছু দেখতে পাওয়া যাচ্ছে না। পুলিশ রাস্তায় হেলমেট না পড়লে ধরে, কিন্তু পার্ক সার্কাসে মাথায় টুপি দিয়ে বিনা হেলমেটে বেরিয়ে যাচ্ছে। এখন বিজেপি এই বিষয়টিকে সামনে আনতে পারেনি, সেটা তাঁদের ব্যর্থতা।“

আপডেট থাকতে ফলো করুন আমাদের ইউটিউব , ফেসবুক, ট্যুইটার

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories