Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কেন সুজিতের বৈঠকে গরহাজির কৃষ্ণা-সব্যসাচী? ‘প্রথম কলকাতা’-কে ব্যাখ্যা দিলেন বিদায়ী মেয়র

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

আগামী ২২ জানুয়ারী বিধাননগর সহ রাজ্যের চার কেন্দ্রে পুরভোট। ইতিমধ্যে প্রার্থী তালিকা প্রকাশ করেছে শাসক দল তৃণমূল। ফের ঘাসফুল টিকিটে নির্বাচনী লড়াইয়ে অংশ নিতে চলেছেন বিধাননগরের বিদায়ী মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী। সম্প্রতি প্রশাসনিক ভবনে মনোনয়নও জমা দিয়েছেন তিনি। চার কেন্দ্রের পুরভোটকে কেন্দ্র করে বছরের শুরু থেকেই রাজনৈতিক দলগুলির উৎসাহ তুঙ্গে।

প্রসঙ্গত, বিধাননগর পুরভোটের আগে ৪১ জন তৃণমূল প্রার্থীদের নিয়ে একটি বৈঠক ডাকেন রাজ্যের মন্ত্রী তথা বিধাননগরের বিধায়ক সুজিত বসু। কিন্তু সেখানে গরহাজির ছিলেন কৃষ্ণা চক্রবর্তী এবং সব্যসাচী দত্ত। এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক জল্পনা। কারণ, এমনিতেই সব্যসাচী দত্তের সঙ্গে সুজিত বসুর তিক্ত সম্পর্কের কথা কারও অজানা নয়। সেখানে এবারের বিধাননগর পুরভোটে ৩১ নম্বর ওয়ার্ড থেকে সব্যসাচী দত্তকেই প্রার্থী হিসেবে মনোনীত করেছে তৃণমূল। এমতাবস্থায় সুজিত বসুর বৈঠকে কৃষ্ণা ও সব্যসাচীর গরহাজির ওয়াকিবহাল মহলে নতুন জল্পনা উস্কে দিয়েছে।

এদিন ‘প্রথম কলকাতা’-র প্রতিনিধি রোজিনা রহমানকে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে কৃষ্ণা চক্রবর্তী সুজিত বসুর বৈঠকে তাঁর অনুপস্থিতির কারণ ব্যাখ্যা করেন। তিনি বলেছেন, “আমাকে দলের প্রতীক বিতরণ করার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। আমি সেই কাজে ব্যস্ত ছিলাম। সেই কারণে যাইনি। সুজিতদাও সেটা জানে। অন্য কোনো কারণ নেই। আগের দিনই মনোনয়ন জমা দিয়েছি। তৃণমূলের পতাকা যেখানে আছে, কৃষ্ণা চক্রবর্তী সেখানে আছে।“ পাশাপাশি তিনি এও বলেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যেখানে আমিও সেখানে।“

অন্যদিকে, সব্যসাচী দত্তকে টিকিট দেওয়া নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে কানপাতলে চাপা গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। বারবার দলবদলের পর সব্যসাচী দত্ত কী মানুষের সমর্থন আদায় করতে পারবেন? এর জবাবে বিধাননগরের বিদায়ী মেয়র বলেন, “দলের শীর্ষ নেতৃত্ব যা সিদ্ধান্ত নিয়েছে সেটাই মেনে নিতে হবে। আর মানুষ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেই চেনে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ই আমাদের সব ক’টা আসনে প্রার্থী। উনি বাংলার উন্নয়নের জন্য সব কিছু করেছেন। কন্যাশ্রী, যুবশ্রী থেকে শুরু করে দুয়ারে রেশন, লক্ষ্মীর ভাণ্ডার সব। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলাকে নিজের মায়ের মতো ভালোবাসেন।“

আপডেট থাকতে ফলো করুন আমাদের ইউটিউব , ফেসবুক, ট্যুইটার

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories