Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘সব্যসাচী দত্ত একজন নীচু স্তরের ফঁড়ে রাজনীতিবিদ!’, ফের বিস্ফোরক তথাগত

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

বিধাননগরের প্রাক্তন মেয়র সব্যসাচী দত্তকে এবার চাঁচাছোলা ভাষায় আক্রমণ করলেন ত্রিপুরার প্রাক্তন রাজ্যপাল তথা বিজেপি নেতা তথাগত রায়। বিতর্কিত মন্তব্য হোক কিংবা ট্যুইট প্রায়শই অপ্রিয় সত্য কথা বলে চর্চার কেন্দ্রে থাকতেই পছন্দ করেন তিনি। এবার ‘প্রথম কলকাতা’-র প্রতিনিধি রোজিনা রহমানকে দেওয়া এক্সক্লুসিভ সাক্ষাৎকারে ফের বেলাগাম তথাগত রায়।

‘প্রথম কলকাতা’-য় দেওয়া একটি সাক্ষাৎকারে আসন্ন বিধাননগর পুরভোটের প্রার্থী সব্যসাচী দত্ত বিস্ফোরক মন্তব্য করেন। তাঁর কথায়, বিধানসভা ভোটের আগে বাংলায় জয় শ্রী রামধ্বনি দেওয়া ঠিক হয়নি, এখানে দুর্গা এবং কালীর কথা বলতে হত। পাশাপাশি, তিনি দিলীপ ঘোষের মুখ্যমন্ত্রীকে বারমুডা পড়তে বলার বিষয়টিকেও কটাক্ষ করে। এদিন পাল্টা তথাগত রায় বলেন, “সব্যসাচী দত্ত একজন নীচু স্তরের ফোঁড়ে রাজনীতিবিদ। তৃণমূলে দেড়খানা পোস্ট। সেখানে সব্যসাচী দত্তর বক্তব্য ধরতব্যের মধ্যে আসেনা। তবে উনি যে কথাটি বলেছেন সেটা মিথ্যা নয়। যেমন উত্তর ভারতে রামের নাম করলে যা হয় দক্ষিণ ভারতে তা হয় না। আবার ওড়িশ্যায় জগন্নাথের নাম করতে হয়। সেই রকমই বাংলায় দুর্গা কালীর নাম করতে হয়। এই সমস্ত জিনিসগুলো বোঝা দরকার। তা না করে শুধু মেরে দেব, পুঁতে দেব এইসব কথা বললে কি হয়!”

অন্যদিকে, দিলীপ ঘোষের সাথে তথাগত রায়ের তিক্ত সম্পর্ক বারবারই প্রকাশ্যে এসেছে। এক্ষেত্রে সব্যসাচীর একটা অভিযোগকে অবশ্য স্বীকার করে নিলেন তথাগত। তিনিও মনে করেন, দিলীপ ঘোষের উচিৎ হয়নি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বারমুডা পরতে বলার মতো মন্তব্য করা। তথাগত রায় এও বলেন, “খুব নিম্নশ্রেণির মন্তব্য। আমি নেতার কথা ছেড়ে দিলাম, একজন বুদ্ধিসম্মত নাগরিকও কোনো মহিলা সম্পর্কে এ কথা বলবে না। আময়ার মনে হয়, বারমুডা কথাটা মনে হয় নতুন শিখেছিলেন!“

২০১৯ সালে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান করেন সব্যসাচী দত্ত। কিন্তু একুশের বিধানসভা ভোটে পদ্ম প্রতীকে হেরে যাওয়ার পর ফের তৃণমূলে ঘরওয়াপসি করেন তিনি। আসন্ন বিধাননগর পুরভোটে নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আস্থা অর্জন করে ফের ঘাসফুল প্রতীকে নির্বাচনী লড়াইয়ে সব্যসাচী দত্ত। বিজেপি ছেড়ে দেওয়ার কারণ হিসেবে তিনি বলেছেন, বিজেপি মানুষের কাছে গিয়ে রাজনীতি করে না, বরং পাঁচতারা হোটেলগুলিকে তাঁরা পার্টি অফিস বানিয়ে ফেলেছিল। পাশাপাশি তিনি এও বলেছেন, বিজেপি করব বলে বিজেপিতে যায়নি, দূর থেকে ভালো লাগত তাই গিয়েছিলাম।

সব্যসাচী দত্তের এই মন্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে তথাগতবাবু বলেছেন, “এরা হচ্ছে ট্রোজেন হর্স। এঁদের কাজ হল, অন্য দলের মধ্যে ঢুকে নাশকতা করা। আমি আগেই বলেছিলাম তৃণমূল থেকে দলে আসা ব্যক্তিগুলি নাশকতা করবে। এর মধ্যে মুকুল রায়, সব্যসাচী দত্ত, নগরের নটীরা আছে। কিছু ফেরত গিয়েছে এখনও কিছু রয়েছে যারা পরে যাবে। আমার কথাগুলো তাহলে এখন প্রমাণ হচ্ছে! সব্যসাচী দত্ত নিজেই এখন বলছেন বিজেপি করব বলে বিজেপিতে যায়নি! অন্যদিকে বিজেপি তখন কোল পেতে দিয়ে বলেছিল যোগদান মেলা বানায়া! আর পাঁচতারা হোটেলের কথাটাও তো মিথ্যা নয়। বিজেপি নেতারা পাঁচতাঁরা হোটেলেই নির্বাচন প্রক্রিয়া চালাচ্ছিলেন।“

আপডেট থাকতে ফলো করুন আমাদের ইউটিউব , ফেসবুক, ট্যুইটার

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories