Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

লড়াই জোড়া পাতা বনাম ঘাসফুল, ৬৮ নম্বরে TMC’র কাঁটা সুব্রত মুখোপাধ্যায়ের নিজের বোন

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

KMC-পুরভোটে শাসক দলের রাস্তা একপ্রকার মসৃণ। প্রার্থী বাছাই হয়ে গিয়েছে শুরুতেই। প্রার্থীদের সঙ্গে বৈঠক করে সবকিছু বুঝিয়ে দিয়েছেন খোদ অভিষেক। অলিতে গলিতে সকাল থেকে সন্ধ্যা জোরকদমে প্রচার চলছে। উত্তর থেকে দক্ষিণে দেওয়াল ভরেছে প্রার্থীদের সমর্থনের ব্যানার পোস্টারে। অন্যদিকে বিরোধীদের এখনো ময়দানে সেভাবে নামতেও দেখা যায়নি। তবে কাঁটা বলতে রয়ে গিয়েছে দুই ওয়ার্ডের নির্দল প্রার্থীরা।কাউন্সিলর টিকিট না পেয়ে তিনজন ক্ষোভে নির্দল প্রার্থী হিসেবে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন। একজন দলের পরামর্শে ভুল স্বীকার করে মনোনয়ন ফিরিয়ে নিয়েছেন। কিন্তু বাকি দুজন অনড়। এমনকি তৃণমূল কংগ্রেস তাঁদের বহিষ্কার করলেও সিদ্ধান্তের বদল না ঘটিয়ে নিজেদের লক্ষ্যে প্রচার করে যাচ্ছেন।

তাঁদের মধ্যেই একজন হলেন ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের নির্দল প্রার্থী তনিমা চট্টোপাধ্যায় (Tanima Chatterjee)। সুব্রত মুখোপাধ্যায় (Subrata Mukherjee) – এর বোন। ওই ওয়ার্ডে প্রথমে তাঁকেই টিকিট দিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেস। প্রচারেও নেমে পড়েছিলেন তিনি। কিন্তু দিন ঘুরতেই জানতে পারেন তাঁর বদলে ফের টিকিট হাতবদল হয়ে গিয়েছে বিদায়ী কো-অর্ডিনেটর সুদর্শনা মুখোপাধ্যায়ের কাছে।আর এখানেই শুরু বিপত্তির। ক্ষোভে তনিমা দেবী জোড়া ফুল ছেড়ে জোড়া পাতা প্রতীকে নির্দল থেকে ভোটে দাঁড়ান। আর এবার নিজের প্রচারের মাধ্যমে ফের নজর কেড়েছেন তিনি। ওই ওয়ার্ডে তনিমা দেবীর সমর্থনের পোস্টার নজর কেড়েছে সবার। পোস্টারে প্রয়াত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় এবং তনিমা দেবীর ছবি, এবং তার সঙ্গেই লেখা আছে, ” ৬৮ নম্বর ওয়ার্ডের হৃত গৌরব ফিরিয়ে আনতে নির্দল প্রার্থী, সুব্রত মুখোপাধ্যায় এর নিজের বোন তনিমা চট্টোপাধ্যায়কে জোড়া পাতা চিহ্নে ভোট দিন।”

সকলের চোখ আটকেছে এই “সুব্রত মুখোপাধ্যায় এর নিজের বোন” বিশ্লেষণে। এতদিন বাংলার মানুষ দেখেছে “ঘরের মেয়ে” তত্ব। ২১ এর ভোটের আগে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় গোটা রাজ্যের মানুষের কাছে এই প্রচারই করেছিলেন, বাংলা কাকে চায়? ঘরের মেয়ে নাকি বাইরে থেকে আসা নেতাদের? এবারে তনিমা দেবীর প্রচারও যেনো একেবারে সেই কৌশলে চলছে। ৬৮ নম্বরের তৃণমূলের প্রার্থী সুদর্শনা দেবীর পদবী আবার মুখোপাধ্যায়। কাজেই মানুষ যেন তাঁকেই না আবার সুব্রত বাবুর বোন ভেবে না ফেলেন, তাই কী এই কৌশল? তনিমা দেবীও তাই বলছেন। তাঁর বক্তব্য সুব্রত বাবুর বোন তিনিই। তাই সেকথা স্পষ্ট করতেই এই এই ধরনের পোস্টার। তবে জোড়া ফুলের বিপরীতে জোড়া পাতার লড়াই এবং এহেন প্রচার কৌশল নজর কেড়েছে সকলের।

আপডেট থাকতে ফলো করুন আমাদের ইউটিউব , ফেসবুক, ট্যুইটার

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম

Categories