Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

উদ্বেগ বাড়াচ্ছে নতুন ভ্যারিয়েন্ট, ৩ দেশের যাত্রীদের নিয়ে সতর্কতার নির্দেশ কেন্দ্রের

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

ভারতের নতুন মাথাব্যথা এখন বি.১৫২৯। কারোনা ভাইরাসের এই নতুন ভ্যারিয়েন্ট একাধিক অভিযোজনের ফলে তৈরি হয়েছে। তাই নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে চিন্তায় গবেষকরা। তিনটি দেশে এখন পর্যন্ত বি.১৫২৯-এর সন্ধান মিলেছে। দেশ তিনটি হল- দক্ষিণ আফ্রিকা, হংকং আর বৎসোয়ানা। দেশ তিনটিতেই এই নতুন প্রজাতির ফলে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে করোনা গ্রাফ চড়চড় করে বাড়ছে। এদিকে আবার গতকাল (বৃস্পতিবার) থেকেই আন্তর্জাতিক বিমান পরিসেবা ধীরে ধীরে সচল করার ঘোষণা করেছে। কিন্তু ভারতের এখন চিন্তা বিদেশ থেকে আসা যাত্রীদের মধ্যে নতুন প্রজাতির ভ্যারিয়েন্ট বাহক রয়েছেন কি না।

এই নিয়ে গতকালই কেন্দ্রের স্বাস্থ্যসচিব রাজেশ ভূষণ সব রাজ্য ও কেন্দ্র শাসিত রাজ্যগুলিকে সতর্ক করেছেন। বৃহস্পতিবার স্বাস্থ্যমন্ত্রকের পক্ষ থেকে রাজ্যগুলিতে পাঠানো চিঠিতে বলা হয়েছে, যে যাত্রীরা ওই তিন দেশ থেকে আসবেন, তাঁদের ক্ষেত্রে বাড়তি সতর্ক থাকতে হবে। জোর দিতে হবে নজরদারি এবং পরীক্ষায়। তাঁদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের ক্ষেত্রেও সতর্কতা বজায় রাখতে হবে।

সংবাদসংস্থা পিটিআই জানিয়েছে, সম্প্রতি দক্ষিণ আফ্রিকায় কোভিড-১৯-এর একটি নয়া প্রজাতির হদিশ মিলেছে। যা আগে কখনও দেখা যায়নি। বৃহস্পতিবার দক্ষিণ আফ্রিকার তরফে জানানো হয়েছে, বি.১.১৫২৯ প্রজাতিতে এখনও পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছেন ২২ জন। এই প্রজাতির ভ্যারিয়েন্টের বিষয়ে লন্ডনের ইম্পেরিয়াল কলেজের ভাইরোলজিস্ট টম পিকক দাবি করেছেন, এর মধ্যেই দক্ষিণ আফ্রিকায় নতুন এই প্রজাতি যথেষ্ট পরিমাণে ছড়িয়ে পড়েছে।

যদিও বৃহস্পতিবার কেন্দ্রের সব রাজ্য এবং কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের মুখ্যসচিবদের লেখা চিঠিতে রাজেশ ভূষণ জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত দক্ষিণ আফ্রিকায় কোভিড-১৯-এর নতুন প্রজাতির বি.১.১৫২৯ ভ্যারিয়েন্টে আক্রান্ত হয়েছেন ছ’জন। বৎসোয়ানা এবং হংকঙে আক্রান্তের সংখ্যা যথাক্রমে তিন এবং এক। সেই পরিস্থিতিতে ওই তিন দেশ থেকে যে যাত্রীরা আসবেন, তাঁদের উপর জোরদার নজরদারি চালাতে হবে। করতে হবে পরীক্ষা। এমনকি তাঁদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের উপরও কড়া নজরদারি চালাতে হবে। সেইসঙ্গে গত ১১ নভেম্বর কেন্দ্রের তরফে যে যে দেশগুলি থেকে আগত যাত্রীদের ঝুঁকিপূর্ণ তালিকায় রাখা হয়েছে, তাঁদের ক্ষেত্রেও একইরকমভাবে নজরদারি চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্যসচিব।

এদিকে, বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এর আগে ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্টের ফলে সব দেশেই করোনা গ্রাফ হুহু করে বেড়েছে। নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট বি.১৫২৯ একইরকম ভাবে মারাত্মক হয়ে উঠতে পারে। নতুন এই ভ্যারিয়েন্টের স্পাইক প্রোটিনে ৩২টি মিউটেশন হয়েছে। বিশেষজ্ঞদের মধ্যে মিউটেশন যত বেশি হবে, তত বাড়বে ভাইরাসের সংক্রমণ ক্ষমতা। তাই নতুন এই ভ্যারিয়েন্ট নিয়ে উদ্বিগ্ন গোটা বিশ্ব।

আপডেট থাকতে ফলো করুন আমাদের ইউটিউব , ফেসবুক, ট্যুইটার

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম