Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

১৫.৯ বিলিয়ন মিনিট! ইতিহাসে জায়গা করে নিল টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভার‍ত-পাক ম্যাচ

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ক্রিকেটের আঙিনায় ভারত-পাক ম্যাচের আবেদন সম্পর্কে ধারণা আছে প্রত্যেক ক্রীড়া অনুরাগীরই। সদ্য সমাপ্ত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভ পর্বে মুখোমুখি হয়েছিল দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী। প্রতিবেশী দেশের কাছে ১০ উইকেটে লজ্জাজনক হারের মুখ দেখতে হলেও ঐতিহাসিক নজির গড়েছে বিশ্বকাপের ভারত পাক ম্যাচ। বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক ক্রিকেট সংস্থা দুবাইয়ে আয়োজিত ম্যাচটির ভিউয়ারশিপ ডাটা প্রকাশ করে। আইসিসির প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী দুবাইয়ে আয়োজিত সুপার টুয়েলভ পর্বের ভারত – পাক ম্যাচটি কেবলমাত্র ভারত থেকেই ১৫.৯ বিলিয়ন মিনিট দেখা হয়েছে। ২০০টি দেশের টেলিভিশন ও ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম মিলিয়ে ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ দেখা হয়েছে ১৬৭ মিলিয়ন বা ১০,০০০ ঘন্টার লাইভ কভারেজ।

দুবাইয়ে আয়োজিত সুপার টুয়েলভ ম্যাচে ভারতকে দশ উইকেটে হারিয়ে ইতিহাস গড়েন বাবর আজমরা। বিশ্বকাপের মঞ্চে এই প্রথমবার চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিরুদ্ধে জয় পেয়েছে পাকিস্তান। একপেশে ম্যাচে ভারতীয় ক্রিকেট অনুরাগীদের হৃদয়ভঙ্গ হলেও দর্শকসংখ্যার হিসাবে ইতিহাস গড়েছে স্টার ইন্ডিয়া নেটওয়ার্ক। কেবলমাত্র ভারত থেকেই বিশ্বকাপের হাইভোল্টেজ ম্যাচটি দেখা হয়েছে ১৫.৯ বিলিয়ন মিনিট। এর আগে সবচেয়ে বেশি দর্শক সংখ্যার নজিরটি ছিল ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ভারত-ওয়েস্ট ইন্ডিজ সেমিফাইনাল ম্যাচে।

বিরাটরা ২০২১ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের লিগ পর্ব থেকেই ছিটকে গেলেও ভারতীয় দর্শকরা সসম্পূর্ণ প্রতিযোগিতা উপভোগ করেছেন। শুধুমাত্র ভারত থেকেই বিশ্বকাপ দেখা হয়েছে ১১২ বিলিয়ন মিনিট । আইসিসি’র সিইও জিওফ অ্যালার্ডিস বলেন – ” ক্রিকেটের বিশ্বজনীন দর্শকসংখ্যার পরিসংখ্যান পেয়ে আমরা ভীষণ খুশি। কেবলমাত্র টেলিভিশনেই নয়, টি-টোয়েন্টি ক্রিকেট ডিজিটাল মাধ্যমের দর্শকদেরও আকর্ষন করে। ক্রিকেটের বাড়তে থাকা জনপ্রিয়তা ও খেলাটির প্রসারকে ঘিরে আমাদের যা বিশ্বাস রয়েছে এই পরিসংখ্যান তার ভিত্তিকে মজবুত করে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মতো দেশে ক্রিকেটের বাজার তৈরি হচ্ছে। স্পনসর, ব্রডকাস্টাররা এই খেলার সঙ্গে যুক্ত হতে চাইবেন। “

পাকিস্তানে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সম্প্রচারের দায়িত্ব পেয়েছিল পিটিভি, এআরওয়াই এবং টেন স্পোর্টস। ২০১৬ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের তুলনায় সেদেশের ভিউয়ারশিপ বেড়েছে ৭.৩ শতাংশ। ফেসবুকের সঙ্গে গাঁটছাড়া বেঁধে ডিজিটাল মাধ্যমেও বাজিমাৎ করেছে আইসিসি। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চলাকালীন আইসিসির ডিজিটাল কন্টেন্টের ভিউয়ারশিপ ছুঁয়েছে ৪.৩ বিলিয়ন।