Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

সুবর্ণ সুযোগ ! তথ্যপ্রযুক্তি শিল্পে সাড়ে ৪ লক্ষ কর্মী নিয়োগ, জেনে নিন বিস্তারিত

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

করোন ভাইরাস এখন অনেকটাই নিয়ন্ত্রণে। দ্রুত ছন্দে ফিরছে বিশ্ব। ভারত সহ বেশির ভাগ দেশেই হ্রাস পেয়েছে কোভিড-১৯ বিধি, তুলে নেওয়া হয়েছে লকডাউন। কর্মচারীরা ফের অফিসমুখো হচ্ছেন। মেট্রিক্স বেঞ্চমার্কিং এবং মার্কেট ইন্টেলিজেন্স ফার্ম ‍‘আনআর্থইনসাইট’-এর প্রতিবেদন অনুসারে, করোনার গ্রাফ কমার ফলে ভারতীয় তথ্য প্রযুক্তি পরিষেবা শিল্পগুলি ২০২২ সালের দ্বিতীয়ার্ধে (এচি২এফওয়াই২২) প্রায় চার লক্ষ পঞ্চাশ হাজার লোক নিয়োগের পরিকল্পনা করছে। ‘আনআর্থইনসাইট’-এর মতে, এই নিয়োগগুলি মূলত হবে পার্টটাইম ও অভিজ্ঞ কর্মচারীদের জন্য। তবে, ফ্রেশার নিয়োগও গত বছরের তুলনায় কিছুটা বেশিই হবে।

আগামী বছরের দ্বিতীয়ার্ধে ১৭-১৯ শতাংশ নিয়োগ বৃদ্ধি পাবে আইটি পরিসেবা শিল্পে। এক্ষেত্রে প্রায় ১,৭৫,০০০ কর্মী সংযোজন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে৷ ফার্মের নিয়োগের অনুমান অনুসারে, দেশে ৩০টিরও বেশি দেশীয় এবং বহুজাতিক প্রযুক্তি সংস্থায় এফওয়াই২২-এ এখনও পর্যন্ত ২,৫০,০০০ জনেরও বেশি ফ্রেশার যুক্ত হয়েছেন। এফওয়াই২২-এর নিয়োগ ড্রাইভে, শীর্ষ পাঁচটি কোম্পানি যেগুলি আরও নতুনদের নিয়োগ দিতে পারে তার মধ্যে রয়েছে- টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিসেস, কগজ্যিান্ট, ইনফোসিস, টেক মহীন্দ্রা এবং এইচসিএল টেকনোলজিস।

রিপোর্ট অনুসারে, এফওয়াই২২-এ, টাটা কনসালটেন্সি সার্ভিসেস সম্ভবত ৭৭,০০০ ফ্রেশারদ (৪৩,০০০ এইচ১এফওয়াই২২-এ এবং এইচ২এফওয়াই২২-এ ৩৪,০০০) নিয়োগ করতে চলেছে। কগনিজ্যান্ট জানিয়েছে তারা ৪৫,০০০ ফ্রেশার নিয়োগ করবে। যেখানে ইনফোসিস করবে ৪৫,০০০ ফ্রেশার, টেক মাহিন্দ্রা ১৫,০০০ফ্রেশার এবং এইচসিএল টেকনোলজিস এফওয়াই২২-এ ২২,০০০ এবং এফওয়াই২৩-এ ৩০,০০০০ ফ্রেশার নিয়োগ করবে।

আপস্কিলিং প্রোগ্রামগুলিতে ফোকাস:


রিপোর্ট অনুসারে, বেশিরভাগ ভারতীয় আইটি সংস্থাগুলি মূলত ভারত এবং বিশ্ব বাজারে উভয় ক্ষেত্রেই দক্ষতা বৃদ্ধির প্রোগ্রামগুলিতে ফোকাস করছে৷ টিসিএল আঘধএন লার্নিং প্ল্যাটফর্মে একাধিক লার্নিং টুলস এবং তার বিশ্বব্যাপী কর্মশক্তিকে পুনঃস্কিল করার উদ্যোগ নিয়েছে। ইনফোসিস কর্মচারীদের ৯০ শতাংশকে 90% লেক্স-এর মাধ্যমে প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। লেক্স একটি প্ল্যাটফর্ম যা তাদের সংস্থার ক্রমবর্ধমান প্রয়োজনীয়তা মিটিয়ে পুনরায় দক্ষতা বৃদ্ধি ও উন্নত করতে সাহায্য করে। যাইহোক, আনআর্থইনসাইট আশা করে যে এফওয়াই২২-এর অর্ধেক অ্যাট্রিশন গত ১২ মাসের (এলটিএম) তুলনায় ১৭-১৯ শতাংশ বেশি হবে, যা এফওয়াই২৩-এ হতে পারে ১৬-১৮ শতাংশ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে যে আগামী দুই আর্থিকবর্ষে নতুন সংযোজন সম্ভবত আইটি পরিষেবা সংস্থাগুলিকে শিল্পে সামগ্রিক অবক্ষয় নিয়ন্ত্রণে সহায়তা করবে। আনআর্থইনসাইট রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে যে শিল্পের ক্ষয়ক্ষতির বৃদ্ধি মূলত সরবরাহ-সদৃশ চ্যালেঞ্জ দ্বারা চালিত হয় যা ক্ষণস্থায়ী এবং এফওয়াই২৩ থেকে স্বাভাবিক হওয়ার আশা করা হচ্ছে।

আইটি জায়ান্টদের মধ্যে ক্লাউড প্রতিযোগিতা:


আনআর্থইনসাইট ২০৩০ সালের মধ্যে আইটি পরিষেবা শিল্পের জন্য ৮০ বিলিয়ন ডলার থেকে ১০০ বিলিয়ন ডলার ক্লাউড পরিসেবা রাজস্ব অনুমান করেছে। এটি অ্যাকেনচার-এর মতো কোম্পানিগুলির দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে যা ক্লাউড ইন্ডাস্ট্রি এক্স এবং সুরক্ষায় অত্যন্ত শক্তিশালী দ্বি-সংখ্যা বৃদ্ধি রেকর্ড করেছে। গত দু’বছরে ইনফোসিস ডিজিটাল রূপান্তর প্রকল্পগুলিকে স্কেল করার জন্য কৌশলগত ফোকাসকে পুনরুদ্ধার করেছে। সেই সঙ্গে বিক্রয়ের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য বিনিয়োগ করেছে। তারা বৃহৎ চুক্তিতে অংশগ্রহণও বৃদ্ধি করেছে। ইতিমধ্যে, এইচসিএল টেকনোলজিস অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিসেস (এডব্লিউএস) বিজনেস ইউনিটে ১০,০০০ কর্মীকে নিয়োগের আশা করছে। উইপ্রো ফুল স্ট্রাইড ক্লাউড পরিষেবা চালু করেছে যা ক্লাউড স্টুডিও-ভিত্তিক সম্পদের সঙ্গে তাদের পরামর্শ এবং প্রযুক্তির ক্ষমতাকে একীভূত করে। টেক মাহিন্দ্রাও ক্লাউডকে তার বৃদ্ধির অন্যতম স্তম্ভ হিসাবে উচ্চ গ্রহণের পূর্বাভাস দিয়েছে এবং সামগ্রিক গ্রাহক অভিজ্ঞতার যাত্রা চালাতে সামগ্রিক ক্লাউড কৌশল প্রদানের উপর ফোকাস অব্যাহত রেখেছে। আনআর্থইনসাইট মনে করে যে সংস্থাগুলির উচতি অ্যামাজন, গুগল এবং কয়েকটি বিশেষ খেলোয়াড়ের মতো বিশ্বব্যাপী ক্লাউড অনুশীলনের সঙ্গে তার অংশীদারিত্ব বাড়ানোর দিকে মনোনিবেশ করা।

আনআর্থইনসাইট বলেছে যে, টিসিএস, ইনফোসিস এবং এইচসিএল ইউএস, দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া এবং ভারতে সম্প্রসারণ অব্যাহত রাখবে। যখন অ্যালগোনমি (পূর্ববর্তী মন্থন), ৩আই, পারসিসটেন্ট, র্যা মকো, ফাইনানশিয়াল টেকনোলজি, ডেসিমাল টেকনোলজিস ও অনেক প্রাইভেট টায়ার ২ এবং টায়ার ৩ ফার্ম বিশ্ববাজারে পণ্য/প্ল্যাটফর্ম থেকে আয়ের জন্য আর বিনিয়োগ ও কর্মী নিয়োগ করবে।

আপডেট থাকতে ফলো করুন আমাদের ইউটিউব , ফেসবুক, ট্যুইটার

সব খবর সবার আগে, আমরা খবরে প্রথম