Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নতুন আইপিএল ফ্র‍্যাঞ্চাইজি সিভিসি ক্যাপিটালের বেটিং সংযোগ নিয়ে তদন্তে বিসিসিআই

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

সদ্য দুবাইতে আয়োজিত নিলামে নয়া দুই আইপিএল ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিকানা পেয়েছে আরপি-সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গ্রুপ ও সিভিসি ক্যাপিটাল। বিপুল অঙ্কের টাকা খরচ করে দল কেনার পরও প্রশ্নবিদ্ধ সিভিসি ক্যাপিটাল। ৫,৬২৫ কোটি টাকার বিনিময়ে আহমেদাবাদ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিকানা পাওয়া সংস্থাটির বিরুদ্ধে বেটিং সংযোগের অভিযোগ উঠেছে।

সিভিসি ক্যাপিটালের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগটিকে গুরুত্ব দিয়ে দেখছে বিসিসিআইও। নিয়ম অনুযায়ী, বেটিংয়ের সঙ্গে জড়িয়ে থাকা কোন ধরনের সংস্থার সঙ্গেই সম্পর্ক রাখতে পারবে না ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। সিভিসি ক্যাপিটাল বিতর্কে কোনও রকম সরকারি বক্তব্য প্রকাশ না করলেও সংশ্লিষ্ট মহলের দাবি বিষয়টি নিয়ে তদন্ত শুরু করেছে বিসিসিআইয়ের আইনি দল। এই তদন্তের ভিত্তিতেই নির্ধারিত হবে সিভিসির ভাগ্য। বেটিং সংস্থার যোগসূত্র প্রমাণ হলে তারা আহমেদাবাদ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিকানা হারাতে পারেন। বিসিসিআইয়ের নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক কর্মকর্তা ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে জানান – ” এখনও সমস্ত ফর্মালিটি সম্পূর্ণ হয়নি। বিসিসিআইয়ের আইনি দল নথিপত্র খুঁটিয়ে পরীক্ষা করছে, দীপাবলির পর এই সংক্রান্ত বিষয়ে স্পষ্ট তথ্য জানা যাবে। কোন দল কাদের কে দেওয়া হবে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়ার সম্পূর্ণ অধিকার ভারতীয় বোর্ডের কাছে রয়েছে। “

সিভিসির মালিকানা বাতিল হলে নয়া পরিস্থিতি

বিসিসিআইয়ের আইনি দলের তদন্তে সিভিসি ক্যাপিটালের সঙ্গে বেটিং সংস্থার যোগসূত্র উঠে এলে বড় সড় বিপদে পড়বে এই বিনিয়োগকারী সংস্থা। আহমেদাবাদ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিকানাও হারাতে পারে সিভিসি। সেক্ষেত্রে ফ্র‍্যাঞ্চাইজিটির নয়া দাবীদার হবে আদানী গোষ্ঠী। দুবাইয়ে আয়োজিত নিলামে আহমেদাবাদ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির জন্যে ৫১০০ কোটি টাকা দর হেঁকেছিলেন গৌতম আদানীরা। তারা তৃতীয় স্থান পান। ৫৬২৫ কোটি টাকার বিনিময়ে শেষ হাসি হেসেছিল সিভিসি ক্যাপিটালই।

কেন সমস্যায় সিভিসি ক্যাপিটাল?

ফর্মূলা ১, লা লিগা, রাগবি লিগের পর এই প্রথম ক্রিকেটে বিনিয়োগ করেছে সিভিসি ক্যাপিটালস। এই সংস্থাটির সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়িয়ে তাদের অধীনে থাকা পোর্টফোলিও কোম্পানিগুলি। টিপিকো, সিসাল নামের দুটি বেটিং, গেমিং ওয়েবসাইটস রয়েছে সিভিসির। বেটিং সংযোগের বিষয়ে প্রথম অভিযোগ তোলেন প্রাক্তন আইপিএল কমিশনার ললিত মোদী।তার ট্যুইট –

এরপরই নড়েচড়ে বসেছে বিসিসিআই।