Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বাংলাদেশকে লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স প্রদান ভারতের, কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করার প্রতিশ্রুতি

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

সম্প্রতি বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেছেন, ‘বাংলাদেশে সব ধর্মের মানুষ দুর্গোৎসবের আনন্দ উপভোগ করেছেন। আনন্দঘন পরিবেশে দুর্গাপুজা হয়েছে। এই অন্তর্ভুক্তিমূলক ঐতিহ্য ৭১-এর মুক্তিযুদ্ধের আদর্শকে প্রতিফলিত করে।’ ভারত সম্প্রতি কোভিড-১৯ পরিস্থিতি মোকাবেলায় বাংলাদেশকে সহায়তা করার প্রয়াসে ৩১টি লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্স এবং অন্যান্য চিকিৎসা সরঞ্জাম উপহার দিয়েছে। রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন পদ্মায় এক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী আনুষ্ঠানিকভাবে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ডা. এ কে আব্দুল মোমেনের কাছে সরঞ্জাম ও অ্যাম্বুলেন্স হস্তান্তর করেন। এই বছরের মার্চ মাসে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর বাংলাদেশ সফরের সময় ঘোষিত একটি কর্মসূচির অংশ হিসাবে সরবরাহ করা মোট ১০৯টি লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্সের মধ্যে বাকিগুলো শীঘ্রই বিতরণ করা হবে বলে জানিয়েছে ভারতীয় হাইকমিশন।

লাইফ সাপোর্ট অ্যাম্বুলেন্সের চাবি তুলে দেওয়ার অনুষ্ঠানে নিজের বক্তব্যে বিক্রম দোরাইস্বামী জানান, ‘অ্যাম্বুলেন্সটি আধুনিক জরুরি জীবন রক্ষাকারী যন্ত্রপাতি দিয়ে সজ্জিত। যা চিকিৎসার জন্য হাসপাতালগামী রোগীদের জরুরি সেবা এবং ট্রমা লাইফ সাপোর্ট দেবে। করোনার পরও এটি এ দেশের মানুষের জন্য মানসম্মত চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করবে।’ বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোরাইস্বামী বলেছেন, ‘১৯৭১ সালে স্বাধীনতা যুদ্ধের সময় ভারত-বাংলাদেশ যেভাবে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করেছে, বর্তমানেও দুই দেশের সরকার তেমন সম্পর্ক উন্নয়ন করে উন্নয়নমূলক কাজ করে চলেছে।’ ভারতীয় হাইকমিশনার বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের বলিষ্ঠ নেতৃত্বের কারণেই বাংলাদেশ স্বাধীন হয়েছে। এ দেশের সব ধর্মের মানুষ দুর্গাপূজায় আনন্দ উপভোগ করেন, যা বাস্তবিকই একটি বিরল দৃষ্টান্ত।’

সেই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘সবার সন্তানদের উন্নতির জন্য প্রয়োজন, বন্ধুত্ব এবং পারস্পরিক সহযোগিতা। প্রত্যেকেরই শিক্ষার অধিকার রয়েছে। সোনার বাংলা গড়ার জন্য শেখ মুজিবরের স্বপ্নকে সাকার করার জন্য খুবই উদ্যোগী বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দু’টি দেশকেই যৌথ ভাবে এগিয়ে আসা উচিত।’ এবার বাংলাদেশের স্বাধীনতাপ্রাপ্তির ৫০তম বছর। এই প্রসঙ্গে ভারতীয় হাইকমিশনার জানান, ‘এই উৎসব সবার, এই উৎসবের সাফল্য কামনা করি।’ সেই সঙ্গে অনুপ্রবেশ নিয়ে বলতে গিয়ে তিনি বলেন, গোটা বিশ্ব জুড়েই এই সমস্যা চলছে। নিজের ভাষণ শেষে ‘জয় বাংলার জয়, জয় হিন্দ, বন্ধুত্ব চিরজীবী’ বলে উপস্থিত সকলের মন কেড়ে নেন বিক্রম দোরাইস্বামী।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ