Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

নিজেদের শক্তি বোঝাতে ছোট্ট দেশ তাইওয়ানের উপর চাপ বাড়াচ্ছে চীন

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

এদিকে ভারত যখন সামরিক দিক থেকে ক্রমশ নিজেদের শক্তিশালী করে তুলছে তখন চীন নিজের ক্ষমতা প্রদর্শনে চোখ রাঙিয়ে চলেছে ছোট্ট দ্বীপ রাষ্ট্র তাইওয়ানের উপর। তবে তাইওয়ানও আর চীনকে ভয় পেতে রাজি নয়। নিজেদের ঘুঁটি সাজাতে শপরপ করে দিয়েছে তারা। ইতিমধ্যে চীন ও আমেরিকার মধ্যে ক্রমবর্ধমান উত্তেজনাকে আরও একটু উস্কে দিয়েছে দেশটি। মঙ্গলবার তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন জানান, বেজিং থেকে প্রতিদিনই হুমকি বাড়ছে। এ সময় দেশটির সেনাবাহিনীর ট্রেনিং-এর জন্য মার্কিন সামরিক বাহিনীর অবস্থানের কথাও জানান তিনি।

কী বলেছেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট?

সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে সাই ইং-ওয়েন বলেন, ‘চীনের দক্ষিণ-পূর্বের সীমান্ত থেকে মাত্র ২০০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত তাইওয়ান। দেশের মানুষের গণতন্ত্রের উপর আস্থা ধরে রাখতেই আমাদের একে রক্ষা করতে হবে।’

প্রায় সাত দশক ধরে নিজস্ব রাষ্ট্রব্যবস্থায় চললেও এখনও তাইওয়ানের ওপর নিজেদের সার্বভৌমত্বের দাবি করে চলেছে চীন। তাদের এমন দাবির জবাবেই আমেরিকার সঙ্গে বন্ধুত্ব দৃঢ় করছে তাইওয়ান। সাই ইং-ওয়েন জানান, ‘এই দ্বীপের প্রায় ২৩ মিলিয়ন জনগণ নিজেদের অবস্থা এবং রাষ্ট্রের উন্নয়নে প্রতিনিয়ত চেষ্টা করে যাচ্ছে, যাতে তাঁরা একটি আদর্শ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে বসবাস করতে পারে। এখন যদি আমরা এই লড়াইয়ে হেরে যাই, তাহলে দেশের জনগণ নিজেদের সামর্থ ও দেশের গণতন্ত্রের ওপর আস্থা হারিয়ে ফেলবেন।’

এর আগেও তাইওয়ান চীনের চাপের কাছে মাথা নত করবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন। সাম্প্রতিক সময়ে তাইওয়ানের জাতীয় দিবসের সমাবেশে দেওয়া বক্তব্যে তিনি বলেন, ‘তাইপে তাড়াহুড়ো করে কোনও কিছু করবে না। পাশাপাশি এমন কোনো ভুল ধারণা থাকা উচিত নয় যে, তাইওয়ানের জনগণ কোনও চাপের মুখে মাথা নত করবে। আমরা আমাদের জাতীয় প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করা অব্যাহত রাখব। আত্মরক্ষার জন্য দৃঢ় প্রত্যয় প্রদর্শন করব। তাইওয়ানকে চীন যে প্রস্তাব দিয়েছে তা মেনে নিতে কেউ বাধ্য করতে না পারে।’

চীনের প্রস্তাব- এক দেশ, দুই সিস্টেম মডেল:


এ প্রসঙ্গে সাই ইং-ওয়েন যোগ করেন, ‘এর কারণ হল, চীন আমাদের জন্য যে প্রস্তাব দিয়েছে সেটি একটি স্বাধীন ও গণতান্ত্রিক জীবনযাপনের অধিকার দেয় না। প্রস্তাবটিতে আমাদের ২৩ মিলিয়ন জনগণের জন্য কোনও সার্বভৌমত্বও নেই।’ স্বায়ত্তশাসিত তাইওয়ানকে এক দেশ, দুই সিস্টেম মডেলের প্রস্তাব দিয়েছে চীন। হংকংয়ের সঙ্গে বেজিংয়ের যেমন সম্পর্ক অনেকটা তেমনই। তবে তাইওয়ানের সব রাজনৈতিক দল এই প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ