Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

অগ্নি-৫ সফল উৎক্ষেপণ, চওড়া হচ্ছে চীনের কপালের ভাঁজ!

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

বুধবার সন্ধ্যা ৭.৫০ মিনিট নাগাদ ওডিশা উপকূলে এপিজে আবদুল কালাম দ্বীপ থেকে অগ্নি-৫ নিখুঁত ভাবে উৎক্ষেপণ করে চীনকে কড়া বার্তা দিয়েছে ভারত। অগ্নি-৫-এর সফল উৎক্ষেপণ ভারত ঠারেঠারে প্রতিবেশী দেশটিকে দেশটিকে বুঝিয়ে দিয়েছে, বাড়াবাড়ি নয়, বরং শান্তি স্থাপনের চেষ্টা করুক চীন।সম্প্রতি, জল্পনা শুরু হয়েছিল চিনের হাইপারসনিক মিসাইল পরীক্ষা নিয়ে। যদিও সেই জল্পনা উড়িয়ে দিয়েছিল বেজিং। বেজিং গত অগাস্ট মাসে একটি পারমাণবিক সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্র মহাকাশে উৎক্ষেপণ করে। কিন্তু গোটা বিশ্ব একপাক খেয়ে চিনের মিসাইলটি লক্ষ্যবস্তু ভেদ করতে ব্যর্থ হয়। পৃথিবীকে নিম্ন কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করে মিসাইলটি লক্ষ্য থেকে ৩২ কিলোমিটার দূরে গিয়ে পড়ে। এর মধ্যেই হাইপারসনিক মিসাইলের প্রযুক্তির সফল পরীক্ষা করে ফেলেছে আমেরিকা। ভার্জিনিয়ার ওয়ালপসে নাসার একটি কেন্দ্রে এই পরীক্ষাটি হয়। নৌবাহিনীর নকশা করা হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র তৈরির ক্ষেত্রে একটি গুরুত্বপূর্ণ বলে জানায় মার্কিন নৌবাহিনী। আর এবার ভারতও সফল ভাবে অগ্নি-৫ উৎক্ষেপণ করে দেখিয়ে দিল বিশ্বের শক্তিধর যে কোনও দেশকে চ্যালেঞ্জ জানাতে পারে তারা। বিশেষ করে প্রতিবেশী চীনকে ভারত বুঝিয়ে দিয়েছে, বেশি বাড়াবাড়ি করলে ফল বুঝতে হবে তাদের।

কী এই অগ্নি-৫?


অগ্নি-৫ ব্যালিস্টিক মিসাইলটি হল একটি সারফেস-টু-সার্ফেস ক্ষেপণাস্ত্র। এটি সঠিকভাবে ৫০০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে সক্ষম। ফলে এই শক্তিশালী ক্ষেপণাস্ত্রটিকে চিনের বিরুদ্ধে ভারতের একটি শক্তিশালী বার্তা হিসাবেই দেখা হচ্ছে। ভারতে এই প্রথম কোনও মিসাইলের পরীক্ষা হল রাতে। পরীক্ষার পর বিজ্ঞানীরা পাঁচ হাজার কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যমাত্রা সফল হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। এই অগ্নি-৫ এর ওজন ৫০ টন, উচ্চতা ১৭ মিটার এবং এটি শব্দের গতির থেকে ২৪ গুন দ্রুত ছোটে।

অগ্নি-৫ একটি আন্তঃমহাদেশীয় ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র। এটি আইসিবিএম-এর বিভাগে পড়ে। ক্ষেপণাস্ত্রটি একটি তিন-পর্যায়ের কঠিন জ্বালানী ইঞ্জিন ব্যবহার করে এবং খুব উচ্চ মাত্রার লক্ষ্যবস্তুতে নির্ভুলভাবে আঘাত করতে পারে। অগ্নি-৫-এর সফল পরীক্ষা ভারতের ‘বিশ্বাসযোগ্য ন্যূনতম প্রতিরোধ’ নীতির সঙ্গে সঙ্গতিপূর্ণ যা ‘প্রথম ব্যবহার না করার’ প্রতিশ্রুতির ভিত্তিতে তৈরি হয়েছে।

পৃথিবীর সমস্ত শক্তিশালী দেশগুলির সঙ্গে পাল্লা দেওয়ার ক্ষমতা রাখে ভারত:


সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী বলেছিলেন, ‘পৃথিবীর সমস্ত শক্তিশালী দেশগুলির সঙ্গে পাল্লা দেওয়ার ক্ষমতা রাখে ভারত।’ তাঁর সেই বার্তাই যেন খানিকটা বাস্তবায়িত হল অগ্নি-৫-এর উৎক্ষেপণে। পাঁচহাজার কিলোমিটার পর্যন্ত পাড়ি দিয়ে শত্রু ঘাঁটি উড়িয়ে দিতে সক্ষম এই অগ্নি-৫। সূত্রের খবর, স্ট্র্যাটেজিক ফোর্সেস কমান্ড (এসএফসি)-র হাতে থাকবে এই মিসাইল। শত্রু আক্রমণ হলে ধ্বংসলীলা চালানোর মতো ক্ষমতা রাখে এই মিসাইল।

অগ্নি সিরিজ:


অগ্নি সিরিজের একাধিক মিসাইল ও যুদ্ধ বিমান মজুত আছে ভারতের কাছে। এমনকী, ভারত এমন অস্ত্র আনছে যেটা শব্দের চেয়েও ছয় গুণ বেশি গতি সম্পন্ন। ওডিশাতে এই হাইপারসোনিক টেকনোলজি ডেমোনস্ট্রেটর ভেহিকেলের সফল পরীক্ষাও হয়েছে। একমাত্র আমেরিকা, চীন ও রাশিয়ার কাছে রয়েছে এই ধরনের অস্ত্র। অগ্নি-১ থেকে অগ্নি-৫ ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর নকশা প্রণয়ন ও নির্মাণ করেছে ভারতের ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন (ডিআরডিও)। সেগুলোর মধ্যে ৭০০০ কিলোমিটার দূরের লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারে অগ্নি-৫। আর অগ্নি-২–এর দুই হাজার কিলোমিটার পাড়ি দেওয়ার সক্ষমতা রয়েছে। অন্যদিকে ভারতের দাবি, অগ্নি–৩ ও ৪ পাড়ি দিতে পারে ২ হাজার ৫০০ থেকে ৩ হাজার ৫০০ কিলোমিটার। এদিকে গত জুনে পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম ‘অগ্নি প্রাইম’ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণ করে ভারত। এটি অগ্নিশ্রেণির ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর আরও অত্যাধুনিক সংস্করণ। ওই ক্ষেপণাস্ত্রও ওডিশা উপকূল থেকে উৎক্ষেপণ করা হয়।

চীনের একেবারে উত্তরাঞ্চলের এলাকাগুলোও ভারতের ক্ষেপণাস্ত্রের সীমানায়:


চীনের সঙ্গে চলমান দ্বন্দ্বের মধ্যে সফলভাবে অগ্নি-৫ ক্ষেপণাস্ত্রের পরীক্ষামূলক উৎক্ষেপণের কথা জানিয়েছে ভারত। ভারতের বিদেশমন্ত্রকের উল্লেখ করে টাইমস অব ইন্ডিয়া জানিয়েছে, ক্ষেপণাস্ত্রটির সফল উৎক্ষেপণের মধ্য দিয়ে চীনের একেবারে উত্তরাঞ্চলের এলাকাগুলোও ভারতের ক্ষেপণাস্ত্রের সীমানার মধ্যে এল। ভারতের এই ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে আঞ্চলিক প্রতিপক্ষ চীনের প্রতি একটি হুঁশিয়ারি বলে মনে করছেন বিশ্লেষকেরা।

চীন পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ:


গত আগস্টে চীন পারমাণবিক অস্ত্র বহনে সক্ষম হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করে । ওই ক্ষেপণাস্ত্রটি পৃথিবীর কক্ষপথে পরিভ্রমণের পর ভূপৃষ্ঠে নেমে আসে। যদিও লক্ষ্যবস্তুতে আঘাত হানতে পারেনি চীনের মিসাইল। কিন্তু তাদের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে আমেরিকা। ব্লুমবার্গ টেলিভিশনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মার্কিন জয়েন্ট চিফ অব স্টাফের চেয়ারম্যান জেনারেল মার্ক মিলি বলেছেন, ‘চীনের হাইপারসনিক ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাকে প্রযুক্তির তাৎপর্যপূর্ণ উৎকর্ষসাধন ঘটনা এবং খুব উদ্বেগের।’

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ