Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ভিডিও : পাকিস্তানের মাটিতেই আগুনে শোয়েব আখতারকে চোখে সর্ষেফুল দেখিয়েছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

১৫ই অগস্ট, ২০২০ – আন্তর্জাতিক ক্রিকেটকে বিদায় জানিয়েছিলেন দুইবারের বিশ্বকাপজয়ী ভারতীয় দলের অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি। ভারতীয় দলের চিরপরিচিত জার্সিতে দেখা না মিললেও আইপিএলে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলেন ক্যাপ্টেন কুল। সদ্য নিজের ফ্র‍্যাঞ্চাইজিকে চতুর্থবার আইপিএল শিরোপা এনে দিয়েছেন। ধোনির ব্যাটিংয়ে বয়সের ছাপ পড়লেও মগজাস্ত্রের ধার একফোঁটাও কমেনি। চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভার‍তীয় দলের মেন্টর হিসাবে কাজ করছেন ধোনি।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেও মহেন্দ্র সিং ধোনির বেশ কিছু ইনিংসের কথা সারাজীবন মনে রাখবেন ভারতীয় ক্রিকেট প্রেমীরা। ২০০৬ সালের জানুয়ারি মাসে টেস্ট ক্রিকেটে নিজের প্রথম শতরান করেছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের মাটিতেই শোয়েব আখতারদের শাসন করেছিলেন ছোট্ট শহরের লম্বা চুলের ছেলেটি। ১৫৩ বলে ১৪৮ রানের ঝোড়ো ইনিংস খেলে শোয়েব আখতার, মহম্মদ আসিফ, আব্দুর রজ্জাকদের ঘুম কেড়ে নিয়েছিলেন ধোনি।

দেখুন সেই ইনিংসের ভিডিও

ফয়জালাবাদে আয়োজিত টেস্টটির প্রথম ইনিংসে ৫৮৮ রানের পাহাড় খাড়া করে পাকিস্তান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ২৫৮ রানে চার উইকেট হারিয়ে ফেলে ভারত। ক্রিজে আসেন ধোনি। তিন ওভারের মধ্যে সচিনকেও প্যাভিলিয়নে ফিরিয়েছিলেন শোয়েব আখতার। প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্যেও নিজের স্বাভাবিক ক্রিকেট খেলেছিলেন ধোনি। চার মেরে ইনিংস শুরু করবার পর একের পর এক বাউন্ডারি। ধোনির সামনে দিশা হারিয়ে ফেলেছিলেন পাক বোলাররা। মাহির তান্ডবের সামনে পড়েন আগুনে ফর্মে থাকা শোয়েব আখতারও।

লম্বা রান আপ আর প্রবল গতি – এই দুইটি বৈশিষ্ট্যর জন্যেই শোয়েব আখতারকে ‘রাওয়ালপিন্ডি এক্সপ্রেস’ বলে চেনে গোটা ক্রিকেটবিশ্ব। তার প্রবল গতির সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করেছে তাবড় তাবড় ব্যাটাররা। সেই শোয়েবদের সামনেই ৩৪ বলে অর্ধশতরান করেন সদ্য আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখা ধোনি। অজ্ঞাতকুলশীল ব্যাটারের চরম ঔদ্ধত্য মেনে নিতে পারেননি শোয়েব। ঘন্টাপ্রতি ১৫৬ কিলোমিটার গতির বিমারও করেছিলেন পাক পেসার। তাতেও টলানো যায়নি ধোনিকে। শোয়েবের এক ওভারে টানা তিনটি চার মারেন এই ডানহাতি ব্যাটার।

কেন আলোচনায় এই ভিডিও?

চলতি টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সুপার টুয়েলভের প্রথম ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে হারের মুখ দেখেছেন বিরাট কোহলি। এর আগে কোনও ফরম্যাটের বিশ্বকাপেই ভারতকে হারাতে পারেনি প্রতিবেশী দেশটি। স্বাভাবিক ভাবেই ২৯ বছরের লজ্জাজনক পরম্পরার ইতি টানা ঐতিহাসিক জয়ে পরম উৎফুল্ল পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটাররাও। ভার‍তকে কটাক্ষ করতে গিয়ে কুৎসিত মন্তব্যও করে ফেলছেন ওয়াকার ইউনুসরা। যার জবাব দিতে গিয়ে অতীতের ভারত-পাক ম্যাচের ভিডিও উঠে আসছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।