Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

সুখবর! ৬০ টাকা লিটারে মিলবে জ্বালানী, আসছে ফ্লেক্স ফুয়েল

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

প্রতিদিনই দ্রুত বাড়ছে পেট্রোল-ডিজেলের দাম। অতিষ্ঠ হয়ে পড়েছেন সাধারণ মানুষ। পেট্রল-ডিজেলের দমা বাড়ায় বাড়ছে নিত্যপ্রয়োজনীয় বস্তুর দামও। ইতিমধ্যেই পেট্রোল এবং ডিজেলের দাম ১০০ টাকা ছাড়িয়েছে। এবার সরকার দেশে পেট্রোল এবং ডিজেলের নির্ভরতা কমানোর পরিকল্পনা করছে। শীঘ্রই দেশে ফ্লেক্স-ফুয়েল আনতে চলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। সম্প্রতি কালে আমরা সবাই ফ্লেক্স-ফুয়েল গাড়ি এবং ফ্লেক্স-ফুয়েল সম্পর্কে শুনলেও এ সম্পর্কে বিস্তারিত জানি না।

ফ্লেক্স ফুয়েল জ্বালানি আসলে কী?


নাম অনুসারে- ফ্লেক্স-ফুয়েল হল ইথানলের সঙ্গে মিশ্রিত জ্বালানী, যা গাড়িতে ব্যবহার করা যায়। এটি হল গ্যাসোলিন এবং মিথানল বা ইথানলের সংমিশ্রণ থেকে তৈরি একটি বিকল্প জ্বালানী। একটি ইভি-এর তুলনায়, একটি ফ্লেক্স-ইঞ্জিন মূলত একটি স্ট্যান্ডার্ড পেট্রোল ইঞ্জিন, এটি কিছু অতিরিক্ত উপাদান যা এক বা একাধিক জ্বালানি মিশ্রণে চলে। কিন্তু ইভির তুলনায় কম খরচে ফ্লেক্স ইঞ্জিন তৈরি করা হয়। সরকার এ বিষয়ে দ্রুত কাজ করছে।

ছ’মাসের মধ্যে বাধ্যতামূলক হচ্ছে ফ্লেক্স ফুয়েল


পিটিআই-এর খবর অনুযায়ী, সাম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে কেন্দ্রে সড়ক ও পরিবহণমন্ত্রী নীতিন গডকড়ি বলেছেন, সরকার ফ্লেক্স ফুয়েল ইঞ্জিন ব্যবহার নিশ্চিত করবে এবং তা আগামী ৬ মাসের মধ্যে বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। তিনি বলেন, সব ধরনের যানবাহনের জন্য এই নিয়ম করা হবে। এছাড়াও, সমস্ত অটো কোম্পানিকে তাদের যানবাহনে ফ্লেক্স ফুয়েল ইঞ্জিন লাগানোর নির্দেশ দেওয়া হবে।

সরকার শীঘ্রই নির্দেশিকা জারি করবে


সরকার শীঘ্রই নির্দেশিকা ঘোষণা করতে পারে এবং ভবিষ্যতে গাড়ি নির্মাতাদের ফ্লেক্স ফুয়েল ইঞ্জিন অফার করতে বাধ্য করবে। এছাড়াও এটি ইভি-র চেয়ে বেশি ব্যবহারিক হওয়ায়, বর্তমান জ্বালানী পাম্পগুলি পেট্রোল/ডিজেলের সঙ্গে জৈব-জ্বালানিও সরবরাহ করবে। বায়োইথানলের দাম প্রতি লিটার পেট্রোলের তুলনায় অনেক কম।

সস্তায় গাড়ি চালাতে পারবেন


যদি ফ্লেক্স ফুয়েল ইঞ্জিন বাধ্যতামূলক হয়ে যায় তাহলে মানুষ ইথানলেও তাদের গাড়ি চালাতে পারবেন। ইথানলের দাম প্রতি লিটারে ৬৫-৭০ টাকা, যেখানে পেট্রোলের দাম বর্তমানে প্রতি লিটারে ১০০ টাকা বা কোথাও কোথাও তারও বেশি।

ফ্লেক্স ফুয়েল ইঞ্জিন কেমন হয়?


ফ্লেক্স ইঞ্জিনের যানবাহনগুলি জ্বালানী ইঞ্জিন দ্বারা চালিত যানবাহনগুলির থেকে বেশ আলাদা। বাই ফ্লু ইঞ্জিনে বিভিন্ন ট্যাঙ্ক রয়েছে। এদিকে, ফ্লেক্স ফুয়েল ইঞ্জিন একই ট্যাঙ্কে অনেক ধরণের জ্বালানী রাখতে সক্ষম। এই ধরনের ইঞ্জিনগুলি বিশেষভাবে ডিজাইন করা হয়েছে। যানবাহনে এই ধরনের ইঞ্জিন বসানোর কথা বলছেন দেশের পরিবহণ মন্ত্রী।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ