Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

আদানি, টাটা স্টিল, টেক মাহিন্দ্রার থেকেও দামি শিবা ইনু, নতুন উচ্চতায় মিম কয়েন

1 min read

। । প্রথম কলকাতা । ।

ভ্যালুয়েশনের দিক থেকে দেশের তাবড় নামি সংস্থাদের পিছনে ফেললো ক্রিপ্টোকারেন্সি শিবা ইনু (Shiba Inu)। এদিন বুধবার সর্বোচ্চ উচ্চতা ০.০০০০৫৯৩ ডলারে দর উঠলো এই মিম কয়েনের। কয়েনমার্কেট ক্যাপের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে শিবা ইনুর বিশ্বের ১১ তম বৃহত্তম মার্কেট ক্যাপ সম্পন্ন ক্রিপ্টোকারেন্সি। এই মুহূর্তে শিবা ইনুর মার্কেট ক্যাপ রয়েছে ২৩ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। যা ভারতের আদানি এন্টারপ্রাইজ, টাটা স্টিল, টেক মাহিন্দ্রা, এইচডিএফসি এর মতো বড় সংস্থাগুলিকেও হার মানায়।

মার্কেট ক্যাপ অনুযায়ী যদি দেখা যায় তাহলে-

শিবা ইনু – ২৩ বিলিয়ন ডলার
আদানি এন্টারপ্রাইজ – ২২.৯ বিলিয়ন ডলার
জেএসডাব্লিউ স্টিল – ২২.৪ বিলিয়ন ডলার
টাটা স্টিল ২১.৯ বিলিয়ন ডলার
টেক মাহিন্দ্রা – ২১.০৫ বিলিয়ন ডলার
আদানি পোর্টস – ২০.৩৫ বিলিয়ন ডলার
এইচডিএফসি লাইফ – ১৮.৮০ বিলিয়ন ডলার

উল্লেখ্য, গোটা অক্টোবর মাস জুড়েই দর বেড়েছে শিবা ইনু কয়েনের। অন্যদিকে মাত্র কয়েকদিনে ৬০ ডলার থেকে রেকর্ড হাই ৬৭ হাজার ডলারের পৌঁছেছে বিশ্বের প্রথম ক্রিপ্টোকারেন্সি বিটকয়েন। একই সাথে গত ২৪ ঘন্টায় উচ্চতার গ্রাফ বজায় রেখেছে শিবা ইনুও।

হঠাৎ শিবা ইনুর এই বৃদ্ধির কারণ?

জানা গিয়েছে, সম্প্রতি এক বিনিয়োগকারী ২৭৬.৬ বিলিয়ন শিবা টোকেন কিনেছেন যার মূল্য ১১.৫ মিলিয়ন ডলার। যার ফলে গত ২৪ ঘন্টায় ৪০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে শিবা ইনুর দাম। ক্রিপ্টো বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন এই ধরণের মিম কয়েনের দাম বাড়ার ক্ষেত্রে বেশিরভাগ প্রভাবশালী ব্যক্তিদের হাত থাকে। যখনই কোনো বড় বিনিয়োগকারী বা সংস্থা এই কয়েন সম্পর্কে পজিটিভ কিছু বলেন বা কেনা শুরু করেন তখনই এর দাম হু হু করে বাড়তে শুরু করে। যেমনটা দেখা গিয়েছে ডোজ কয়েন এবং অন্যান্য মিম কয়েনের ক্ষেত্রে। আবার অনেকে শিবা ইনু কয়েনকে ডোজ কয়েন কিলার হিসাবেও অভিহিত করেন। কারণ ডোজকয়েনকে কাউন্টার করার জন্য নিয়ে আসা হয়েছিল এই মিম কয়েন শিবা ইনু।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ