Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মদ খাও, ভাতা নাও, তৃণমূলকে ভোট দাও! বিস্ফোরক শুভেন্দু

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

রাজ্যের চার কেন্দ্রে উপনির্বাচনের আগে সময় বলতে আর দু’দিন। স্বাভাবিকভাবেই জোরকদমে চলছে প্রস্তুতি। আজ, বুধবার শান্তিপুর বিধানসভা উপনির্বাচনের বিজেপি প্রার্থী নিরঞ্জন বিশ্বাসের সমর্থনে সারদাপল্লী প্রাথমিক স্কুল ময়দানে উপনির্বাচনী প্রচার সভায় উপস্থিত ছিলেন বিরোধী দলনেতা তথা নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। আজকের সভায় বক্তব্য রাখার পর তিনি স্বভাবসিদ্ধ ভঙ্গিমায় একবার ফের মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের রাজ্য পরিচালনাকে তীব্র ভাষায় নিন্দা করেন।

এবছরের দুর্গাপুজোয় রেকর্ড অর্থের মদ বিক্রি হয়েছে বাংলায়। নবান্ন সূত্রে জানা গেছে, পুজোর পাঁচ দিনে রাজ্যে মোট প্রায় ১০০ কোটি টাকার মদ বিক্রি হয়েছে। আজ শুভেন্দু অধিকারী এই বিষয়টিকে সমালোচনা করে জবাব দেন, “মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় পুজোর সময় চারদিনে ৭০২ কোটি টাকা উপার্জন করেছেন পশ্চিমবঙ্গের বেকার যুবক যুবতীদের মদ খাইয়ে। তাঁর একটাই অ্যাজেন্ডা মদ খাও, ভাতা নাও, তৃণমূলকে ভোট দাও!” একই সঙ্গে তিনি সংযোজন করেন, “মণ্ডল কমিশনের রিপোর্ট অনুযায়ী যারা প্রকৃত ওবিসি তাঁদের বঞ্চিত করে ওবিসি-এ চালু করেছেন শুধুমাত্র মুসলিম ভোটের জন্য। কলকাতা পুলিশের তালিকায় পঞ্চাশ জনের মধ্যে আটচল্লিশ জন ওবিসি-এ। তিনি গোটা রাজ্যটাকে ধ্বংস করেছেন।“

অন্যদিকে, এক দিন আগেই দিনহাটায় প্রচারসভা থেকে তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বিজেপিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বলেছেন উন্নয়নের লড়াইয়ে তিনি যে কোনো বিজেপি নেতার মুখোমুখি রিপোর্ট কার্ড নিয়ে বসতে চান। অভিষেকের মন্তব্যের জবাবে বিরোধী দলনেতা আজ বলেন, “মোদীজির খাদ্য সুরক্ষাকে খাদ্য সাথী নাম দিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার নাম দিয়েছে মমতা ব্যানার্জি বাংলা আবাস যোজনা, স্বচ্ছ ভারত অভিযানের শৌচালয় প্রকল্পের নাম দিয়েছে নির্মল বাংলা মিশন এই রকম অন্তত ৩০টা প্রকল্প গ্রামে চলছে সব মোদীজির প্রকল্প। উন্নয়নের খতিয়ান দেওয়ার দরকার নেই।“

পাশপাশি অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে একহাত নিয়ে শুভেন্দু পাল্টা বলেন, “সিপিএম যখন মধ্যগগনে তখন লক্ষণ শেঠকে আমি ১ লক্ষ ৭৩ হাজার ভোটে হারিয়েছি। মমতা ব্যানার্জি যখন ২১৩ আসন নিয়ে ক্ষমতা আসছেন তখন তাঁকে হারিয়েছি। আমরা সংগ্রাম করে ২০১১ সালে ক্ষমতায় আসার পর ব্রিগেডে উনি (পড়ুন অভিষেক) ল্যান্ড করেছেন! ওঁনার সব কথার উত্তর দেওয়ার প্রয়োজন নেই। রিপোর্ট কার্ড নিয়ে মমতা ব্যানার্জি বসতে চাইলে বসতে পারি, অন্য কারুর কাছে বসব না। উনি আমার কাছে হেরেছেন!”

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ