Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘ইমরান খান অপরিপক্ক রাজনীতিবিদ’, নাদিম আঞ্জুম নিয়োগ নিয়ে মন্তব্য পাক সেনা প্রধানের

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

লেফটেন্যান্ট জেনারেল নাদিম আঞ্জুমকে পাকিস্তানের গুপ্তচর সংস্থার প্রধান হিসেবে নিয়োগ করা নিয়ে পাক প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের বক্তব্যকে সামরিক শক্তি এবং রাজনৈতিক পরিপক্কতার অভাব হিসাবেই দেখছেন দেশটির আর্মি চিফ জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়া।সেনাপ্রধানের লাইন মেনে নেওয়া ছাড়া প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের কাছে কোনও বিকল্প নেই। কারণ, খুব জোরাল জল্পনা রয়েছে যে, জেনারেল বাজওয়া তাঁর বর্তমান অবসরের তারিখ ২০২২ সালের নভেম্বরের পরেও সেনাবাহিনীর প্রধান থাকতে পারেন। জেনারেল বাজওয়া ২৯ নভেম্বর, ২০১৬ সালে পাক সেনাপ্রধানের দায়িত্ব গ্রহণ করেন।

এরপর ৬ অক্টোবর, ২০২১-এ, তিনি লেফটেন্যান্ট জেনারেল ফয়েজ হামিদকে ডিজি, আইএসআই হিসাবে স্থলাভিষিক্ত করেন এবং করাচি ভি কর্পস কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল নাদিম আঞ্জুমকে হেড স্পুক হিসাবে নিযুক্ত করেন। জেনারেল হামিদ হলেন সেই ব্যক্তি যিনি তালেবানের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং এফবিআই তালিকার মোস্ট ওয়ান্টেড সিরাজুদ্দিন হাক্কানির প্রকাশ্য সমর্থক ছিলেন এবং পেশোয়ারে একাদশ কোরের কমান্ডার হিসেবে নিযুক্ত হন। ইন্টার-সার্ভিসেস ইন্টেলিজেন্স এজেন্সির পরবর্তী প্রধানের আনুষ্ঠানিক নিয়োগে বিলম্বের পর শুক্রবার পাকিস্তানের রাজনৈতিক মহল জল্পনা শুরু হয়। এই নিয়োগ নিয়ে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান সংঘাতে জড়িয়েছেন সেদেশের সেনার সঙ্গে।

গত ৬ অক্টোবর লেফটেন্যান্ট জেনারেল নাদিম অঞ্জুমকে পরবর্তী আইএসআই প্রধান হিসাবে ঘোষণা করে পাক সেনা। তবে আইএসআই-এর বর্তমান প্রধান লেফটেন্যান্ট জেনারেল ফয়েজ হামিদের উত্তরসূরির নাম আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করার কথা ইমরান খানের। সেই আনুষ্ঠানিক ঘোষণা ঘিরে বিলম্ব জল্পনা উসকে দিয়েছে সেদেশের রাজনৈতিক মহলে। আর তারপরেই দেশটির আর্মি চিফ জেনারেল কামার জাভেদ বাজওয়ার বক্তব্য, ‍‘রাজনৈতিক ভাবে ইমরান কান অপরিপক্ক’, জটিলতা আরও বাড়িয়েছে। কনভেনশন অনুযায়ী, পাকিস্তান সেনাবাহিনী প্রধানমন্ত্রীর কাছে তিনজন লেফটেন্যান্ট জেনারেলের নাম পাঠায়, যাঁদের একজনকে আইএসআই প্রধান হিসাবে বেছে নেওয়া হয়। যদিও প্রধানমন্ত্রী এই পদের নিয়োগের আনুষ্ঠানিক ঘোষণা করেন। এটি সর্বজনবিদিত যে, সেনাপ্রধান জানিয়ে দেন যে তিনজনের তালিকা থেকে কোন কর্মকর্তাকে এই পদে নিয়োগ করা উচিত।

৬ অক্টোবর পাকিস্তানি সেনাবাহিনী ঘোষণা করে জানায় যে রদবদলের অংশ হিসাবে, ফয়েজ হামিদকে পেশোয়ার-ভিত্তিক একাদশ কোরের প্রধান করা হবে। এর জন্য আইএসআই থেকে তাঁকে সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে। উল্লেখ্য, বর্তমান সেনা প্রধান জেনারেল কামার বাজওয়া ২০২২ সালের নভেম্বরে তাঁর বর্ধিত মেয়াদ শেষ করবেন। তারপর সেই পদে হামিদকে বসতে হলে অপারেশনাল কমান্ডের দায়িত্বে থাকা প্রয়োজন। তবে হামিদকে আইএসআই প্রধান পদ থেকে সরাতে চাইছেন না ইমরান খান। পাকিস্তানের অনেকেই মনে করছেন, আফগানিস্তানে তালিবানের সঙ্গে হামিদের বোঝাপড়ার জন্য ইমরান আইএসআই প্রধান পদে বদল আনতে চানা না। এই বিষয়ে সমস্যা মেটাতে সেনা প্রধান বাজওয়ার সঙ্গে বৈঠকেও বসেন পাক প্রধানমন্ত্রী। শুক্রবার আনুষ্ঠানিক ভাবে অঞ্জুমের নাম আইএসআই প্রধান হিসেবে ঘোষণা করার কথা থাকলেও তা করেননি ইমরান খান। এরপরই জল্পনা আরও বেড়েছে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ