Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

লক্ষীর ভান্ডার-স্বাস্থ্যসাথী সব ভাঁওতাবাজি , রাজ‍্যকে কটাক্ষ দিলীপের

1 min read

। । প্রথম কলকাতা । ।

সার্বিক স্বাস্থ্যসুরক্ষা কার্যক্রমের আওতায় আনার পথে প্রথম ধাপ ছিল সকলের জন্য সরকারি হাসপাতালে নিখরচায় পরিসেবা পাওয়া নিশ্চিত করা। এবার রাজ্য সরকার জানিয়ে দিয়েছে সরকারি হাসপাতালে ভর্তির ক্ষেত্রে স্বাস্থ্যসাথী বা যে কোনো ধরনের হেলথ কার্ড দেখানো বাধ্যতামূলক। অন্যদিকে স্বাস্থ্য সাথী কার্ড থাকা সত্ত্বেও রোগীকে ফেরানোর অভিযোগে ৭ টি বেসরকারি হাসপাতালকে শোকজ করেছে স্বাস্থ্য কমিশন।

এই প্রসঙ্গে দিলীপ ঘোষ বলেন, এতদিন সরকারি হাসপাতালে কেন করা হয়নি। প্রাইভেট হসপিটালে যে রেট দেওয়া হয়েছে তারা চালাতে পারছে না। এক একটা হসপিটালে কয়েক কোটি টাকা ধার হয়ে গেছে। তারা বলছে কয়েক হাজার রোগীকে তারা চিকিৎসার পরিসেবা দিয়েছে অথচ রাজ্য সরকার তাদেরকে টাকা দিচ্ছে না। একটি হাসপাতালে রোগী নেওয়া বন্ধ করে দিয়েছে এই অভিযোগ তুলে। স্বাস্থ্যসাথী প্রজেক্ট দিয়ে লোককে বোকা বানানো হচ্ছে। এর ভবিষ্যৎ কী হবে সাধারণ মানুষের চিকিৎসা কী হবে প্রশ্ন তোলেন দিলীপ ঘোষ। মোদী সরকার বছরে পাঁচ লাখ টাকা দিচ্ছে‌ , আয়ুষ্মান যোজনার বীমা রাজ্য সরকার কেন নিচ্ছে না। তৃণমূলের নিজেদের কর্মীদের রাখতে গিয়ে সরকারি টাকা শেষ। ক্লাবকে টাকা দিতে গিয়ে
সব টাকা লুঠ হয়ে যাচ্ছে। না লক্ষীর ভান্ডার হবে না স্বাস্থ্য সাথী হবে সব ভাওতাবাজি ধরা পড়বে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ