Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

‘কংগ্রেস-সিপিএম তাঁদের আদর্শ চৈত্র সেলের মতো বিজেপি-র কাছে বিক্রি করে দিয়েছে’,তীব্র কটাক্ষ অভিষেকের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

সিবিআইয়ের ভয়ে অন্যান্য রাজনৈতিক দলগুলি চুপ করে বসে থাকলেও তৃণমূল কংগ্রেসকে ভয় দেখিয়ে আটকানো যাবে না, আসন্ন শান্তিপুর উপনির্বাচনের প্রচারে এসে আজ এভাবেই দীপ্তকন্ঠে ভাষণ রাখলেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। এমনকি রাজ্যের বাকী দুই বিরোধী দলের বিরুদ্ধে তাঁর অভিযোগ, “কংগ্রেস এবং সিপিএম তাদের আদর্শ চৈত্র সেলের মতো বিজেপি-র কাছে বিক্রি করে দিয়েছে। এক মাত্র তৃণমূল এবং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মাঠে ময়দানে আছে। আমাদের উপর যত আঘাত আসুক আমরা মাথা নত করব না।“

চলতি মাসের ৩০ তারিখ রাজ্যের দিনহাটা, শান্তিপুর, গোসাবা এবং খড়দহ কেন্দ্রে উপনির্বাচন। হাতে সময় বলতে আর তিন দিন। সাধারণত উপনির্বাচনের ক্ষেত্রে শাসক দল খানিকটা প্রাধান্য পেয়ে থাকে। যে কারণে বেশিরভাগ ক্ষেত্রে জিত তাঁদেরই হয়। কিন্তু এবারের উপনির্বাচনের ছবিটা সামান্য অন্যরকম। দিনহাটা ও শান্তিপুর কেন্দ্রের বিধানসভা নির্বাচনে দুই জায়গাতেই বিজেপি জয়লাভ করে। কিন্তু সাংসদ পদ বজায় রাখার স্বার্থে পদত্যাগ করতে হয় বিজয়ী প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক ও জগন্নাথ সরকারকে। সেই কারণে নিজেদের বিধায়ক সংখ্যা আরও বাড়াতে সবকটি উপনির্বাচনকেই গুরুত্ব সহকারে নিয়েছে রাজ্যের শাসক দল।

আজ শান্তিপুরে এসে একাধিক ইস্যু নিয়ে বক্তব্য রাখেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। বাংলাদেশের ঘটনায় মোদীকে আক্রমণ করা থেকে শুরু করে, বিজেপিকে ভাইরাস বলা কিছুই বাদ যায়নি। শেষমেশ সিপিএম-কংগ্রেসকেও একহাত নিলেন তিনি। যদিও শান্তিপুরের মানুষের সামনে উন্নয়নের পরিসংখ্যান তুলে ধরেছেন তিনি। জানিয়েছেন শান্তিপুর থেকে তৃণমূল জিতলেই দীর্ঘপ্রতীক্ষিত কালনা-শান্তিপুর ১১ কিলোমিটারের ব্রিজ নির্মাণ হবে। একই সঙ্গে তিনি উল্লেখ করেন শান্তিপুর হাসপাতাল উন্নয়ন ও স্টেডিয়াম নির্মাণের জন্য যথাক্রমে ১ কোটি ও ৪ কোটি টাকা দিয়েছে রাজ্য সরকার।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ