Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

শীতের শুরুতেই নানান রোগ আমলকি খেয়ে দেখুন ম্যাজিক

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

বর্তমানে আমরা যতই আধুনিক সভ্যতার দিকে দ্রুত এগিয়ে যাই না কেন বিভিন্ন জটিল রোগ যেন পিছু ছাড়তে চায় না। তাছাড়া রোজ মুঠো মুঠো ওষুধ খেতে কার ভালো লাগে বলুন ? অথচ আমাদের প্রকৃতির কোলেই এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা একত্রে বহু রোগ সারাতে সক্ষম। তার উপর সামনেই শীতকাল আসতে চলেছে। আবহাওয়া পরিবর্তনের সময় প্রায় ঘরে ঘরে দেখা দেয় নানান রোগ। তাই এই ঋতু পরিবর্তনের সময় অবশ্যই নিয়ম করে খাদ্যতালিকায় একটুকরো আমলকি রাখুন।

আজকের এই প্রতিবেদনে জানতে পারবেন আমলকির সাতকাহন। আমলকির গুনাগুন জানতে পারলে সত্যিই একটু অবাক হবেন। কারণ সামান্য কারণে আমরা যেভাবে গোগ্রাসে ওষুধ খাই, সেই সমস্যার সমাধান রয়েছে একটি আমলকি মধ্যে।

•দৃষ্টি শক্তি বৃদ্ধিতে

চোখের জন্য আমলকি অত্যন্ত উপকারী। রোজ নিয়ম করে এক টুকরো আমলকি খেলে দৃষ্টিশক্তি বৃদ্ধি পায় এবং চোখের চুলকানি ও জল পড়ার মতো সমস্যার দ্রুত নিরসন ঘটে।

•চুলের টনিক আমলকি

চুলের যত্ন নিতে কোন ক্ষতিকারক কেমিক্যাল প্রোডাক্ট ব্যবহার না করে আমলকি ব্যবহার করুন। কারণ আমলকিতে কোন পার্শপ্রতিক্রিয়া হয়না। এর ফলে চুলের দ্রুত বৃদ্ধি হবে এবং গোড়া মজবুত হবে। এছাড়াও আমলকির গুণে চুল পড়া , পাকা এবং খুশকির সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

•মুখের দুর্গন্ধ দূর করে

অনেকের নিঃশ্বাসে দুর্গন্ধ থাকায় কথা বলার সময় বিব্রতবোধ করেন। রোজ যদি এক টুকরো করে কাঁচা আমলকি খাওয়া যায় তাহলে এই নিঃশ্বাসের দুর্গন্ধ দ্রুত দূর হয়।

•মুখে রুচি ফেরায়

ক্ষিদে হীনতায় ভুগছেন ? স্বাভাবিকভাবেই শরীর দিনের পর দিন দুর্বল হয়ে পড়ছে। রোজ আমলকি খেলে মুখের রুচি ফিরে আসে এবং জিভের স্বাদ বৃদ্ধি পায়। আমলকি ক্ষিদে বৃদ্ধিতেও অত্যন্ত উপকারী একটি উপাদান।

পেটের সমস্যা দূর করতে

রোজ এক গ্লাস দুধ বা জলের মধ্যে একটু আমলকি গুঁড়ো মিশিয়ে দুবার খেলে দ্রুত এসিডিটির সমস্যা দূর হয়। এছাড়াও আমলকি হজম ক্ষমতা বাড়াতে ওস্তাদ। তাই গ্যাস অম্বলের মত সমস্যা থেকে মুক্তি পেতে আমলকি ব্যবহার করতে পারেন।

•ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি

দিনে অন্তত দুবার করে আমলকির রসের সাথে মধু খেলে ত্বকের কালো দাগ দ্রুত দূর হয় এবং ধীরে ধীরে ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি পায়।

•মানসিক চাপ হ্রাস

আমলকি মধ্যে রয়েছে রোগ প্রতিরোধের উপকারী উপাদান। যা অনিদ্রা বা ব্যথা-বেদনা থেকে সহজেই মুক্তি দেয়। এছাড়াও কফ, বমি, মানসিক চাপ কমাতে রোজ একটু করে আমলকি গুঁড়ো বা কাঁচা আমলকি খাওয়া উচিত।

•ব্রঙ্কাইটিস ও অ্যাজমা নিরাময়

সামনেই শীতকাল , ফলে এই ঋতু পরিবর্তনের সময় অনেকেই সর্দি-কাশিতে ভোগেন। সে ক্ষেত্রে রোজ আমলকি জুস পান করলে ব্রঙ্কাইটিস ও অ্যাজমার সমস্যা থেকে মুক্তি পাওয়া যায়। এছাড়াও এই জুস শরীরের কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করতে অত্যন্ত উপকারী। এর পাশাপাশি আমলকি হৃদযন্ত্র , ফুসফুস এবং মস্তিষ্কের দুর্বলতা দূর করে।

•মেদ ঝরাতে সাহায্য

আমলকির মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ফ্রি রাডিকালস প্রতিরোধ করতে সাহায্য করে। অর্থাৎ যৌবন ধরে রাখতে আমলকির জুড়ি মেলা ভার। এছাড়াও অতিরিক্ত মেদ ঝরাতে প্রতিদিন খাবারের তালিকায় এক টুকরো আমলকি রাখা অত্যন্ত জরুরী।

•সুগার ও ডায়াবেটিস প্রতিরোধ

আমলকী ব্লাড সুগার লেভেলকে নিয়ন্ত্রণ করে এবং কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে সাহায্য করে। তাই যারা ডায়াবেটিস ও সুগারে ভুগছেন তারা আমলকি প্রতিদিন এক টুকরো খেলে উপকার পাবেন।

•হাড় ও দাঁত সুস্থ রাখে

আমলকির মধ্যে থাকা ফাইটো কেমিক্যাল দাঁত শক্ত করতে সাহায্য করে। এটি লোহিত রক্ত কণিকার সংখ্যা বৃদ্ধি করায় আমাদের নখ ভালো থাকে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ