Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বাজির ধোঁয়ায় ফুসফুসের বারোটা, ক্ষতি হবে ত্বকেরও! মেনে চলুন বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

সামনেই আসছে দীপাবলি আলোর উৎসব। আর বাজি পোড়ানো ছাড়া এই উৎসব যেন অসম্পূর্ণই থেকে যায়। তা সে নিয়ন্ত্রিত শব্দ বাজি হোক কিংবা আলোর রোশনাই ওয়ালা বাজি। আর চিকিৎসকদের মতে এসব বাজি থেকে নির্গত ধোঁয়া ফুসফুসের যেমন ক্ষতি করে তেমনই মারাত্মক ক্ষতি করে ত্বকেরও।

কারণ এইসব আলোর বাজিতে থাকে কার্বন, সালফার, আর্সেনিক, ম্যাঙ্গানিজ, অক্সালেট, আয়রন ডাস্ট, অ্যালুমিনিয়াম, সোডিয়াম অক্সালেট, বেরিয়াম নাইট্রেট, পটাশিয়াম পারকোলেট এর মতো ক্ষতিকর উপাদান যা ত্বক ও ফুসফুসে নানান ক্ষতি করতে একাই একশো।

জানুন ত্বক ও ফুসফুসে কী কী ক্ষতি হতে পারে-

চিকিৎসকদের মতে বাজি থেকে নির্গত বিষাক্ত ধোঁয়া বাতাসের ধূলিকণার সাথে মিশে যায় যা খালি চোখে দেখা যায়না। আর এই ধূলিকণা নাক মুখ দিয়ে ঢুকে শ্বাসকষ্টের সমস্যা তৈরি করতে পারে। যারা করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠেছেন তাঁদের জন্য এটি মারাত্মক ক্ষতিকর। এ থেকে ফুসফুস সহ অন্যান্য অঙ্গ সম্পূর্ণ বিকল হয়ে যেতে পারে, ব্রঙ্কাইটিসের সমস্যা দেখা দিতে পারে।

এছাড়াও ত্বক রুক্ষ শুস্ক, জ্বালা পোড়ার সমস্যা বাড়ে, পাশাপাশি ত্বকের উজ্জ্বলতা কমে যায়, ত্বকে বিভিন্ন ধরণের ৱ্যাশ অ্যালার্জির সমস্যা দেখা দেয়।

জেনে নিন বাজির ধোঁয়া থেকে ত্বক ও ফুসফুস বাঁচানোর উপায়-

১. বিশেষজ্ঞদের মতে বাজির ধোঁয়া থেকে ত্বক ও ফুসফুস সুরক্ষিত রাখতে যতটা সম্ভব এই ধোঁয়া থেকে নিজেকে দূরে রাখুন, সম্ভব না হলে নাক মুখ ঢাকে রাখার জন্য সুতির কাপড়ের মাস্ক পড়ুন। এছাড়াও বিশেষ প্রয়োজনে ইনহলার রাখুন।

২. প্রচুর পরিমানে জল ও সবুজ শাকসবজি, ফল খান। এতে করে শরীর, ত্বক যেমন সুস্থ থাকবে তেমনই হাঁপানির কষ্ট থেকেও মিলবে মুক্তি।

৩. বাজি পুড়িয়ে এসে ত্বকে ভুলেও সাবান দেবেন না। কারণ ত্বক বিশেষজ্ঞদের মতে ক্লিনজার হিসাবে জলের বিকল্প নেই। তাই বাজি পুড়িয়ে এসে ভালো করে ঠান্ডা জল দিয়ে গা হাত পা মুখ ধুয়ে নিয়ে ক্যালামাইন জাতীয় ময়শ্চারাইজার মাখুন।

৪. বাজির ধোঁয়ায় ত্বকের সতেজতা নষ্ট হয়ে যেতে পারে। তাই জল, শাকসবজি ও রসালো ফল খাওয়ার পাশাপাশি নিয়মিত মুখ ধোঁয়ার পর শসা কিংবা টমেটো রস লাগিয়ে ২০-২৫ মিনিট রেখে ধুয়ে নিয়ে অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করুন ময়শ্চারাইজার হিসাবে।

৫. এছাড়াও বাজির ধোঁয়া ও খাওয়া দাওয়ার অনিয়মের কারণে ত্বক তৈলাক্ত হওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়। সেক্ষেত্রে করতে হবে ডিপ ক্লেনজিং। তার জন্য বেছে নিন অ্যাভোকাডো ও ভিটামিন ই যুক্ত ক্লেনজার।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ