Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ঠিকানায় ডিজিটাল কোড: প্রত্যেক বাড়ির জন্য চালু হতে পারে কিউআর কোড

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

এবার ‘ডিজিটাল ইন্ডিয়া’ গড়ার লক্ষ্যে নতুন সংযোজনের পথে কেন্দ্র। ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’ চালু করার কথা ভাবছে কেন্দ্রীয় যোগাযোগ মন্ত্রক। ১২ সংখ্যার আধার নম্বর থেকে ঠিক যেমন কোনও ভারতীয় নাগরিকের জন্ম তারিখ, ঠিকানা-সহ বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যায়, তেমনই বাড়ির ঠিকানা সংক্রান্ত যাবতীয় খুঁটিনাটি তথ্য এক জায়গায় আনতে চালু হতে পারে ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’।

কেন্দ্রের এই পরিকল্পনা বাস্তবায়িত হলে ভারতীয় নাগরিকদের দুই তিন অথবা চার লাইনের ঠিকানা মাত্র ১০ থেকে ১২ সংখ্যার ডিজিটাল কোড থেকেই জানা যাবে। তাই দেশের প্রায় ৭৫ কোটি ঠিকানা ১০-১২ সংখ্যার ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’-এর আওতায় আনার পরিকল্পনা রয়েছে কেন্দ্রের।

কেন্দ্রের দাবি, ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’-এ ব্যবহৃত নম্বরটি যে কোনও প্রান্ত থেকে নির্দিষ্ট ঠিকানার যথাযথ অবস্থান জানতে সাহায্য করবে। এর ফলে নির্দিষ্ট ঠিকানায় চিঠি যাওয়া বা ই-কমার্স সংস্থার পণ্যের ডেলিভারি আরও সহজ হবে। পাশাপাশি বিমা-ব্যাঙ্কিং-সহ যে কোনও ক্ষেত্রে কেওয়াইসি (নো ইয়োর কাস্টমার) হিসাবে ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’ আরও নির্ভুল ও সহজতর হবে।

জানা গিয়েছে ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’ কী ভাবে চালু হবে, তার প্রাথমিক রূপরেখা ইতিমধ্যেই তৈরি করেছে কেন্দ্র। দেশের সমস্ত বাড়িতেই এই কোড চালু করা হবে। দেশে বর্তমানে গৃহস্থ বাড়ির সংখ্যা প্রায় ৩৫ কোটি। এর সঙ্গে রয়েছে বিভিন্ন ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান। সব মিলিয়ে মিলিয়ে ৭৫ কোটি ঠিকানার ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’ চালু করতে চায় কেন্দ্র।

এই প্রসঙ্গে কেন্দ্রের যুক্তি, বর্তমানে ঠিকানার প্রমাণ হিসাবে যে নথিগুলি ব্যবহৃত হয়, সেগুলি ডিজিটাল পদ্ধতিতে যাচাই করে দেখার কোনও উপায় নেই। শুধু তাই নয়, ওই ঠিকানাতেই সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি আদৌ থাকেন কি না, তাও প্রমাণ করা মুশকিল। কিন্তু ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’ চালু করা গেলে ঠিকানার নির্ভুল হদিস মিলবে সহজেই।

শুধুমাত্র ‘ডিজিটাল অ্যাড্রেস কোড’-ই নয়, প্রত্যেক বাড়ির জন্য চালু হতে পারে বিশেষ কিউআর কোড। বাড়ির সামনে ওই কিউআর কোড টাঙানো থাকলে সেটিকে স্ক্যান করেও ওই বাড়ির যথাযথ ঠিকানা সহজেই পাওয়া যাবে। প্রতিটি ফ্ল্যাট, বাড়ি বা অফিসের জন্য আলাদা আলাদা কোড থাকবে। একটি অফিস বিল্ডিংয়ে একাধিক অফিস থাকলে প্রতিটির জন্য আলাদা কোড থাকবে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ