Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

মোদী-মমতা দু’জন মিলে আসলে মানুষকে মারছে! শান্তিপুরে সেলিম উবাচ

1 min read

। প্রথম কলকাতা ।।

একুশের বিধানসভা নির্বাচনে ভরাডুবি হবার পর রাজ্যের উপনির্বাচনগুলিকে ‘সিরিয়াসলি’ নিয়েছে রাজ্যের প্রাক্তন শাসক দল সিপিআই(এম)। যে কারণে ভবানীপুর উপনির্বাচনে ফের একবার হারের পর চলতি মাসের চারটি কেন্দ্রের উপনির্বাচনেই প্রার্থী দিয়েছে বাম শিবির। আজ, সোমবার শান্তিপুরের সিপিএম প্রার্থী সৌমেন মাহাতোর সমর্থনে প্রচারে অংশ নিলেন বর্ষীয়ান বাম নেতা মহম্মদ সেলিম। একুশের বিধানসভায় কংগ্রেস ও আইএসএফের সঙ্গে মহাজোট গঠন করে ভোটযুদ্ধে অংশ নিয়েছিল সিপিএম। ফলাফল আমাদের সবার জানা। আইএসএফ সর্বসাকুল্যে একটি আসন পেলেও বাম ও কংগ্রেস খাতা খুলতে পারেনি। এদিকে আবার উপনির্বাচনের প্রতিটি কেন্দ্রে বাম শিবিরের পক্ষ থেকে প্রার্থী দেওয়ায় কংগ্রেসের সাথে বামের সম্পর্ক নিয়ে চলছে জোর রাজনৈতিক চর্চা।

শান্তিপুর কেন্দ্রের বিধানসভা নির্বাচনে কংগ্রেস প্রার্থী দিলেও উপনির্বাচনে সৌমেন মাহাতোকে প্রার্থী করেছে সিপিএম। এই প্রসঙ্গে আজ সেলিম বলেন, “মুকুল রায় কাল তৃণমূলে ছিল, আবার বিজেপিতে গেল, এখন আবার তৃণমূলে এসেছে। এটা কিছু নয়? আমরা তো ব্যক্তি নয়, আমরা একটা দল।“ পাশপাশি তাঁর সংযোজন, “শান্তিপুরে বামেদেরই প্রার্থী দেওয়ার কথা ছিল। যেহেতু কংগ্রেস আগের বিধানসভায় এখানে প্রার্থী দিয়েছিল তাই এবারেও ওঁরা দাবি করেছিল। কিন্তু মানুষের সমর্থনে উপনির্বাচনে আমরাই প্রার্থী দিয়েছি। অথচ ভবানীপুর উপনির্বাচনে ওঁরা (পড়ুন কংগ্রেস) নিজেরাই বলল আমরা দাঁড়াব না। কিন্তু শান্তিপুরে প্রার্থী দিল। একই বিষয়ে দু’রকম নীতি তো চলে না। যদিও কংগ্রেসের মানুষজন আজও চান শান্তিপুরে বাম প্রার্থীই জিতুক।“ বিশেষ করে আজ পেট্রোপণ্য ও সরষের তেল সহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধি নিয়ে সরব হলেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম। একইসঙ্গে কেন্দ্র ও রাজ্যকে আক্রমণ করলেন।

তাঁর কথায়, “দিল্লিতে এ বলছে আমায় দেখ বাংলায় ও বলছে আমায় দেখ! কিন্তু মানুষকে কেউ দেখছে না। মানুষের কথা কেউ ভাবছেন না। মোদী বলছে আমি হাতিঘোড়া মারছি, দিদি বলছে আমি হাতিঘোড়া মারছি। আসলে দু’জন মিলে মানুষকে মারছে। তাই আমাদের বিশ্বাস বাঁচার স্বার্থে মানুষ এবার শান্তিপুরে বাম প্রার্থীকেই সমর্থন করবেন।“ বিজেপি বাংলাদেশের ধর্মীয় সন্ত্রাসকে হাতিয়ার করে এবার উপনির্বাচনে যে ভোট প্রচার চালাচ্ছে সে বিষয়ে সেলিম বলেন, “বাংলাদেশ ভারত সহ বিভিন্ন দেশের সংখ্যালঘুদের ওপর যখনই আক্রমণ হয়েছে তখনই বামফ্রন্ট প্রতিবাদ করেছে। তবে সংখ্যাগুরুর রাজনীতি যারা করে তাঁরা সবাই এক।“

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ