Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ত্রিপুরায় নোটার চেয়ে কম ভোট পাবে তৃণমূল, ভবিষ্যৎবাণী শুভেন্দু’র

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ত্রিপুরার পুরসভা ভোটে একটিও আসন পাবে না তৃণমূল, এমনকি তাঁরা নোটার চেয়েও কম ভোট পাবে! সোমবার দক্ষিণ ২৪ পরগণার গোসাবা বিধানসভা কেন্দ্রের বিজেপি প্রার্থী পলাশ রানার সমর্থনে প্রচারে এসে এমন ভবিষ্যৎবাণীই করলেন রাজ্যের বিরোধী দলনেতা তথা নন্দীগ্রামের বিধায়ক শুভেন্দু অধিকারী। আজ সকালে তিনি গোসাবা বাজারে প্রথম সভাটি করেন। বিকেলে ফের রাধানগর তারানগর বাজারে আরেকটি সভা করবেন বলে বিজেপি সূত্রে খবর। উল্লেখ্য, গত শনিবার গোসাবার পাঠানখালী বাজারে তৃণমূল প্রার্থী সুব্রত মন্ডলের সমর্থনে প্রচারে আসেন তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে আয়োজিত জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে অভিষেক বলেন এবার ত্রিপুরা এবং গোয়ায় সরকার গঠন করবে তৃণমূল। সোমবার সেই গোসাবাতে পা রেখেই অভিষেকের প্রশ্নের উত্তর দিলেন শুভেন্দু অধিকারী।

এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিরোধী দলনেতা বলেন, “আগামী ২৫ নভেম্বর ত্রিপুরায় পৌরসভা নির্বাচন। এই নির্বাচনে সব আসনে প্রার্থী দিয়ে দেখাক তৃণমূল। আমি চ্যালেঞ্জ করছি সব আসনে প্রার্থীই দিতে পারবে না তাঁরা। নোটার চেয়েও কম ভোট পাবে। কুঁজোর যদি চিৎ হয়ে শোবার ইচ্ছে হয় আর গরুর গাড়িতে যদি হেডলাইট লাগাতে হয় সেই দিন ত্রিপুরায় খাতা খুলবে তৃণমূল। আমি ওই পার্টিটা করেছি, আমি জানি!” আজকের সভা থেকে শুভেন্দু গোসাবাবাসীর উদ্দেশ্যে বলেন, “আপনারা আর ভয় পাবেন না। এখন থেকে নির্ভয়ে থাকুন।

কারণ এখন গোসাবা এখন পুরোপুরি বিএসএফের নিয়ন্ত্রণে। বিএসএফের ক্ষমতা বৃদ্ধির ফলে আর কোন তদন্তের ক্ষেত্রে পুলিশকে কৈফিয়ত দিতে হবে না। এবার সরাসরি গ্রেফতার করতে পারবে বিএসএফ।“ অন্যদিকে, ত্রিপুরায় কোমর বেঁধে নেমে পড়েছে তৃণমূল। আসন্ন পুরভোটের প্রচারাভিযানের নাম তাঁরা দিয়েছে ‘ত্রিপুরার জন্য তৃণমূল’। গঠিত হয়েছে স্টিয়ারিং কমিটি। দায়িত্বে আছেন সুস্মিতা দেব, সুবল ভৌমিক, আশিষ লাল সিংহ। জনসংযোগের পাশপাশি তৃণমূল স্তরে সংগঠন মজবুত করার কাজ চলছে, প্রচারে বেরিয়ে যদিও প্রথম দিনেই আক্রান্ত হয়েছেন সুস্মিতা দেব। যা নিয়ে তীব্র নিন্দা জানিয়েছে তৃণমূল। এবার শুভেন্দু অধিকারী আবার বললেন ত্রিপুরায় তৃণমূল একটিও আসন পাবে না। সব মিলিয়ে, উত্তপ্ত ত্রিপুরার রাজনৈতিক পরিবেশ, আর সেই উত্তাপের রেশ বাংলা রাজনীতিতেও সমানভাবে লক্ষ্যণীয় কারণ আবারও লড়াইয়ের ময়দানে দুই যুযুধান প্রতিপক্ষ, তৃণমূল ও বিজেপি!

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ