Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

বড় খবরঃ ২০২২ আইপিএলের নয়া দুই দল আহমেদাবাদ ও লখনউ, নিলামে বাজিমাৎ গোয়েঙ্কা, সিভিসির

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

প্রত্যাশিত ভাবেই ভারত-পাক হাইভোল্টেজ ম্যাচের পরেরদিন অর্থাৎ আজ নয়া দুই আইপিএল ফ্র‍্যাঞ্চাইজির নাম ঘোষণা করল বিসিসিআই। নতুন দুটি দল ২০২২ থেকেই আইপিএলে অংশগ্রহণ করবে।

বিশ্বের সবথেকে জনপ্রিয় ও ধনী টি-টোয়েন্টি প্রতিযোগিতা আইপিএলের নয়া দুটি দলের সংযোজন নিয়ে তীব্র জল্পনা কল্পনা চলছিল বেশ কিছু দিন ধরেই। নতুন ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিকানার দৌড়ে নাম লিখিয়েছিলেন একাধিক বড় নাম। বিসিসিআইয়ের ইনভাইটেশন টু টেন্ডার সংগ্রহ করে আদানি গোষ্ঠী, সঞ্জীব গোয়েঙ্কার আরপি গ্রুপস, ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের মালিক গ্লেজার পরিবারের পাশাপাশি বলিউডের পাওয়ার কাপল দীপিকা পাড়ুকোন-রণবীর সিংও। আইপিএল দলের মালিক হওয়ার আগ্রহ দেখিয়েছিল আহমেদাবাদের টরেন্ট ফার্মা, নবীন জিন্দল, ক্যাপ্রি গ্লোবাল, হিন্দুস্তান টাইমস মিডিয়ার মতো সংস্থা।

সংশ্লিষ্ট মহলের তথ্য অনুযায়ী আইপিএলের নতুন দল হওয়ার দৌড়ে এগিয়েছিল আহমেদাবাদ, লখনউ, ইন্দোর, কটক ও গুয়াহাটি। আজ সকাল ১১টার মধ্যে দুবাইতে ফাইনাল বিড জমা করে আগ্রহী প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তিরা। নতুন দুই দল ঘোষণার আগে সংযুক্ত আরব আমিরশাহিতে পৌঁছে গিয়েছিলেন ম্যাঞ্চেস্টার ইউনাইটেডের মালিক গ্লেজার পরিবারের সদস্যরা। তাদের সুবিধার জন্যেই ইনভাইটেশন টু টেন্ডার সংগ্রহের সময়সীমা বাড়িয়েছিল বিসিসিআই। দুটি নতুন দলের মালিকানা বাবদ ৭০০০ থেকে ১০০০০ কোটি টাকা আয়ের আশা রেখেছিল ভারতীয় বোর্ড।

আজ দুবাইয়ের নিলামে অংশগ্রহণকারীরা প্রথমে দুটি এনভেলপ জমা করেন বিসিসিআইয়ের কাছে। একটিতে ছিল তাদের ব্যক্তিগত আর্থিক তথ্য ও অন্যটিতে নতুন দলের জন্যে বিড। প্রথমে ব্যক্তিগত আর্থিক মাপকাঠির যোগ্যতামান পরীক্ষা করে দেখা হয়। আইপিএলের নয়া দুটি দলের মালিক হলেন, আরপি-সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গ্রুপ ও সিভিসি ক্যাপিটাল। আজকের নিলামে সর্বোচ্চ বিড করেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কারা। তাদের ফাইনাল বিড ছিল ৭২০০ কোটি টাকার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বিফ সিভিসি ক্যাপিটালসে। তারা ৫২০০ কোটি টাকার বিড জমা দেয়। ৫০০০ কোটি টাকার কাছাকাছি বিড করেছিল আদানি গোষ্ঠীও।

আইপিএলের নয়া দুটি দলের মালিক হলেন, আরপি-সঞ্জীব গোয়েঙ্কা গ্রুপ ও সিভিসি ক্যাপিটাল। আজকের নিলামে সর্বোচ্চ বিড করেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কারা। তাদের ফাইনাল বিড ছিল ৭০৯০ কোটি টাকার। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বিফ সিভিসি ক্যাপিটালসে। তারা ৫৬০০ কোটি টাকার বিড জমা দেয়। ৫০০০ কোটি টাকার কাছাকাছি বিড করেছিল আদানি গোষ্ঠীও। সর্বোচ্চ বিড করে লখনউ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিকানা পেলেন সঞ্জীব গোয়েঙ্কারা। অন্যদিকে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ বিড করে আহমেদাবাদ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিক সিভিসি ক্যাপিটালস।দুই বিডারই তাদের প্রথম পছন্দ হিসাবে আহমেদাবাদ ও দ্বিতীয় পছন্দ হিসাবে লখনউয়ের নাম জমা দিয়েছে বিসিসিআইয়ের কাছে। এক্ষেত্রে সর্বোচ্চ বিডারের পছন্দই প্রাধান্য পাবে। সংশ্লিষ্ট সূত্র অনুযায়ী সঞ্জীব গোয়েঙ্কারা লখনউয়ের মালিকানা নিচ্ছেন। অন্যদিকে আহমেদবাদ ফ্র‍্যাঞ্চাইজির মালিকানা নেবে সিভিসি ক্যাপিটালস