Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কোহলির দুরন্ত ইনিংস সত্ত্বেও পাকিস্তানের বিরুদ্ধে লজ্জার হার ভারতের

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ভারতঃ ১৫১/৭ (২০)
পাকিস্তানঃ ১৫২/০ (১৭.৫)

শেষবার এই দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর দেখা হয়েছিল ২০১৯ বিশ্বকাপে। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে শেষ হাসি হেসেছিলেন বিরাটরাই। আজ, দীর্ঘ দুই বছর পর দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে খেলতে নামল ভারত। প্রতিবেশী দেশের সঙ্গে হাইভোল্টেজ ম্যাচ খেলেই টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ অভিযানের শুরু করলেন বিরাটরা। সেই ম্যাচে পাকিস্তানের কাছে লজ্জাজনক হারের মুখ দেখতে হয়েছে ভারতকে।

বিশ্বকাপের মঞ্চে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর সাক্ষাত হবে আর অতীত পরিসংখ্যানের কথা উঠবে না, এমনটা হওয়াই অস্বাভাবিক। টি-টোয়েন্টি বা পঞ্চাশ ওভার দুই ফরম্যাটের বিশ্বকাপেই ভার‍তের বিরুদ্ধে লজ্জার রেকর্ড পাকিস্তানের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে একটি ফাইনাল সহ ৫টি ম্যাচের ৫টিতেই ভারতের কাছে হারের মুখ দেখেছে প্রতিবেশী দেশটি। পঞ্চাশ ওভারের ক্রিকেটে এই রেকর্ড আরোই করুণ। সাতটি ম্যাচের সাতটিতেই জয়ী হয়েছে ভারতীয় দল। আজকের দাপুটে জয় দিয়ে সেই ইতিহাসের ইতি টানলেন বাবররা।

দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের পিচের চরিত্র ভালোই জানেন পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। টসে জিতে প্রথমে বোলিং করবার সিদ্ধান্ত নিতে দ্বিতীয়বার ভাবতে হয়নি তাকে। হাইভোল্টেজ ম্যাচে মহম্মদ হাফিজ, শোয়েব মালিকদের মতো অভিজ্ঞদের সঙ্গে শাহিন আফ্রিদির মতো নতুন মুখের সংমিশ্রনে দল সাজায়েছিল পাকিস্তান। ভারতীয় অধিনায়ক বিরাটও জানান টসে জিতলে তিনিও ফিল্ডিং নিতেন। প্রথম একাদশে ভুবনেশ্বর কুমার, মহম্মদ শামি, বরুণ চক্রবর্তী ও জসপ্রীত বুমরাহ’র সঙ্গে পঞ্চম বোলার হিসাবে রবীন্দ্র জাদেজাকে খেলিয়েছে ভারত। বিশেষজ্ঞ ব্যাটসম্যান হিসাবেই দলে জায়গা পান হার্দিক পান্ডিয়া।

প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ব্যাটিং বিপর্যয়ের মুখে পড়তে হয়েছে বিরাটদের। তিন ওভারের মধ্যে দুই ওপেনারের উইকেট খুইয়ে ফেলে ভার‍ত। শাহিন আফ্রিদির প্রথম ওভারেই শূণ্য রানে এলবিডব্লু হয়ে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন রোহিত শর্মা। বেশিক্ষণ টেকেননি রাহুলও। ৮ বলে ৩ রান করে শাহিন আফ্রিদির বলে বোল্ড হয়ে যান ভারতীয় ওপেনার। ভালো শুরু করেও হাসান আলিকে নিজের উইকেট উপহার দিয়েছেন সূর্যকুমার যাদব (৮ বলে ১১)। পাওয়ার প্লে’র শেষে ৩ উইকেটের বিনিময়ে মাত্র ৩৬ রান তোলে ভারত। দলগত ৩৬ রানের মধ্যে ২০ রানই আসে বিরাট কোহলির ব্যাট থেকে। অধিনায়ক কোহলির সঙ্গে জুটি বেঁধে ভারতীয় ইনিংসকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার কাজটা ভালোই করছিলেন ঋষভ(৩০ বলে ৩৯)। ক্রিজে সেট হওয়ার পর শাদাব খানের বলে বড় শট খেলতে গিয়ে ক্যাচ তুলে সাজঘরে ফেরেন পন্থ। ভারতের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৯ বলে ৫৭ রান করে শাহিনের তৃতীয় শিকার হয়েছেন বিরাট কোহলি। কোহলির অধিনায়কোচিত ইনিংসে ভর করেই নির্ধারিত কুড়ি ওভারে ১৫১ রান তোলে ভার‍ত।

১৫২ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে একটিবারের জন্যেও সমস্যায় পড়েনি পাকিস্তান। তাদের দুই ওপেনার বাবর আজম – মহম্মদ রিজওয়ানের দৌলতে ১৩ ওভারে কোনও উইকেট না হারিয়ে ১০০ রানের গন্ডি পেরিয়ে যায় পাকিস্তান। অধিনায়কোচিত ইনিংস খেলেছেন বাবর আজম, তাকে যোগ্য সঙ্গত জুগিয়েছেন মহম্মদ রিজওয়ান। ভার‍তীয় বোলিং আক্রমণের কেউই আজ দাগ কাটতে পারেননি। শেষ ১৮ বলে জয়ের জন্যে ১৭ রান দরকার ছিল পাকিস্তানের। ২.১ ওভার বাকি থাকতেই দশ উইকেটে ম্যাচ জেতে পাকিস্তান। ৫৫ বলে ৭৯ রান করে রিজওয়ান ও ৫২ বলে ৬৮ করে অপরাজিত থেকে যান বাবর।