Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

SL vs BAN : সুপার টুয়েলভে বাংলাদেশকে হারিয়ে দারুন শুরু শ্রীলঙ্কার

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

বাংলাদেশঃ ১৭১/৪ (২০)
শ্রীলঙ্কাঃ ১৭২/৫ (১৮.৫)

৫ উইকেটে জয়ী শ্রীলঙ্কা

ঘরের মাঠে অষ্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ঐতিহাসিক সিরিজ জয়ের পর যথেষ্ট আত্মবিশ্বাস নিয়েই ওমানে পা রেখেছিলেন মাহমুদউল্লাহরা। তারপর বিশ্বকাপ রাউন্ড ওয়ানের প্রথম ম্যাচেই বড়সড় ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। স্কটল্যান্ডের কাছে ছয় রানে হারের মুখ দেখবার পর ওমান, পাপুয়া নিউগিনিকে হারিয়ে সুপার টুয়েলভে জায়গা পেয়েছেন সাকিবরা। অন্যদিকে বিশ্বকাপের আগে কুড়িটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলে মাত্র তিনটিতে জয়ের মুখ দেখেছিল শ্রীলঙ্কা। ২০১৪ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নদের খেলতে হয়েছে রাউন্ড ১য়ে। তিনটি ম্যাচের তিনটিতেই জিতে সুপার টুয়েলভে ওঠেন দাসুন শানাকারা।

শারজায় ধীরগতির পিচের কথা মাথায় রেখে প্রথমে বোলিং করবার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন শ্রীলঙ্কা অধিনায়ক দাসুন শানাকা। আজ বাংলাদেশ ইনিংসের সূচনাটা খারাপ হয়নি। পাওয়ার প্লে’র শেষ বলে আউট হওয়ার আগে নাঈমের সঙ্গে জুটি বেঁধে দলের স্কোর ৪০ রানে পৌঁছে দিয়েছিলেন লিটন দাস (১৬ বলে ১৬)। রাউন্ড ওয়ানে দারুন পারফর্ম করা সাকিব আজ রান পাননি। ৭ বলে ১০ রান করে চামিকা করুনারত্নের বলে বোল্ড হয়ে যান এই তারকা অলরাউন্ডার। নাঈমের সঙ্গে জুটি বেঁধে বাংলাদেশের ইনিংস সামলেছেন মুশফিকুর রহিম। শেষ কয়েকটি ম্যাচের রান খরা কাটিয়ে আজ রহিমের ব্যাট থেকে এসেছে ৩৭ বলে অপরাজিত ৫৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস। সতেরোতম ওভারে বিনুরা ফার্নান্ডোর শিকার হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন এই ম্যাচে বাংলাদেশের সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী মহম্মদ নাইম (৫২ বলে ৬২)। তবে মুশফিকুরের আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ের দৌলতে নির্ধারিত কুড়ি ওভারে বাংলাদেশের স্কোরবোর্ডে ওঠে ১৭১ রান। শ্রীলঙ্কার হয়ে একটি করে উইকেট পেয়েছেন চামিকা করুণারত্নে, বিনুরা ফার্নান্ডো ও লাহিরু কুমারা।

১৭২ রানের বড়ো লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই কুশল পেরেরার (৩ বলে ১) উইকেট হারায় শ্রীলঙ্কা। প্র‍থম ওভার বল করতে আসা নাসুম আহমেদের চতুর্থ বলেই বোল্ড হয়ে যান এই বাম হাতি ব্যাটার। তিন নম্বরে ব্যাট করতে আসা চরিথ আসালঙ্কার আক্রমণাত্মক ব্যাটিংয়ে ভর করে পাওয়ার প্লে’তে ৫৪ রান তুলে ফেলেছিল শ্রীলঙ্কা। নবম ওভারে জোড়া উইকেট তুলে বাংলাদেশকে ম্যাচে ফিরিয়েছিলেন সাকিব। সেট হয়ে যাওয়া পাথুম নিশাঙ্কা (২১ বলে ২৪)কে ফেরানোর পর আভিষ্কা ফার্নান্ডোকেও শূণ্য রানে প্যাভিলিয়নের পথ দেখান তারকা অলরাউন্ডার। রান পাননি ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাও (৫ বলে ৬)।

৭১-১ থেকে ৯ বলের মধ্যে ৭৯-৪ হয়ে যায় স্কোরবোর্ড। চরিথা আসালঙ্কার সঙ্গে জুটি বেঁধে শ্রীলঙ্কার ইনিংস সামলান ভানুকা রাজাপাক্ষে। আফিফ হোসেনের ১৩তম ও মাহমুদউল্লাহ’র ১৪তম ওভার থেকে ৩১ রান সংগ্রহ করে বাংলাদেশের উপর পাল্টা চাপ তৈরি করেন ভানুকা-চরিথা জুটি। মুস্তাফিজুরের ১৫তম ওভারে আসালঙ্কার সহজ ক্যাচ মিস করেছেন লিটন দাস। ১৬তম ওভারে দুটি ছয়, দুটি চার মেরে ২২ রান সংগ্রহ করেন ভানুকা রাজাপাক্ষে। শেষ তিন ওভারে জয়ের জন্যে মাত্র ১৩ রান প্রয়োজন ছিল শ্রীলঙ্কার। মুস্তাফিজুরের ১৮তম ওভার থেকে আসে ৪ রান। উনিশতম ওভারের দ্বিতীয় বলে ৩১ বলে ৫৩ রান করা ভানুকা রাজাপাক্ষে বোল্ড করে দেন নাসুম আহমেদ। তবে সাত বল বাকি থাকতেই জয়ের রান আসে আসালঙ্কার ব্যাট থেকে। শ্রীলঙ্কার পক্ষে সর্বোচ্চ ৮০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ম্যাচের নায়ক চরিথা আসালঙ্কাই।