Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ভারত – পাক হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগে জোম্যাটোর ট্রোলিংয়ে মজে নেটিজেনরা

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

ক্রিকেটের ময়দানে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী মুখোমুখি মানেই উত্তেজনার পারদ চড়বে সীমান্তের দুইপারে। বাইশ গজের উষ্ণতায় হাত সেঁকবেন নেটিজেনরাও। দীর্ঘ দুই বছরের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আজ দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের বাইশ গজে দেখা হবে দুই প্রতিবেশী দেশের। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের মুখোমুখি হবে ভারত। সেই ম্যাচের আগে মুখ খুলেছেন প্রাক্তন ক্রিকেটার থেকে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীও। নেটিজেনরাও কম যান না। বিশ্বকাপের মঞ্চে ভার‍তের বিরুদ্ধে পাকিস্তানের রেকর্ড স্মরণ করানো একাধিক মিমে ছেয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার রঙিন দুনিয়া। তবে এইসবের মাঝে নজর কেড়েছে ফুড ডেলিভারি অ্যাপ জোম্যাটোর বুদ্ধিদীপ্ত ট্রোলিং।

ভারতের জনপ্রিয় ফুড ডেলিভারি অ্যাপ্লিকেশান জোম্যাটোর সোশ্যাল মিডিয়া উপস্থিতিও বেশ আকর্ষণীয়। নানাবিধ ঘটনায় মজাদার মন্তব্য করে আগেও নেটিজেনদের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছে এই সংস্থাটি। এবার ট্রোলিংয়ের জন্যে জোম্যাটো বেছে নিয়েছে পাকিস্তান ক্রিকেট দলকে। হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগের দিন জোম্যাটোর মজাদার ট্যুইট – ” প্রিয় পিসিবি, আজ রাত্রে তোমাদের যদি বার্গার বা পিজ্জার দরকার হয় মনে রাখবে একটি মাত্র মেসেজ করলেই আমরা আছি। “

হাইভোল্টেজ ম্যাচের আগের দিন কেন পাকিস্তান দলকে পিজ্জা, বার্গার খাওয়ানোর প্রস্তাব দিল জোম্যাটো? এই রহস্যের উত্তর জানতে গেলেও দারস্থ হতে হবে সোশ্যাল মিডিয়ার। ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপে শেষবার ভার‍তের মুখোমুখি হয়েছিল পাকিস্তান। প্রথমে ব্যাট করে ৩৩৬ রান তুলেছিলেন কোহলিরা। বৃষ্টিবিঘ্নিত ম্যাচে ডিএলএস মেথড অনুযায়ী ৪০ ওভারে জয়ের জন্যে ৩০২ রান করতে হতো পাকিস্তানকে। নির্ধারিত ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে মাত্র ২১২ রান তুলতে পেরেছিলেন বাবররা। পঞ্চাশ ওভারের বিশ্বকাপে ভারতের কাছে সাতটি ম্যাচের সাতটিতেই হেরে বিধ্বস্ত হয়ে পড়েছিলেন পাক সমর্থকরা। তাদের মধ্যে মোমিন সাকিব নামের এক সমর্থকের সাক্ষাৎকার নেট দুনিয়ায় ভাইরাল হয়ে যায়। সেই সমর্থকের অদ্ভুত দোষারোপ দেখে হেসে গড়িয়ে পড়েছিলেন ওয়াগার দুইপারের নেটিজেনরাই।

সাকিব কি বলেছিলেন সেই ভিডিওতে?

চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের কাছে বিশ্বকাপের মঞ্চে একের পর এক হার একেবারেই মেনে নিতে পারেননি মোমিন। চোখের সামনে নিজের দলের বিপর্যয়ের সাক্ষী হওয়ার পর সাক্ষাৎকার দিতে গিয়ে একেবারেই ভেঙে পড়েছিলেন তিনি। কাঁদতে কাঁদতে সাকিব বলেন – ” মারো আমাকে, মারো। হঠাৎ করে সবকিছু বদলে দিল এই হার।” তবে হারের কারণ হিসাবে সরফরাজদেরকেই বেছে নেন সাকিব। তার অভিযোগ, ম্যাচের আগের দিন বার্গার, পিজ্জা খেয়ে কাটিয়েছেন পাকিস্তানী ক্রিকেটাররা। ফিটনেস সংক্রান্ত চিন্তা না করে আয়েশি জীবনযাপনেই ব্যস্ত থাকেন সরফরাজরা। এই অভিযোগ ও মজাদার ভিডিওকেই ইঙ্গিত করে মজাদার ট্রোল করেছে জোম্যাটো।

৫০ ওভারের বিশ্বকাপেই শুধু নয়, টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপেও ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচটি ম্যাচের পাঁচটিতেই হেরেছে পাকিস্তান। আজ সেই সমস্ত লজ্জার পরিসংখ্যান ভুলেই মাঠে নামতে চাইবেন বাবররা। কিন্তু তা হতে দেওয়ার পাত্র নয় সোশ্যাল মিডিয়া।

Categories