Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ডেটিংয়ের জন্য চাই বৃদ্ধ ধনী পাত্র! ওয়েবসাইট ম্যাচে বাবার প্রোফাইল

1 min read

।।সৌম্য বাগচী।।

আভা লুইস নামেক একজন তরুণীর জীবনে চরম আকর্ষণীয় (!) ঘটনা ঘটে গেল। ডেটিংয়ের জন্য উপযুক্ত পাত্র খুঁজতে গিয়ে নিজের বাবাকেই খুঁজে পেয়েছেন এই তরুণী। আভা লুইস একটি ডেটিং সাইটে নিজের প্রোফাইল পোস্ট করেছিলেন। সেখানে তিনি উল্লেখ করেছিলেন, বৃদ্ধ ধনী পুরুষদের তিনি জীবন সঙ্গী হিসাবে পেতে চান। কিন্তু সেটি করতে গিয়ে নিজের বাবাকেই খুঁজে পেয়েছেন এই তরুণী (ক্রেডিট-টিকটক/ইনস্টাগ্রাম)। আভা ‍‘সুগার ড্যাডি ডেটিং ওয়েবসাইট’ সার্চ করছিলেন ডেটিংয়ের জন্য একজন বৃদ্ধ ধনী ব্যক্তির সন্ধানে। আর সেখানেই তিনি খুঁজে পান নিজের পিতাকে।

জীবনে অনেক সময় এমন দুর্ঘটনা ঘটে যা আমরা আশাও করি না। টিকটক ইনফ্লুয়েন্সার আভা লুইসের কথাই বলা যাক, তাঁর সঙ্গে যা ঘটেছে তা সত্যিই অদ্ভুত। ২২ বছরের এই তরুণী ‍‘সুগার ড্যাডি ডেটিং’ ওয়েবসাইটে নিজের জন্য একজন ধনী বৃদ্ধ লোক খুঁজতে গিয়ে কিনা পেয়ে গেলেন নিজের বাবার প্রোফাইল। যা দেখে চরম হতবাক হয়ে পড়েন এই তরুণী।

টিকটকে নিজের এই ঘটনাটি শেয়ার করার সময়, আভা লুইস ডেটিং ওয়েবসাইটে তাঁর সঙ্গে এই অদ্ভুত ঘটনাটি কীভাবে ঘটেছে তা জানিয়েছেন। তিনি টিকটক ভিডিওতে বলেছেন, ‍‘এটি একটি খুব বিরক্তিকর অভিজ্ঞতা ছিল।’ ওই তরুণী সেই সঙ্গে বলেন, ‍‘আমি চেয়েছিলাম, ওয়েবসাইট ব্যবহার করে ধনী পুরুষদের সঙ্গে ডেট করে যাতে আমি দামি উপহার পেতে পারি। কিন্তু আমি আশা করিনি যে আমার বাবাকে এখানে পাব। এটি একটি মর্মান্তিক খারাপ অভিজ্ঞতা’

সুগার ড্যাডির বদলে নিজে ‘বাবা’:
বিদেশে বয়স্ক ধনী ব্যক্তিরা নিজেদের থেকে কম বয়সী মেয়েদের ডেটিং করতে পছন্দ করেন এবং এর জন্য ওয়েবসাইটও তৈরি করা হয়েছে। একজন বয়স্ক মানুষ এবং একটি ছোট মেয়ের মধ্যে ডেটিং সম্পর্ককে ‘সুগার ড্যাডি ডেটিং’ বলা হয়। মেয়েরা দামি উপহার এবং ভাল জীবনযাপনের জন্য এই ধরনের সম্পর্কে লিপ্ত হয়। আভা একই উদ্দেশ্যে এই ডেটিং ওয়েবসাইট ব্যবহার করেন। এখানে তাঁর বাবার প্রোফাইল দেখার পর, আভা তাঁকে ‍‘হাই ড্যাডি’ মেসেজও পাঠান। এরপর ওই তরুণীর বাবা আভাকে ব্লক করে দেয় এবং বলে এ নিয়ে কখনও যেন কথা না হয়। আভা তাঁর মাকেও এই বিষয়ে জানিয়েছে। পাশপাশি তিনি জানিয়েছেন, মুখ বন্ধ করার জন্য তাঁর বাবা একটি দামি ব্রেসলেট নিয়ে এসেছেন।

টিকটক ভিডিও দেখেছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ:
অদ্ভুত সম্পর্কের এই টিকটক ভিডিও দেখেছেন লক্ষ লক্ষ মানুষ। কিছু লোক তাঁর অবস্থার জন্য সমবেদনা প্রকাশ করেছেন, আবার অনেকে এই ভিডিও শেয়ারও করেছেন। একজন বলেছেন, তিনি এমন একটি ওয়েবসাইটে তার সৎ মামাকে খুঁজে পেয়েছেন। অপর একজন বলেন, সে তাঁর স্কুল শিক্ষককে খুঁজে পেয়েছে। ‍‘‍সুগার ড্যাডি’ ওয়েবসাইটের অভিজ্ঞতার কারণে আভা অতীতেও একবার শিরোনামে এসেছিলেন। ২০১৯ সালে ভাইস চ্যানেলের সঙ্গে কথা বলার সময় আভা বলেছিলেন, তিনি কলেজ থেকে এমন একটি ওয়েবসাইটে রয়েছেন। যেখানে তিনি কেবলমাত্র বিশেষ কিছু তারিখকে গুরুত্ব দিয়ে পুরুষদের খুশি করেন, তবে কোনও ধরণের শারীরিক সম্পর্কের মধ্যে যান না।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ