Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কুমিল্লার ঘটনায় গ্রেফতার ইকবাল হোসেনের সাত দিনের পুলিশি রিমান্ড

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

কুমিল্লা শহরের নানুয়া দীঘির পাড়ে একটি পুজো মণ্ডপে পবিত্র কোরান শরিফ রাখার দায়ে গ্রেফতার হওয়া ইকবালকে সাতদিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। একই মামলায় আরও তিনজনকে ৭ দিনের রিমান্ড দেওয়া হয়েচে। এই তিন জন হলেন, ফয়জল, হুমায়ুন ও ইকরাম। আজ (শনিবার) দুপুরে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মিথিলা জাহান উর্মি ইকবালের বিরুদ্ধে এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে স্থানীয় সময় অনুযায়ী বেলা ১২টার দিকে ইকবালসহ তিন আসামিকে আদালতে তোলা হয়। ধর্মীয় অবমাননার একটি মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখিয়ে ওই মামলায় ইকবালের বিরুদ্ধে ১০ দিন রিমান্ডের আবেদন জানান তদন্তকারী কর্মকর্তা মফিজুল ইসলাম।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এম তানভীর জানিয়েছেন, গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদেও পবিত্র কোরান শরিফ অবমাননার বিষয়টি স্বীকার করেছেন ইকবাল। তবে কেন সে এই কাজ করেছে বা তাকে দিয়ে কারা এ কাজ করিয়েছে, এসব প্রশ্নের কোনও জবাব পাওয়া যায়নি। জিজ্ঞাসাবাদ চলাকালীন ইকবাল একেক সময় একেক তথ্য দিয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। এক পুলিশ কর্তা বলেছেন, ‘ভবঘুরে, মাদকসেবী বলে পরিচিত এই যুবক কোনও প্রশ্নেরই সদুত্তর দেয়নি বলেও জানা গিয়েছে। তাই জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তার বিরুদ্ধে আমরা ১০ দিনের রিমান্ডের আবেদন জানিয়েছিলাম। আদালত সাত দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন।’

গত ১৩ই অক্টোবর ভোরে কুমিল্লার নানুয়া দীঘির পাড়ের পূজামণ্ডপে পবিত্র কোরান শরিফ পাওয়া যায়। এরপরই দেশের কয়েক স্থানে সংঘর্ষ ও হামলার ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সিসি ফুটেজ দেখে ইকবালকে শনাক্ত করা হয়। এরপর গত বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত এলাকার সুগন্ধা পয়েন্ট থেকে তাকে আটক করা হয়। আটকের রাতে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার কার্যালয়ে নিয়ে আসা হয়। এরপর স্থানীয় সময় অনুযায়ী শুক্রবার ভোর সাড়ে ছ’টার দিকে কক্সবাজারের পুলিশ সুপার কার্যালয় থেকে কুমিল্লায় নিয়ে আসা হয় ইকবালকে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ

Categories