Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

দীপাবলি বর্জনের ডাক বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের

1 min read

।।প্রথম কলকাতা।।

বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের উপর দুর্গা পুজো চলাকালীন বা তার পরেও যে ধরনের একের পর এক হামলা চলছে, তাতে নিনজেদের নিরাপদ মনে করছেন না ওপার বাংলার হিন্দুরা। এবার তারা তাই নমো নমো করে শ্যামা পুজো করার সিদ্ধান্ত নিলেও দীপাবলির উৎসব বর্জন করার ডাক দিয়েছে।
এবার বাংলাদেশে যে ভাবে ধর্মের নামে বাঙালি হিন্দুদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব দুর্গা পুজো পণ্ড করে দিয়ে তাদের মন্দির, ঘরবাড়ি ও ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে যেভাবে হিংসাত্মক হামলা চালিয়ে অস্থিরতা তৈরি করা হয়েছে, মানতেই হবে, তা নজিরবিহীন। এর ঠিক দুই দশক আগে ঘটে যাওয়া ২০০১ সালের হামলা থেকে এবারের আক্রমণ অনেকগুলো কারণে আলাদা। আগের হামলার ঘটনাগুলো ছিল রাজনৈতিক প্রতিহিংসা। ভোটের হিসাব-নিকাশ, সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজন একটি দলের প্রতি আস্থাশীল বিবেচিত হওয়ায় তখন তাঁরা প্রতিশোধের শিকার হয়েছিলেন। ভোটের বাক্সে তার জবাবও পেয়েছে বিএনপি-জামাত জোট।


কিন্তু এবারের হামলা একেবারেই আলাদা। এবার দেখা গেল, ধর্মীয় আবেগের নজিরবিহীন অপব্যবহার এবং সে কারণে হিন্দু সম্প্রদায় তাদের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ উৎসবই উদ্যাপনই করতে পারল না। ধর্ম পালনের সাংবিধানিক অধিকারটুকুও এবার চরমভাবে লঙ্ঘিত হল। এটি বাংলাদেশের জন্য একটি স্থায়ী কলঙ্কচিহ্ন হয়ে রইল। তা-ও ঘটল এমন সময়ে, যখন ক্ষমতায় আছে সেই দল, যার প্রতি আস্থা রাখার জন্য ২০ বছর আগে হিন্দুরা নিগৃহীত হয়েছিল।

দুর্গাপুজোয় ‘সাম্প্রদায়িক অপশক্তির নারকীয় তাণ্ডব’ ও ‘বিরাজমান পরিস্থিতিতে নিরাপত্তাহীনতা’র কারণে আগামী ৪ নভেম্বর অনুষ্ঠেয় শ্যামাপূজায় দীপাবলির উৎসব বর্জনসহ চার দফা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ। তবে চার দফা কর্মসূচি প্রসঙ্গে পরিষদের পক্ষ থেকে এখনও বিশদে কিছু জানানো হয়নি। তবে জানানো হয়েছে, উৎসব বর্জন করলেও পূজা যথারীতি অনুষ্ঠিত হবে।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ

Categories