Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

ধারের টাকায় ব্যবসা শুরু করে সাত মাসেই মিলিয়নার

1 min read

।। প্রথম কলকাতা ।।

করোনাকালীন লকডাউনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ দফায় দফায় বাড়ছিল সে সময়টাতে দেখলেন ক্যাম্পাসের সিনিয়ররা যে যার মতো কিছু একটা করছেন। কেউ কেউ পোশাক, ড্রাই ফুডস, হ্যান্ড পেইন্টেড ড্রেস আবার কেউ কসমেটিকস আইটেম ইত্যাদি অনেক কিছু নিয়ে কাজ করছেন। এসব দেখে তাঁর মনেও উঁকি দিল কিছু একটা করার। শুরুটা তখনই। যা ছিল একেবারে শূন্য থেকে। বলছিলাম বাংলাদেশের এক বিশ্বিবদ্যালয় শিক্ষার্থীর উদ্যোক্তার হওয়ার গল্প। নাম, সা‌দিয়া ইসলাম মৌ। পড়েন হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। সাদিয়া একজন ব্যবসায়ী হবেন, এমন প্ল্যান কখনো মনে কাজ করেনি। কিন্তু ক‌রোনাকালীন শিক্ষা প্র‌তিষ্ঠান বন্ধ‌ থাকার কারণে ক্যাম্পাসের সিনিয়রদের কিছু একটা করতে দেখে অনুপ্রাণিত হন সাদিয়া। ভাবনাটা এমন- হাত খরচার টাকা নিজে আয় করবেন। সম্ভব হলে পরিবারেও সহযোগিতা করবেন। হলও তাই। ব্যবসার মাত্র সাত মাসে সাদিয়া মিলিয়নিয়ার বনে যান।

সাদিয়া’র উদ্যোক্তা হওয়ার গল্পের শুরুটা ছিল-


পুঁ‌জি নেই, খালি হাত বলতে যা বোঝায়। তার ওপর ক‌রোনাকালীন সময়ে বাসা থে‌কে বের হতে নিষেধ। তাতেও সে দমে যায়নি। কারণ তীব্র ইচ্ছাশ‌ক্তি ছিল তার মাঝে। প্রথমে টাকার জোগাড় হল এক বন্ধুর কাছ থেকে ধার নিয়ে। পরে পরিবারকে বুঝিয়ে কাজে নেমে পড়লেন। তৈরি করলেন একটা অনলাইন প্ল্যাটফর্ম। শুরুর দি‌কে কাস্টমারের সঙ্গে ডিল করা, দাম নির্ধারণ করা, ডেলিভারি সেবা কীভাবে দিতে হয়, এসব কাজ শি‌খে‌ছেন। তাতে লাভের মুখ দেখতে না পেলেও হাল ছা‌ড়েননি। লোকে যাকে চিনে বেশি, তার উপর আস্থা রাখে বেশি, এমন ভাবনায় সা‌দিয়া নিজের পরিচিতির গণ্ডি আরো বাড়াতে লাগলেন। তাঁর ক্যাম্পাসে একটা অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ছিল, যেটা Students E-commerce platform নামে পরিচিত। এটির উদ্দেশ্য হল বিশ্ববিদ্যালয়ের সব শিক্ষার্থীকে স্বাবলম্বী করে তোলা।

সাদিয়া ওই প্ল্যাটফর্মে ছিলেন শুরু থেকেই। এরপর সাদিয়া তার বাবার চাকরি সূত্রে কুমিল্লায় গে‌লেন। কুমিল্লা এসে যুক্ত হয়ে গেলেন সেখানকার সেলার হিসেবে। সেখানকার ঐতিহ্যবাহী খাদি পোশাক নিয়ে শুরু করলেন একদম নতুনভাবে। তার বিক্রি করা পণ্যের মধ্যে ছিল খাদি কাপড়ের পাঞ্জাবি, শাড়ি, থ্রিপিসিইত্যাদি। এটি সাত মাস কন্টিনিউ করে সেল করে ২০ লাখ টাকার বেশি। নিজে কিছু করার উদ্যোমী নেশা পেয়ে বসেছিল সাদিয়াকে। হাতে কোনো টাকাও ছিলনা, তাতেও দমে যায়নি সে। বন্ধুর কাছ থেকে ধার করা ৪হাজার টাকায় সাদিয়া এখন মিলিয়নিয়ার!

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ