Prothom Kolkata

Popular Bangla News Website

কোয়াড সামিটে মাথাব্যথা চিন! ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে স্থিতিশীলতা রক্ষায় বাড়তি গুরুত্ব

1 min read

।।সৌম্য বাগচী।।


কোয়াড সামিটের যৌথ বিবৃতিতে চিন শব্দটি উল্লেখ না করা হলেও পরোক্ষভাবে সবথেকে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে ইন্দো-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে বেজিংয়ের ক্রমশ দখলদাড়ি বাড়ানোর বিষয়টি। জোর দেওয়া হয়েছে এই অঞ্চলে গণতন্ত্র স্থিতিশীল রাখার বিষয়টিও। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেছেন, ‍‘কোয়াড শীর্ষ সম্মেলনটি একটি বার্ষিক ইভেন্ট হয়ে উঠবে বলে আশা করা হচ্ছে। সমস্ত অংশীদাররা বিশ্বাস, স্থিতিস্থাপকতা এবং সক্ষমতার ভিত্তিতে গ্রুপের কর্মসূচিকে আরও বিস্তৃত করার সিদ্ধান্ত নেবে।
মার্কিন প্রেসিডেন্টের কার্যালয় হোয়াইট হাউসে শুক্রবার বৈঠক করেন কোয়াডের চার সদস্য—আমেরিকা, অস্ট্রেলিয়া, ভারত ও জাপানের শীর্ষ নেতারা।


মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন এবং অস্ট্রেলিয়া, ভারত ও জাপানের নেতারা ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলে গণতন্ত্র স্থিতিশীল রাখার ওপর জোর দিয়েছেন। এবারই প্রথমবারের মতো প্রত্যক্ষ্যভাবে কোয়াডের নেতাদের মধ্যে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে চার দেশের নেতারা করোনার টিকা, আঞ্চলিক পরিকাঠামো, জলবায়ু পরিবর্তন ও কম্পিউটার প্রযুক্তিতে ব্যবহৃত সেমিকন্ডাক্টর সরবরাহের বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন।


স্কট মরিসন: বৈঠকের শুরুতে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসন বলেন, ‘আমরা উদার ধারার গণতান্ত্রিক দেশ। আমরা স্বাধীনতার পক্ষে। আমরা স্বাধীন ও মুক্ত ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চল চাই। কারণ, মুক্ত গণতান্ত্রিক পরিবেশেই শক্তিশালী, স্থিতিশীল ও সমৃদ্ধ অঞ্চল গড়ে উঠতে পারে।’


ইয়োশিহিদে সুগা: জাপানের প্রধানমন্ত্রী ইয়োশিহিদে সুগা বলেন, ‘এই বৈঠকের মাধ্যমে ইন্দো-প্যাসিফিক অঞ্চলের মধ্যে সংহতি শক্তিশালী হবে।’

জো বাইডেন: মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন বলেন, ‘কোয়াডভুক্ত চার প্রধান গণতান্ত্রিক দেশের পারস্পরিক সহযোগিতার ইতিহাস রয়েছে। আমরা জানি কীভাবে কোনও কিছুর সমাধান করতে হয়। আর আমরা এই চ্যালেঞ্জ গ্রহণের জন্য প্রস্তুত।’


নরেন্দ্র মোদী: ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কোয়াডভুক্ত দেশগুলোর মধ্যে গণতান্ত্রিক মূল্যবোধ চর্চার ওপর জোর দেন।
উল্লেখ্য, কোয়াডকে চিন বিরোধী জোট হিসাবে মনে করা হচ্ছে। আমেরিকা কোয়াডের মাধ্যমে এশিয়ায় নিজের অবস্থান পাকাপোক্ত করতে চায়। এর আগে বেজিং বলেছে, চিনের আধিপত্য ঠেকাতে এটি মার্কিনদের নতুন চাল।

News App: খবরের টাটকা আপডেট পেতে ডাউনলোড করুন প্রথম কলকাতা অ্যাপ

Categories